কলকাতা, সোমবার ২৩ জানুয়ারি ২০১৭, ৯ মাঘ ১৪২৩

রবিবার | রেসিপি | আমরা মেয়েরা | দিনপঞ্জিকা | শেয়ার | রঙ্গভূমি | সিনেমা | নানারকম | টিভি | পাত্র-পাত্রী | জমি-বাড় | ম্যাগাজিন

ফের মিডিয়ার সঙ্গে সংঘাতে গিয়ে ট্রাম্প বললেন,
মিডিয়াই পৃথিবীর সবচেয়ে ‘অসৎ শ্রেণিভুক্ত’

ওয়াশিংটন, ২২ জানুয়ারি: ফের মিডিয়ার সঙ্গে সংঘাতে জড়ালেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। প্রশাসনিক জমানার শুরুর দিনই বললেন, মিডিয়াই হল পৃথিবীর সবচেয়ে ‘অসৎ শ্রেণিভুক্ত’। ভার্জিনিয়ার ল্যাঙলে সিআইএর সদরদপ্তর পরিদর্শনে গিয়ে ১৫ মিনিটের ভাষণে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প সাংবাদিকদের দিকে হাত তুলে বলেন, সংবাদপত্রের সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক বৈরিতার। সাংবাদিকেরা সিআইএ ও ডোনাল্ড ট্রাম্পের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টির জন্য কাজ করছেন। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেন, সাংবাদিকেরা ছবি উঠিয়েছেন কায়দা করে। এমনভাবে ছবি উঠিয়েছেন, যাতে লোকসংখ্যা কম দেখা যায়। নিজের অভিষেকের দিন আমেরিকার ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি লোকের সমাবেশ হয়েছে বলে তিনি দাবি করেন। অসততার জন্য সাংবাদিকদের মূল্য দিতে হবে বলেও তিনি হুমকি দেন।

একই অভিযোগ তুলেছে হোয়াইট হাউজও। শনিবার রাতে আক্রমণাত্মক বিবৃতিতে হোয়াইট হাউজের মুখপাত্র শন স্পাইসার শুক্রবারের অনুষ্ঠান চলাকালে ট্যুইটারে দেওয়া ওয়াশিংটনের ন্যাশনাল মল এলাকার বিশাল জায়গা খালি দেখানো ছবিগুলির তীব্র সমালোচনা করেন। সংক্ষিপ্ত এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, কয়েক যুগের মধ্যে কোনও অভিষেকে এবারই সবচেয়ে বেশি দর্শক উপস্থিত হয়েছিলেন। বিভিন্ন মিডিয়ার এই উদ্দীপনাকে খাটো করে দেখানোর উদ্যোগ ভুল এবং লজ্জাজনক। ন্যাশনাল মলে ৭ লক্ষ ২০ হাজার লোক ধরার ক্ষমতা রয়েছে। ট্রাম্পের শপথের সময় সেই ন্যাশনাল মল পরিপূর্ণ ছিল বলে দাবি করেছেন স্পাইসার। ন্যাশনাল পার্ক সার্ভিস জনসমাগমের সরকারি হিসাব প্রকাশ করেনি বলে জানান তিনি। বলেন, সঠিক সংখ্যা কারো জানা নেই। তবে সাংবাদিকদের কোনও প্রশ্ন করার সুযোগ দেননি তিনি। উল্লেখ্য, ওয়াশিংটন কর্তৃপক্ষের হিসাবে, ২০০৯ সালে প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার অভিষেকের সময় ১৮ লক্ষ মানুষ উপস্থিত হয়েছিলেন, যা ওয়াশিংটনের ন্যাশনাল মলে এ যাবৎ সবচেয়ে বড় জমায়েত ছিল। ট্রাম্প প্রশাসনের দাবি, এবার সেই জমায়েতকেও টেক্কা দিয়েছে।

