কলকাতা
 

দঃ দমদমে হোটেল ম্যানেজার গ্রেপ্তার
ফের রেস্তরাঁয় হানা, মাংসের ঝোলে আরশোলা, ভাতের ঝুড়িতে কেঁচো

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: ফ্রিজে রাখা রান্না করা মুরগির মাংসে আরশোলা, নর্দমায় ভাত ঝরানোর ঝুড়িতে কেঁচো— শুক্রবার অভিযানে নেমে এমনই দেখতে পেলেন দক্ষিণ দমদম পুরসভার অফিসার ও পুলিশের অফিসাররা। তারপরই দমদম রোডের ওই রেস্তরাঁর সমস্ত কাগজপত্র ও খাবার বাজেয়াপ্ত করেছেন দক্ষিণ দমদম পুরসভা ও খাদ্য দপ্তরের অফিসাররা। ওই রেস্তরাঁর বিরুদ্ধে দমদম থানায় অভিযোগও দায়ের করা হয়েছে। পুলিশ প্রদীপকুমার রায় নামে ওই হোটেলের ম্যানেজারকে গ্রেপ্তার করেছে। এদিন দমদম রোডের আরও কয়েকটি হোটেল ও রেস্তরাঁয় অভিযান চালানো হয়। সেগুলির বিরুদ্ধেও থানায় এফআইআর করা হবে বলে পুরসভার কর্তারা জানিয়েছেন। পাশাপাশি সাতদিনের মধ্যে পরিস্থিতি উন্নতি না করলে প্রত্যেকের ট্রেড ও ফুড লাইসেন্স বাতিল করা হবে বলেও পুরসভার কর্তারা জানিয়েছেন।
দক্ষিণ দমদম পুরসভার চেয়ারম্যান-ইন-কাউন্সিলের সদস্য (জনস্বাস্থ্য) দেবাশিস বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, দমদম রোডের নামী কয়েকটি রেস্তরাঁ ও হোটেলে আমরা অভিযান চালিয়েছি। একটি রেস্তরাঁর বিরুদ্ধে থানায় এফআইআর করেছি। অন্য যেখানে এই ধরনের বাসি-পচা খাবারের নমুনা আমরা পেয়েছি, তাদের বিরুদ্ধেও দমদম থানায় এফআইআর করব। দেবাশিসবাবু বলেন, আমরা এদিন বেশ কয়েকটি হোটেলে চিকেন কারির উচ্ছিষ্ট পেয়েছি। যেগুলি কোনও ক্রেতার টেবিলে অভুক্ত অবস্থায় ছিল। ভাতমাখা ওই চিকেনগুলি আলাদা করে সরিয়ে রাখা হয়েছে। সেগুলি চিকেন ভরতা তৈরি করতে কাজে লাগায় বলে রেস্তরাঁর কর্মীরা আমাদের কাছে স্বীকার করেছে। এই খাবারে বিষক্রিয়ার আশঙ্কা আছে। তাই আমরা অভিযুক্ত সমস্ত রেস্তরাঁ ও হোটেলের বিরুদ্ধে এফআইআর করব।
বৃহস্পতিবারের পর শুক্রবারও দক্ষিণ দমদম পুরসভার সিআইসি (জনস্বাস্থ্য) দেবাশিস বন্দ্যোপাধ্যায় ও সিআইসি (স্বাস্থ্য) গোপা পাণ্ডের নেতৃত্বে পুরসভার জনস্বাস্থ্য, স্বাস্থ্য দপ্তর, খাদ্য দপ্তরের অফিসাররা ও পুলিশ দমদম রোডের বিভিন্ন রেস্তরাঁয় অভিযান চালায়। প্রথমেই তাঁরা মতিঝিলের একটি নামী রেস্তরাঁয় যান। সেখানে রান্নাঘরে ঢুকে তাঁরা চমকে যান। কেননা, রান্নাঘরেই একটি নর্দমা