কলকাতা, সোমবার ২৩ জানুয়ারি ২০১৭, ৯ মাঘ ১৪২৩

 

রবিবার | রেসিপি | আমরা মেয়েরা | দিনপঞ্জিকা | শেয়ার | রঙ্গভূমি | সিনেমা | নানারকম | টিভি | পাত্র-পাত্রী | জমি-বাড়ি | ম্যাগাজিন

কিছু শিল্পীকে কাজে লাগাত রোজভ্যালি, দাবি সিবিআইয়ের
দুবাইতে জলসা করে টাকা
পাচার করেছিলেন গৌতম

শুভ্র চট্টোপাধ্যায়, কলকাতা: দুবাইতে জাঁকজমকপূর্ণ জলসার আয়োজন করেছিলেন রোজভ্যালিকর্তা গৌতম কুণ্ডু। সেখানে রাতভর নাচগানের অনুষ্ঠান হয়। বলিউড-টলিউডের বেশ কয়েকজন অভিনেতা-অভিনেত্রী ও সংগীতশিল্পী হাজির ছিলেন ওই অনুষ্ঠানে। অভিযোগ, ওই অনুষ্ঠানকে হাতিয়ার করেই তাঁরা চিটফান্ডকর্তার টাকা মধ্যপ্রাচ্যের ওই দেশে পাচার করতে সাহায্য করেছেন। যা পরে গৌতম কুণ্ডুর কাছেই জমা পড়েছে। এমনই তথ্য পেয়েছে সিবিআই। তাদের বক্তব্য, আসলে এই সমস্ত গ্ল্যামারকুইনরা হাওলা কারবারের সঙ্গে জড়িয়ে গিয়েছিলেন এবং গৌতম কুণ্ডুর টাকা সরাতে সাহায্য করেছেন। এবার সেই অনুষ্ঠান কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার নজরে। বিদেশে অনুষ্ঠানের জন্য নায়ক-নায়িকাদের পিছনেও বিপুল পরিমাণ টাকা খরচ করেন এই চিটফান্ড কর্ণধার। অনুষ্ঠান শেষে সেখানে হাজির অভ্যাগতদের জন্য ছিল এলাহি আয়োজন। যদিও রোজভ্যালির এক কর্তার বক্তব্য, গৌতম কুণ্ডুর বিদেশে জলসার সঙ্গে টাকা পাচারের কোনও সম্পর্ক নেই। সিবিআই মিথ্যা অভিযোগ আনছে।

রোজভ্যালিকর্তা গৌতম কুণ্ডু যে দেশে নায়িকা-নায়িকাদের নিয়ে ফুর্তির আসর বসিয়েছেন, এ তথ্য আগেই জানা গিয়েছে। এবার জানা গেল, দেশের বাইরেও তাঁর সঙ্গে গিয়েছেন একাধিক নায়িকা ও সংগীতশিল্পী। সিবিআই জেনেছে, কখনও তাঁদের অনুষ্ঠানের নাম করে বাইরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে, আবার কখনও তাঁরা বেড়াতে গিয়েছেন চিটফান্ডকর্তার সঙ্গে। আপাতদৃষ্টিতে তা সাধারণ মনে হলেও কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার আধিকারিকরা বিষয়টিকে হালকাভাবে নিতে রাজি নন। বিশেষত নির্দিষ্ট কয়েকজনই বারবার যাওয়ায় তাঁদের সন্দেহ বেড়েছে। ঘটনাচক্রে কয়েকজনের সঙ্গে চিটফান্ডকর্তার ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক হয়ে যায়। প্রাথমিক তদন্তে তাই তাঁরা নিশ্চিত, তারকাদের ব্যবহার করা হয়েছে হাওলার মাধ্যমে টাকা পাচারের জন্য। এরজন্য বড় অঙ্কের কমিশন পেয়েছেন তাঁরা।