শপথ নেওয়ার আগেই মার্কিন মিডিয়া ট্রাম্পকে রীতিমতো চ্যালেঞ্জ জানিয়ে বলে, আমরা ঠিক করব দর্শকদের আমরা কী দেখাব, পাঠকদের কী পড়াব। আপনি সেটা ঠিক করে দিতে পারেন না। ডোনাল্ড ট্রাম্প–কে এক খোলা চিঠিতে সাফ জানিয়ে দিয়েছিলেন মার্কিন সাংবাদিকরা। ‘আমেরিকান প্রেস কর্পস’–এর নামে ওই চিঠিটি ছাপা হয়েছিল পেশাদার সাংবাদিকদের নিজস্ব পত্রিকা ‘কলাম্বিয়ান জার্নালিজম রিভিউ’–তে, যা প্রকাশ করে কলাম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়। চিঠিতে কোনও রাখঢাক না করেই ট্রাম্পের উদ্দেশ্যে বলা হয়েছে, ‘খেয়াল রাখুন, নিয়মগুলি আপনি বানাবেন না। আমরা, সাংবাদিকেরা বানাব। কারণ টিভি–তে এটা আমাদের এয়ার টাইম, কাগজের প্রতি কলাম সেন্টিমিটার জায়গা আসলে আমাদের। আপনি সেখানে নিজের প্রভাব খাটাতে চাইলে, সেটা হবে না!’ এই বিবৃতির পর হোয়াইট হাউজের সঙ্গে মার্কিন মিডিয়ার সংঘাত প্রকাশ্যে আসা ছিল সময়ের অপেক্ষা।

শনিবার আমেরিকাজুড়ে মহিলারা ট্রাম্পবিরোধী যে বিক্ষোভ করেছে তারও তীব্র সমালোচনা করেছেন স্পাইসার। ট্রাম্পবিরোধী মহিলারা ওয়াশিংটনের ন্যাশনাল মলেও বিক্ষোভ করেছেন। এখানে তাদের উপস্থিতি মার্কিন প্রশাসনের টনক নড়িয়ে দিয়েছে। ট্রাম্পের অভিষেকে এখানে যত লোক জড়ো হয়েছিলেন তার চেয়ে মহিলা বিক্ষোভে বেশি উপস্থিত হয়েছিলেন বলে মনে করা হচ্ছে। ওয়াশিংটন মেট্রো সাবওয়ে সিস্টেম জানিয়েছে, শুক্রবার সকাল ১১টা পর্যন্ত ১ লক্ষ ৯৩ হাজার মানুষ মেট্রো ব্যবহার করেছে। ২০০৯ সালে ওবামার অভিষেকের দিন ওই সময়ের মধ্যে ৫ লক্ষ ১৩ হাজার মানুষ মেট্রো ব্যবহার করেছিল। আর শনিবার সকাল ১১টার মধ্যে ২ লক্ষ ৭৫ হাজার মানুষ মেট্রো ব্যবহার করেছে এবং এর সবাই ওয়াশিংটনের কেন্দ্রেস্থল ন্যাশনাল মলের দিকে গিয়েছে বলে জানিয়েছে মেট্রো সার্ভিস। ওই সময়ই ন্যাশনাল মলে মহিলাদের ট্রাম্প বিরোধী বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়। এই সময় যাত্রীদের স্রোত নিয়ন্ত্রণ করতে তাদের হিমশিম খেতে হয়েছে বলেও জানিয়েছে মেট্রো সার্ভিস।


জার্মানিতে বরফ ঢাকা পাহাড়ে রেলযাত্রা। -পি টি আই

প্রত্যেকেই রয়েছেন ক্ষমতাশালী পদে
দেশের জনসংখ্যার ১ শতাংশ, মার্কিন কংগ্রেসে ভারতীয় বংশোদ্ভূত বেড়ে ৫