রয়েছে। সেখানে এঁটো বাসনপত্র পরিষ্কার করা হয়। সেখানেই রাখা ছিল ভাতের ফেন ঝরানোর ঝুড়ি। ওই ঝুড়ির গায়ে কেঁচো দেখা যায়। কিছুক্ষণ আগেই ওই ঝুড়িতেই ভাত রাখা হয়েছিল। এরপরই তাঁরা রান্নাঘরে থাকা ফ্রিজ খোলেন। ফ্রিজে দেখা যায় মুরগির মাংসের ঝোলে আরশোলা। ওই ঝোলই গরম করে ক্রেতাদের দেওয়া হত। ফ্রিজে মাছের নানা পদ থেকে শুরু করে পাঁঠার মাংস-সবই রান্না করা অবস্থায় পাওয়া যায়। খাদ্য দপ্তরের অফিসাররা তখনই ওই খাবারের নমুনা সংগ্রহ করেন। তা পরীক্ষার জন্য সঙ্গে সঙ্গেই পাঠানো হয়। তারপরই ওই হোটেলের বেশ কিছু কাগজপত্র আটক করা হয়। রেস্তারাঁ কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে সঙ্গে সঙ্গেই পুরসভার পক্ষ থেকে এফআইআর করা হয়।
এরপর বাগজোলা খাল সংলগ্ন আরও কয়েকটি হোটেল ও রেস্তরাঁয় হানা দেওয়া হয়। সেখানেও একই দৃশ্য দেখতে পান পুরসভার অফিসাররা। ওই রেস্তরাঁয় তখন কয়েকজন মকটেল খাচ্ছিলেন। ওই মকটেল কী বরফ দিয়ে ব্যবহার করা হয়েছে, তা দপ্তরের অফিসাররা জিজ্ঞাসা করলে কয়েকটি বরফের স্ল্যাব তাঁদের দেখানো হয়। অফিসারদের জেরার মুখে তাঁরা স্বীকার করে নেন, মাছের জন্য যে বরফ ব্যবহার করা হয়, তাই কম দামে কিনে এনে মকটেলে দেওয়া হয়। ওই বরফ সাধারণত নোংরা জলে তৈরি করা হয়। তাই ওই মকটেল খেয়ে বিষক্রিয়ার আশঙ্কা থেকে যায়। ওই বরফ পরীক্ষার জন্য বাজেয়াপ্ত করা হয়। কেন এই ধরনের অস্বাস্থ্যকর খাবার সরবরাহ করা হয়, তা নিয়ে ওই রেস্তরাঁ কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে কারণ দর্শানোর চিঠি দেওয়া হয়। দু’একদিনের মধ্যেই ওই রেস্তরাঁর বিরুদ্ধেও থানায় এফআইআর করা হবে বলে পুরসভার কর্তারা জানিয়েছেন। বেশ কয়েকটি ছোট ভাতের হোটেলেও এদিন অভিযান চালান পুরসভার কর্তারা। তাদের রান্নাঘরও চূড়ান্ত অস্বাস্থ্যকর অবস্থায় রয়েছে। সেগুলিকেও পুরসভায় তলব করা হয়েছে।
এই ধরনের খাবার সম্পর্কে কোনও অভিযোগ থাকলে রাজ্য পুলিশের এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চের কন্ট্রোল রুমের ফোন করে অভিযোগ জানানো যাবে। কন্ট্রোল রুমের নম্বর হল ০৩৩-২৪৫০০৩০০/০৩২০/০৩২১।
20th  May, 2017
মনুয়াকাণ্ডের ছায়া এবার হাওড়াতেও
ফোনে কাতর কণ্ঠে স্বামীকে ডেকে পাঠিয়ে প্রেমিক ও সুপারি কিলার দিয়ে খুনের চেষ্টা স্ত্রীর

