Bartaman Patrika
রাজ্য
 
 

রবিবার দক্ষিণ কলকাতা লোকসভা কেন্দ্রে প্রচারে প্রার্থী মালা রায়ের সঙ্গে রাজ্যের মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস।- নিজস্ব চিত্র 

 মৃত্যুহীন জীবন...

একজন জন্মসন্ন্যাসী, ঠাকুর যাঁকে এই বলে বিশ্বাস করতেন, যে এই মহাপ্রাণটি জগতের হিতের জন্যে অবতীর্ণ হয়েছেন অনন্তের পরিমণ্ডল থেকে। ঠাকুর এও জানতেন তাঁর এই ধ্রুব শিষ্যটির শরীর বেশি দিন থাকবে না। স্বামীজিও সেকথা জানতেন কিন্তু তিনি সাধারণ পরিবেশে, সাধারণের মতো সাধারণ। তখন তাঁর কোনও অহঙ্কারই থাকত না। সাধারণের সঙ্গে সাধারণের মতোই নিজের বৃহৎ সত্তাকে গুটিয়ে আনতেন।

অপূর্ব চট্টোপাধ্যায়: সদ্য স্বামীহারা মিসেস সেভিয়ারকে সান্ত্বনা দিয়ে স্বামীজি ফিরে এলেন বেলুড় মঠে। সেইসময় তাঁর শরীর একদম ভালো ছিল না। তিনি তখন মুক্তির আকাশে মুক্ত বিহঙ্গের মতো ওড়ার জন্য ছটফট করছেন। একদিন তিনি তাঁর গুরুভ্রাতাদের বললেন, দেখ আমি তো মায়ের জন্য কখনও কিছু করলুম না; আমার শরীরের যেরকম অবস্থা তাতে দু-এক বছরের বেশি বাঁচব বলে মনে হয় না। তাই আমার ইচ্ছা মাকে কিছু তীর্থ করাই। তাহলে তবু তাঁর কিছু করা হবে। তা তোমরা যদি আমায় এ বিষয়ে সাহায্য কর তো ভালো হয়; আমার নিজের শরীরের তো এই অবস্থা।
এরপরই মা-দিদিমা ও দু-একজন গুরুভ্রাতাকে সঙ্গে নিয়ে স্বামীজি তীর্থভ্রমণে বেরলেন। তাঁরা যাবেন পূর্ববঙ্গ ও আসামের দিকে। শিলং-এ পৌঁছে স্বামীজি আবার অসুস্থ হয়ে পড়লেন। শুরু হল প্রবল শ্বাসকষ্ট। এক ফোঁটা বাতাসের জন্য তিনি তখন ছটফট করছেন। গুরুভ্রাতারা স্বামীজির অবস্থা দেখে অত্যন্ত বিচলিত হয়ে পড়লেন। ভয়ানক শ্বাসকষ্ট উপেক্ষা করেই স্বামীজি তাঁদের বলেছিলেন, ‘যাক, মৃত্যুই যদি হয়, তাতেই বা কি আসে যায়? যা দিয়ে গেলুম, দেড়হাজার বছরের খোরাক।’
এই তীর্থভ্রমণে বেরিয়ে বেশ কয়েকটি মজার ঘটনা ঘটেছিল। একদিন ভুবনেশ্বরী দেবী তাঁর জগৎবিখ্যাত পুত্র স্বামী বিবেকানন্দকে বলেছিলেন, ‘দেখ এসব তো অনেক হলো, বেশ ভাল, এইবার একটা বিয়ে কর।’ উত্তরে স্বামীজি বলেছিলেন, ‘দেখো মা, বিয়ে করবার কি দরকার? এই দেখনা আমার সব কত বড় বড় ছেলে (শিষ্যদের দেখিয়ে) রয়েছে।’ কিন্তু এই বিয়ের প্রসঙ্গ দিদিমা তুললেই, স্বামীজি মজা করে হাসতে হাসতে বলতেন, ‘দেখ দিদিমা, এখনও আমার হাতে কিছু টাকা আছে; তুমি এই বেলা মর, আমি তোমার বেশ ঘটা করে শ্রাদ্ধ করি।’
একজন জন্মসন্ন্যাসী, ঠাকুর যাঁকে এই বলে বিশ্বাস করতেন, যে এই মহাপ্রাণটি জগতের হিতের জন্যে অবতীর্ণ হয়েছেন অনন্তের পরিমণ্ডল থেকে। ঠাকুর এও জানতেন তাঁর এই ধ্রুব শিষ্যটির শরীর বেশি দিন থাকবে না। স্বামীজিও সেকথা জানতেন কিন্তু তিনি সাধারণ পরিবেশে, সাধারণের মতো সাধারণ। তখন তাঁর কোনও অহঙ্কারই থাকত না। সাধারণের সঙ্গে সাধারণের মতোই নিজের বৃহৎ সত্তাকে গুটিয়ে আনতেন। রঙ্গ রসিকতা ,মেয়েলি কথাবার্তাতেও তাঁর আপত্তি ছিল না। এখানে তিনি পবিত্র এক অস্তিত্বকে বহন করে নিয়ে চলেছেন— তাঁর গর্ভধারিণীকে। এই পরিক্রমা বৃত্তাকারে ফিরে আসবে উৎসে। আর সেইখান থেকেই ঘটবে তাঁর আবার ফিরে যাওয়া অনন্তে।