ওয়াশিংটন, ২২ জানুয়ারি: ভারতীয়দের সংখ্যা বাড়ছে আমেরিকায়। সেইসঙ্গে, রাজনৈতিক কেরিয়ারে আশাতীত সাফল্য অর্জনও করছেন ভারতীয় বংশোদ্ভূতরা। ফলে, গোটা আমেরিকায় যেখানে ভারতীয় বংশোদ্ভূতের সংখ্যা সেদেশের জনসংখ্যার নিরিখে ১ শতাংশ। সেখানে সেদেশের সংসদে ভারতীয় বংশোদ্ভূত নাগরিকের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ শতাংশ। আর তাই মার্কিন কংগ্রেসে বর্তমানে ভারতীয় বংশোদ্ভূত প্রতিনিধির সংখ্যা হয়েছে পাঁচ। সামালাচ্ছেন বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদের দায়িত্ব। হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারতীয় বংশোদ্ভূত মার্কিন রোনাক ডি দেশাই একথা জানিয়েছেন। পাশাপাশি, প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নেতৃত্বে ভারত-আমেরিকা সম্পর্কে নয়া যুগের সূচনা হবে বলে মনে করছে তাঁর ভারতীয় বংশোদ্ভূত মার্কিন সমর্থককূল।

বর্তমানে ভোটাধিকার রয়েছে মার্কিন কংগ্রেসে এমন সদস্য সংখ্যা ৫৩৫। যার মধ্যে ৪৩৫ জন রিপ্রেজেন্টেটিভ এবং বাকি ১০০ জন সেনেটর। আর গত বছরের নির্বাচনে চারজন ভারতীয় বংশোদ্ভূত কংগ্রেসে নির্বাচিত হয়েছে। পঞ্চম ব্যক্তি তৃতীয়বারের জন্য পুনর্নির্বাচিত হয়েছেন। এঁরা হলেন রো খান্না, প্রমীলা জয়পাল, রাজা কৃষ্ণমূর্তি, কমলা হ্যারিস ও অ্যামি বেরা। যা মার্কিন কংগ্রেসের ইতিহাসে সর্ববৃহৎ। শুধু তাই নয়, ডোনাল্ড ট্রাম্পের পদক্ষেপ দেশের রাজনীতিতে ভারতীয় বংশোদ্ভূতদের আলাদা জায়গা করে দিয়েছে। প্রথম ভারতীয় বংশোদ্ভূত হিসাবে রাষ্ট্রসংঘের মার্কিন রাষ্ট্রদূত নিয়োগ করা হয়েছে দক্ষিণ ক্যারোলিনার গভর্নর নিক্কি হার্লেকে। অন্যদিকে, ইন্ডিয়ানা প্রদেশের নাগরিক সীমা ভার্মাকে ‘সেন্টার ফর মেডিকেয়ার অ্যান্ড মেডিকেটেড সার্ভিসেস’-এর দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

এখানেই শেষ নয়, সিলিকন ভ্যালি থেকে নির্বাচিত হওয়া রো খান্নাকে ক্ষমতাশালী ‘হাউজ বাজেট কমিটি’তে মনোনীত করা হয়েছে। আবার সিটেল থেকে নির্বাচিত হাউজ অব রিপ্রেজেন্টেটিভের প্রতিনিধি প্রমীলা জয়পালকে ‘হাউজ জুডিশিয়ারি কমিটি’তে বসানো হয়েছে। শিকাগোর রাজা কৃষ্ণমূর্তিকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে দু’টি কমিটির। সেগুলি হল, ‘হাউজ এডুকেশন অ্যান্ড ওয়ার্কফোর্স কমিটি’ এবং ‘হাউজ ডেমোক্র্যাটিক পলিসি অ্যান্ড স্টিয়ারিং কমিটি’। অন্যদিকে, তিনবারের এমপি অ্যামি বেরাকে ‘হাউজ ফরেন অ্যাফেয়ার্স কমিটি’ এবং ‘হাউজ সায়েন্স, স্পেস অ্যান্ড টেকনোলজি কমিটি’তে মনোনীত করা হয়েছে। সেইসঙ্গে, ‘কংগ্রেসনাল ককাস অন ইন্ডিয়া অ্যান্ড ইন্ডিয়ান আমেরিকান কমিটি’র সহ চেয়ারম্যান রয়েছেন অ্যামি। কমলা হ্যারিসকে সেনেটের চারটি ক্ষমতাশালী কমিটির সদস্য মনোনীত করা হয়েছে।