 নিজস্ব প্রতিনিধি, হাওড়া: বারাসতের মনুয়াকাণ্ডের ছায়া এবার হাওড়া জেলাতেও। মনুয়া মজুমদারের পরিণতি দেখেও কোনও শিক্ষা হয়নি বাগনানের দেবশ্রী ব্যবর্তার। ৯ বছরের বিবাহিত জীবনের তোয়াক্কা না করে স্বামী এবং ৬ বছরের মেয়েকে ফেলে প্রেমিকের হাত ধরে দেবশ্রী প্রায় এক বছর আগে গত জুন মাসে ঘর ছেড়েছিল।
বিশদ

  দিনের বেলায় বেলঘরিয়া থানার লকআপের জানালার শিক খুলে উধাও দুষ্কৃতী

 বিএনএ, বারাকপুর: দুপুরের ভাতঘুম দিয়ে থানার লকআপে আগ্নেয়াস্ত্রসহ ধরা পড়া তিন দুষ্কৃতী টানটান হয়ে শুয়েছিল। ডিউটি অফিসারের ঘরের ভিতরে লকআপ। স্বাভাবিকভাবে এই লকআপ অনেকটাই নিরাপদ এলাকা। ফলে, কাঠফাটা গ্রীষ্মে নজরদারিতে কিছুটা ঢিলেঢালা ছিল। সেই সুযোগেই কেল্লা ফতে।
বিশদ

  বিষাক্ত মেটালিক ইয়েলো বিরিয়ানির হাঁড়িতে, নষ্ট করে দিলেন পুরকর্মীরা

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: কলকাতা পুরভবনের পাশেই একের পর এক নামকরা সংস্থার ঝাঁ চকচকে রেস্তরাঁ। নিউ মার্কেট, ধর্মতলা চত্বরে কেনাকাটা করতে আসা মানুষজন তো আছেনই, এই সব নামী রেস্তরাঁতে স্রেফ খাওয়ার জন্যও আসেন অনেকে।
বিশদ

অনুপমের বাড়ি থেকে অস্ত্রসহ
বেশ কিছু নথি ও নমুনা উদ্ধার

বিএনএ, বারাসত: ‘আজ একটু সেলিব্রেশন হবে না’? খুনের দিন অনুপমের বাড়িতে যাওয়ার আগে প্রেমিকা মনুয়া মজুমদারের কাছে এমনই আবদার করেছিল প্রেমিক অজিত রায়। মনুয়া ছোট্ট উত্তর দিয়ে বলেছিল, ‘ঠিক আছে, তবে বেশি নয়। কাজটা করতে হবে’।
বিশদ

  প্রমোদ ভ্রমণের জন্য ময়দান এলাকায় সার্কুলার রুটে হেরিটেজ ট্রাম চালাতে চায় পশ্চিমবঙ্গ পরিবহণ নিগম

 নিজস্ব প্রতিনিধি , কলকাতা: এবার প্রমোদ ভ্রমণের জন্য ময়দান এলাকায় সার্কুলার রুটে হেরিটেজ ট্রাম চালাতে চায় পশ্চিমবঙ্গ পরিবহণ নিগম। শহরে ঘুরতে আসা পর্যটকদের কথা ভেবেই এই তোড়জোড় শুরু করেছে তারা। এই পরিষেবা শুরু করতে ময়দান চত্বরে প্রয়োজনীয় পরিকাঠামো তৈরির প্রয়োজন। সেই কাজের জন্য সেনাবাহিনীর অনুমোদন দরকার। এ নিয়ে ইতিমধ্যেই আলোচনা শুরু হয়েছে বলে পরিবহণ দপ্তর সূত্রের খবর।
বিশদ

  মৌলালি থেকে গ্রেপ্তার ভুয়ো ডাক্তার

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: ভুয়ো ডাক্তার অভিযোগে খাস কলকাতা থেকে গ্রেপ্তার হলেন এক ব্যক্তি। দক্ষিণ কলকাতার একটি হাইপ্রোফাইল নার্সিংহোমে যুক্ত রয়েছেন নরেন পান্ডে নামে ওই ‘চিকিৎসক’। শুক্রবার সন্ধ্যায় তাঁকে মৌলালির কাছে একটি বেসরকারি ডায়াগনস্টিক সেন্টার থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।
বিশদ

  ২ বছর ধরে ঠিকানা বারাসত হাসপাতাল
হারিয়ে যাওয়া মানসিক ভারসাম্যহীন তামিল রোগিণী সুস্থ হয়ে গ্রামে ফিরবেন সোমবার

 অলকাভ নিয়োগী, বারাসত, বিএনএ: হাসপাতালের চার দেওয়ালই তাঁর ঘর। চিকিৎসক, নার্স ও কর্মীরা তাঁর আত্মীয়। তাঁদের সঙ্গে হাসিঠাট্টায় দিনযাপন হয় বিশালাক্ষীর। কম দিন তো নয়, টানা দু-দু’টো বছর। দিন কয়েক আগেও বারাসত হাসপাতালের মানসিক বিভাগের বেডে শুয়ে তিনি কাঁদতে কাঁদতে আক্ষেপ করেছিলেন—আমি কী কোনওদিন নিজের বাড়িতে ফিরতে পারব না!
বিশদ

 ব্রাবোর্ন, স্ট্র্যান্ড রোডে ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর কাজ দ্রুত করতে উদ্যোগ