তিনি যে চলে যাবেন এই তথ্যটি তিনি নিজের মধ্যে সঙ্গোপনে রেখে দিয়েছিলেন। কেউ যেন বুঝতে না পারে অগ্নিনির্বাপিত হতে চলেছে। ঘটনাটি এত আকস্মিক যে তাঁর ঘনিষ্ঠ গুরুভ্রাতারাও বুঝতে পারেননি। সেইদিন তিনি দেখিয়ে গেলেন তাঁর লীলা। সম্পূর্ণ সুস্থ সেদিন। একমাইলেরও অধিক পথ হেঁটে এলেন। তারপর নিঃশব্দে নিজের শক্তি দিয়ে যেন জ্বালালেন আর একটি বৃহৎ হোমকুণ্ড, আহুতি দিলেন নিজেকে।
ঠাকুর বলতেন, যাবার আগে হাটে হাঁড়ি ভেঙে দিয়ে যাব। অর্থাৎ আমি কে, সাধারণ ও অসাধারণ মানুষ উভয়েই বুঝতে পারবে। তাঁরই প্রধান শিষ্য স্বামী বিবেকানন্দ সিমুলিয়ার ‘বিলেটি’কে তা অগ্নিআখরে আকাশের গায়ে লিখে রেখে যাবেন। সেই কারণেই প্রথম দিনেই শেষ দিনের কথা বলার চেষ্টা। রবীন্দ্রনাথ বড় সুন্দর একটা লাইন রেখে গেছেন— ‘যা পেয়েছি প্রথম দিনে তাই যেন পাই শেষে।’ স্বামীজির শেষ কোথায়! তিনি তো অনন্ত, তিনি তো ব্রহ্মস্বরূপ। তিনি বলতেন অহং ব্রহ্মাষ্মি। হাজার বার বললেও, ব্রহ্মস্বরূপ হওয়া যায় না।
স্বামীজি আবার বলতেন ব্রহ্মের আবার অসুখ কী? শ্বাসকষ্ট, মধুমেহ— এসবই তো শরীরের। ঠাকুর যাকে বলতেন খাঁচা। ঠাকুরও তো বলতেন, রোগ জানুক আর দেহ জানুক। আমেরিকা ভ্রমণের শেষের দিকে স্বামীজি অত্যন্ত অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন কিন্তু পাত্তা দেননি। পূর্ববঙ্গ ভ্রমণের সময় শরীর সহযোগিতা করেনি। তিনি সেসব গ্রাহ্যের মধ্যেই আনেননি। পরিব্রাজক অবস্থায় হৃষীকেশে গুরুভাইরা মনে করেছিলেন তিনি দেহ ছেড়ে দিয়েছেন। বরাহনগর মঠে একবার ভীষণ অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন। স্বামীজির অসুখ করে না, কারণ তিনি মুহূর্তে নিজেকে দেহাতীত অবস্থায় নিয়ে যেতে পারেন। তাঁর শেষের দিনটি স্পষ্ট করে দিয়ে গেছে — দেহ নয় তিনি ছিলেন একটি অগ্নিশিখা। পাশ্চাত্যের পাদরিরাও বারে বারে সে প্রমাণ পেয়েছিলেন।
ফিরে আসি শেষ দিনটির কথায়। সেদিন তিনি ভীষণ সুস্থ। ঠাকুরও চলে যাবার কয়েক ঘণ্টা আগে তাঁর সেবকদের বড় আনন্দ দিয়েছিলেন। সুস্থ মানুষের মতো গলা অন্ন সহজে গ্রহণ করে (স্বামীজিই খাইয়ে দিয়েছিলেন) বড় আরামে বালিশে মাথা রেখে শুয়েছিলেন। আনন্দের হিল্লোল বয়ে গিয়েছিল।
শেষদিনে স্বামীজি কী করলেন! যেটিকে বলা যেতে পারে একটু অন্যরকম। রুদ্ধদ্বার ঠাকুরঘরে দীর্ঘক্ষণ ধ্যানে বসে রইলেন। তারপর বারান্দায় পায়চারি করতে করতে একটি গান বারে বারে গাইলেন। বিকেলে ভ্রমণ শেষে তিনি তাঁর নিজের ঘরে মেঝেতে শুয়ে পড়লেন, সেবককে বললেন বাইরে থাক। সেবক বাইরে থেকে একসময় একটি আর্ত কন্ঠস্বর শুনলেন। এসে দেখলেন স্বামীজি চিরনিদ্রায় নিদ্রিত। এখানেই শেষ নয়, তিনি তাঁর দেহের বাইরে বিচরণ করছিলেন। তা নাহলে তিনি নিবেদিতার প্রার্থনা কেমন করে শুনতে পেলেন। সিস্টার একটি স্মারক নিজের কাছে রাখতে চাইছিলেন। অগ্নি সমন্বিত একটি বস্ত্রখণ্ড পূতচিতাগ্নি থেকে উড়ে এসে তাঁর শরীর স্পর্শ করল। বিদেশিনী স্তম্ভিত। কে কী বুঝলেন জানা নেই, তাঁর এই মানস কন্যা হয়তো রবীন্দ্রনাথের এই লাইনটির অর্থ আর একবার বুঝলেন— এনেছিলে সাথে করে মৃত্যুহীন প্রাণ...।
12th  January, 2019
দার্জিলিংয়ে এনডিএ প্রার্থী হচ্ছেন রাজু বিস্ত
১২ কেন্দ্রের প্রার্থী দিতে
হিমশিম খাচ্ছে বিজেপি