এদিকে, ট্রাম্পের নেতৃত্বে ভারত-আমেরিকা সম্পর্কে নয়া যুগের সূচনা হবে বলে মনে করছেন তাঁর ভারতীয় বংশোদ্ভূত মার্কিন সমর্থকরা। প্রথম প্রজন্মের সফল উদ্যোগপতি তথা দ্বিগ্বিজয় সিং ‘ড্যানি’ গায়কাওয়াড় বলেন, ট্রাম্পের নেতৃত্ব ভারত-আমেরিকা সম্পর্কের নয়া ঊষার সূচনা হবে। আমার জীবনে দেখা উনিই প্রথম প্রেসিডেন্ট যিনি জাতীয় টিভি চ্যানেলে দাঁড়িয়ে বলেন, আমি ভারতকে ভালোবাসি। ভারতীয়দের ভালোবাসি। ভারতীয়দের সাহায্য করতে চাই। এটাই যদি যথেষ্ট না হত, তাহলে আর কোনটা। প্রসঙ্গত, ফ্লোরিডায় হোটেলের ব্যাবসা রয়েছে ড্যানির। অন্যদিকে, ট্রাম্প প্রশাসনের এশিয়ান আমেরিকান অ্যান্ড প্যাসিফিক আইল্যান্ডার অ্যাডভাইসরি কমিটির সদস্য হ্যারি ওয়ালিয়া বলেছেন, যেহেতু ভারত-আমেরিকা স্বাভাবিক মিত্র, তাই দু’দেশের মধ্যে সম্পর্ক নজির সৃষ্টি করবে। আমরা ভালো বন্ধু হতে চলেছে বলে ট্রাম্প ইতিমধ্যে বিবৃতি দিয়েছেন। আগামী সপ্তাহে ট্রাম্পের সঙ্গে দেখা করতে আমেরিকা আসছেন ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী টেরিজা মে।

প্রসঙ্গত, ১৯৫৬ সালে এশীয় বংশোদ্ভূত হিসাবে প্রথম কংগ্রেসে নির্বাচিত হন জাজ দিলীপ সিং সৌদ। এরপর প্রায় চার দশক পরে হাউজ অব রিপ্রেজেন্টেটিভে যান লুইজিয়ানার গর্ভনর ববি জিন্দল। তারপর এই প্রথম মার্কিন কংগ্রেসে ভারতীয় বংশোদ্ভূতের সংখ্যা দাঁড়াল পাঁচ।

পাকিস্তানের আদালতে মুম্বই জঙ্গিহানার শুনানি ২৫ জানুয়ারি

লাহোর, ২২ জানুয়ারি (পিটিআই): পাকিস্তানের আদালতে ২৬/১১ মুম্বই জঙ্গিহানা মামলার শুনানির দিন ধার্য করা হয়েছে ২৫ জানুয়ারি। দেশের এক আধিকারিক এখবর জানিয়েছেন। জঙ্গি হামলার মূলচক্রী জাকিউর রেহমান লাকভি, আবদুল ওয়াজিদ, মাজহার ইকবাল, হামান আমিন সাদিক, শাহিদ জামিল রিয়াজ, জামিল আহমেদ ও ইউনিস আনজুমের বিরুদ্ধে খুন, খুনের ষড়যন্ত্র, পরিকল্পনা এবং তা বাস্তবায়িত করার অভিযোগ রয়েছে। প্রসঙ্গত, দীর্ঘদিন ধরে ২৬/১১ মামলাটির দ্রুত নিষ্পত্তির দাবি জানিয়ে আসছে ভারত।

পাপুয়া নিউগিনিতে প্রবল ভূমিকম্প, জারি সুনামি সতর্কতা

সিডনি, ২২ জানুয়ারি (পিটিআই): রবিবার তীব্র ভূকম্পন অনুভূত হল পাপুয়া নিউগিনি দ্বীপপুঞ্জে। রিখটার স্কেলে কম্পনের মাত্রা ছিল ৭.৯। অবশ্য, এদিনের কম্পনে বড় কোনও ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া যায়নি। তবে, প্রশান্ত মহাসাগরের বেশ কিছু দ্বীপে সুনামি সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

 






?Copyright Bartaman Pvt Ltd. All rights reserved
6, J.B.S. Haldane Avenue, Kolkata 700 105
 
Editor: Subha Dutta