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: ব্রাবোর্ন রোড ও স্ট্র্যান্ড রোডে ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর কাজে গতি আনতে আগামী সপ্তাহ থেকেই মাঠে নামছে প্রশাসন। ওই এলাকার বাসিন্দাদের চিহ্নিতকরণের পর বাস্তব পরিস্থিতি খতিয়ে দেখে বিশেষজ্ঞদের পরামর্শের ভিত্তিতে কাজ এগবে।
বিশদ

বাসন্তী: তৃণমূলের গোষ্ঠী সংঘর্ষে উত্তপ্ত এলাকা, খুনোখুনিও হতে পারে যে কোনও দিন

 নিজস্ব প্রতিনিধি, দক্ষিণ ২৪ পরগনা: বাসন্তী বিধানসভা কেন্দ্র নিয়ন্ত্রণ কার হাতে থাকবে তা নিয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের বিধায়ক জয়ন্ত নস্করের শিবিরের সঙ্গে দলের ক্যানিং পূর্বের বিধায়ক শওকত মোল্লার যুব সংগঠনের লড়াইয়ে পুরো এলাকা উত্তপ্ত হয়ে গিয়েছে।
বিশদ

Pages: 12345




একনজরে
বোকারো (ঝাড়খণ্ড), ২৬ মে (পিটিআই): মাওবাদী হামলার জেরে ব্যাহত হল গোমো-বারকানানা শাখার ট্রেন চলাচল। বৃহস্পতিবার রাতে ডুমরি বিহার রেল স্টেশনে হানা দেয় মাওবাদীরা। জানা গিয়েছে, ...

 বিএনএ, তমলুক: লালবাজার অভিযানে দলের নেতা-কর্মীদের উপর লাঠি চালানোর প্রতিবাদে শুক্রবার বিকালে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার বিভিন্ন প্রান্তে বিক্ষোভ দেখায় বিজেপি নেতৃত্ব। এদিন বিকালে তমলুকের হলদিয়া-মেচেদা ...

 কান্দাহার, ২৬ মে (এএফপি): কান্দাহারে তালিবান হামলায় অন্তত ১৫ জন আফগান সেনার মৃত্যু হল। আফগানিস্তানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে, কান্দাহারের সেনা ঘাঁটিতে এই তালিবান হামলা হয়েছে। ...

 সংবাদদাতা,শিলিগুড়ি: শিলিগুড়ির ক্রীড়া সংগঠক তথা রাজনৈতিক নেতা পীযূষ বসু শুক্রবার প্রয়াত হলেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮০ বছর। তিনি দীর্ঘদিন ধরে বার্ধক্যজনিত রোগে ভুগছিলেন। এদিন কিালে তিনি কলকাতার একটি নার্সিংহোমে মারা যান। পীযূষ বসুর মৃত্যুতে শিলিগুড়ির ক্রীড়া মহল গভীর শোক ...


আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

বিদ্যার্থীদের ক্ষেত্রে আজকের দিনটি শুভ। কর্মে সাফল্য। অবিবাহিতদের বিবাহের যোগ। প্রেমপরিণয়ে জটিলতা বৃদ্ধি।প্রতিকার: প্রবাহিত জলস্রোতে ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৯৬৪: স্বাধীনতা সংগ্রামী ও ভারতের প্রথম প্রধানমন্ত্রী জওহরলাল নেহরুর মৃত্যু
১৯৬২: ভারতীয় ক্রিকেটার রবি শাস্ত্রীর জন্ম
১৯৭৭: শ্রীলঙ্কার ক্রিকেটার মাহেলা জয়বর্ধনের জন্ম




ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৩.৭৪ টাকা ৬৫.৪২ টাকা
পাউন্ড ৮১.৭৫ টাকা ৮৪.৭২ টাকা
ইউরো ৭১.০৭ টাকা ৭৩.৬০ টাকা
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ২৯, ২৯৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ২৭,৭৯৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ২৮, ২১০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪০, ২০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪০, ৩০০ টাকা