কিন্তু কীভাবে রোজভ্যালিকর্তার বিদেশে অনুষ্ঠানের কথা মাথায় এল? সিবিআই আধিকারিকরা জেনেছেন, রোজভ্যালির তরফে প্রতি বছরই বড় জলসার আয়োজন করা হত। কলকাতা ছাড়াও জেলাতেও জাঁকজমক করে হত এইসব অনুষ্ঠান। সেখানে হাজির থাকতেন বলিউড-টলিউডের একাধিক নায়ক-নায়িকা ও সংগীতশিল্পীরা। ভিন রাজ্যের শিল্পীদের সঙ্গে যোগাযোগ এবং তাঁদের দিয়ে অনুষ্ঠান করানোর দায়িত্ব সামলাতেন এখানকারই এক নামী শিল্পী। যিনি চিটফান্ডকর্তার সঙ্গে বসে প্রোগামের বাজেট থেকে শুরু করে সমস্ত বিষয় ঠিক করে দিতেন বলে সিবিআই জেনেছে। কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই শিল্পীর কাছ থেকেই গৌতম কুণ্ডু জানতে পারেন, তাঁর অনুষ্ঠানে আসা অনেক নায়ক-নায়িকাই ঘন ঘন বিদেশে যান। বিশেষত দুবাইতে তাঁদের ভালো পরিচিতি রয়েছে। তখনই তিনি বুঝে যান, তাঁদের নিয়ে গিয়ে দুবাইতে অনুষ্ঠান করালে একদিকে সেখানে বসবাসকারী ভারতীয়দের মধ্যে রোজভ্যালির জনপ্রিয়তা বাড়বে, বাড়বে ব্যাবসাও। অন্যদিকে, তাঁদের দিয়ে কোম্পানির টাকাও বেআইনি পথে পাঠানো যাবে বিদেশে।

তদন্তকারী আধিকারিকদের বক্তব্য, গৌতম কুণ্ডুর দুবাইতে যাতায়াত ছিল অনেকদিন আগে থেকেই। ব্যাবসার নাম করে প্রায়ই তিনি সেখানে যেতেন। তাঁর সঙ্গে থাকতেন পরিবারের কয়েকজন এবং একান্ত ঘনিষ্ঠরা। সেখানে যাওয়ার কয়েক সপ্তাহ আগে হাওলা কারবারের সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তিরা তাঁর সঙ্গে দেখা করতেন। টাকা দুবাইতে পৌঁছে যেত আগেই। এরপর রোজভ্যালিকর্তা সেই টাকা সংগ্রহ করতেন। ওই টাকার একটা বড় অংশ দুবাইয়ের বিভিন্ন ব্যাংকে বিনিয়োগ করেছেন তিনি। নিজের এবং পরিবারের জন্য হাওলার মাধ্যমে পাঠানো টাকায় দামি দামি জিনিসপত্র কিনে নিয়ে এসেছেন। সিবিআই আধিকারিকদের কথায়, জলসার বিষয়টি মাথায় আসা মাত্রই চিটফান্ডকর্তা ২০১২ সালে দুবাইতে একটি বড় জলসার আয়োজন করেন। সেখানকার বেশ কয়েকজন ভারতীয়ও তাঁকে এ কাজে সাহায্য করেন বলে জানা গিয়েছে। জলসায় অংশ নেন সেখানকার কয়েকজন শিল্লীও। সিবিআই সূত্রে জানা গিয়েছে, অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়ার জন্য দেশ থেকে যাওয়া শিল্পীদের বিপুল পরিমাণ টাকা দেওয়া হয়। যার বেশিরভাগটাই নগদে দেওয়া হয়েছিল। চাহিদার তুলনায় বেশিই দেওয়া হয়েছিল। খাতায়-কলমে দেখানো হয়েছে এই টাকা তাঁদের পেমেন্ট করা হয়েছে। বাস্তবে তা হয়নি। অনুষ্ঠান করতে গিয়ে বিপুল ক্ষতিও হয়েছে বলে দেখানো হয়েছে। সূত্রের খবর, তারকারা বাড়তি যে টাকা পেয়েছেন, তা বিভিন্ন বিষয় দেখিয়ে দুবাইতে নিয়ে গিয়েছেন। এমনকী তাঁদের সঙ্গে যে সমস্ত যন্ত্রীরা গিয়েছেন, তাঁদেরকেও এই টাকা দেওয়া হয়েছে। এভাবেই রোজভ্যালির নগদ টাকা দুবাইতে গিয়েছে।

 






?Copyright Bartaman Pvt Ltd. All rights reserved
6, J.B.S. Haldane Avenue, Kolkata 700 105
 
Editor: Subha Dutta