দিন পঞ্জিকা

১৩ জ্যৈষ্ঠ, ২৭ মে, শনিবার, দ্বিতীয়া অপঃ ৫/৩২, মৃগশিরানক্ষত্র অপঃ ৬/৭, সূ উ ৪/৫৬/২৩, অ ৬/১০/৫৫, অমৃতযোগ দিবা ৩/৩১-অস্তাবধি রাত্রি ৬/৫৩-৭/৩৬, পুনঃ ১১/১২-১/২১ পুনঃ ২/৪৭-উদয়াবধি, বারবেলা ৬/৩৬ পুনঃ ১/১৩-২/৫২ পুনঃ ৪/৩২-অস্তাবধি, কালরাত্রি ৭/৩২ পুনঃ ৩/৩৬-উদয়াবধি।
১২ জ্যৈষ্ঠ, ২৭ মে, শনিবার,দ্বিতীয়া রাত্রি ৮/৪৯/৩, মৃগশিরানক্ষত্র রাত্রি ৯/৩১/১৬, সূ উ ৪/৫৫/২, অ ৬/১১/৩৫, অমৃতযোগ দিবা ৩/৩২/১৭-৬/১১/৩৫ রাত্রি ৬/৫৪/২৯-৭/৩৭/২৩, ১১/১১/৫২-১/২০/৩৩, ২/৪৬/২০-৪/৫৪/৫৬, বারবেলা ১/১২/৫৩-২/৫২/২৭, কালবেলা ৬/৩৪/৩৬, ৪/৩২/২২-৬/১১/৩৫, কালরাত্রি ৭/৩২/১, ৩/৫৪/৩০-৪/৫৪/৫৬।
৩০ শাবান

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
 মাধ্যমিকে ষষ্ঠ এবং কলকাতা থেকে প্রথম- সত্যেন কর,প্রাপ্ত নম্বর-৬৮৫, স্কুল-যাদবপুর বিদ্যপীঠ

09:45:00 AM

মাধ্যমিকে চতুর্থ হয়েছেন মোট ৬জন , তাঁদের প্রাপ্ত নম্বর-৬৮৭

09:36:00 AM

মাধ্যমিকে দ্বিতীয়- মোজোম্মেল হক,প্রাপ্ত নম্বর-৬৮৯, স্কুল-বাঁকুড়া জেলা স্কুল, যুগ্মভাবে দ্বিতীয় হুগলির রামনগর হাইস্কুলের ছাত্র অনির্বান খাঁড়া

09:27:48 AM

মাধ্যমিকে প্রথম- অন্বেষা পাইন,প্রাপ্ত নম্বর-৬৯০, স্কুল-বিবেকানন্দ শিক্ষায়াতন হাইস্কুল, বাঁকুড়া

09:22:53 AM

এবার সাফল্যের হার ৮৫.৬৫ শতাংশ, গতবারের তুললায় পাসের হার বেড়েছে ২.১৯%

09:18:00 AM

নদীয়ায় পাসের হার ৮২.৩০%

09:16:00 AM






বিশেষ নিবন্ধ
নদী তুমি কার
বিশ্বজিৎ মুখোপাধ্যায়: ১৯৪৭ সালে দ্বিখণ্ডিত স্বাধীনতা কেবলমাত্র মানুষকে ভাগ করেনি, প্রাকৃতিক সম্পদেও ভাঙনের সাতকাহন সূচিত ...
চীন, পাকিস্তান বেজিংয়ে ফাঁকা মাঠ পেয়ে গেল ভারতের কূটনৈতিক ভুলের কারণে
কুমারেশ চক্রবর্তী: মাত্র কিছু দিন আগে বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ামক সংস্থা আইসিসি’র এক ভোটে ৯-১ ভোটে ...
ভুলে যাওয়ার রাজনীতি
 সমৃদ্ধ দত্ত: আমাদের প্রিয় গুণ হল ভুলে যাওয়া। রাজনৈতিক নেতানেত্রীরা সেটা জানেন। তাই তাঁদের খুব ...
রোমান্টিক বিপ্লবের ৫০ বছর নকশালবাড়ি
অভিজিৎ দাশগুপ্ত: আগে কোনওদিন এই স্টেশনটা আমি দেখিনি। শহরের রাস্তা থেকে সরাসরি উঠে গিয়েছে ওভারব্রিজ। ...
 ভারতীয় সেনাবাহিনী ভালোভাবেই জানে কীভাবে শিক্ষা দেওয়া যায়
অরুণ রায়: পাকিস্তান আমাদের সৈন্যকে মেরেছে। তাই যুদ্ধ চাই। যুদ্ধ করেই পাকিস্তানকে উচিত শিক্ষা দেওয়া ...