নিজস্ব প্রতিনিধি, নয়াদিল্লি ও কলকাতা: আজ, সোমবার রাজ্যে প্রথম দফার ভোটের জন্য মনোনয়নপত্র পেশ করার শেষ দিন। অথচ এখনও ১২টি আসনে উপযুক্ত প্রার্থী খুঁজে পেতেই রীতিমতো হিমশিম খাচ্ছে বিজেপি। আগামীকাল, মঙ্গলবারের মধ্যে দ্বিতীয় দফার ভোটের জন্য তিনটি কেন্দ্রের প্রার্থীদের মনোনয়ন পেশ করতে হবে। আর এই পরিস্থিতিতে রবিবার গোটা দিন নানা টালবাহানার পর রাতে বিজেপির তরফ থেকে বিবৃতি দিয়ে ঘোষণা করা হল, দার্জিলিং কেন্দ্রে তাদের প্রার্থী হচ্ছেন দলীয় যুব মোর্চার সদস্য রাজু সিং বিস্ত। এদিন জিএনএলএফ এবং বিমল গুরুংপন্থী গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার পক্ষ থেকে যৌথভাবে রাজুর নাম বিজেপিকে প্রস্তাব করা হয়।
বিশদ

মমতাকেই প্রধানমন্ত্রী হিসেবে তুলে ধরে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচারে ঝড়

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: দেশের প্রধানমন্ত্রীর আসনে তাঁকে দেখতে চাই। লোকসভা নির্বাচনের প্রাক্কালে তৃণমূল ও তার অনুগামী বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ায় বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রতিকৃতি ব্যবহার করে এই প্রচার ঝড় তুলেছে। গত জানুয়ারিতে ব্রিগেডে মমতাকে মধ্যমণি করে দেশের তাবড় রাজনৈতিক দলের শীর্ষ নেতৃত্ব ‘ইউনাইটেড ইন্ডিয়া’ গড়ার ডাক দিয়েছিলেন।
বিশদ

ভোটের মুখে কালো টাকার হদিশ করতে রাজ্যে সাত হাজার করদাতার বিরুদ্ধে তদন্তের নির্দেশ দিল্লির

বাপ্পাদিত্য রায়চৌধুরী, কলকাতা: সামনেই লোকসভা ভোট। তাই কালো টাকার রমরমা চারদিকে। সব দিকেই কড়া নজর আয়কর দপ্তরের। বেআইনি লেনদেন বা সম্পত্তির পুরনো হিসেবের খাতাও খুলছে তারা।
বিশদ

 যাদবপুরে বিকাশের বিরুদ্ধে কংগ্রেস প্রার্থী নাও দিতে পারে, সিদ্ধান্ত আজ

  নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: যাদবপুর লোকসভা কেন্দ্রে বাম প্রার্থী বিকাশ ভট্টাচার্যকে পরোক্ষে সমর্থন জানাতে চলেছে কংগ্রেস। আজ, সোমবার দলের কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিটির বৈঠক দিল্লিতে। সেখানে রাজ্যের অবশিষ্ট আসনের প্রার্থীর নাম চূড়ান্ত হবে। সূত্রের খবর, সেক্ষেত্রে যাদবপুর আসনে প্রার্থী না দেওয়ার বিষয়টি চূড়ান্ত হতে চলেছে।
বিশদ

 ৩ এপ্রিল শিলিগুড়ি হয়ে ব্রিগেডে আসছেন মোদি

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: সাম্প্রতিক অতীতে বার তিনেক বাতিল হয়েছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির প্রস্তাবিত ব্রিগেডের জনসভা। কিন্তু লোকসভা ভোটের দোরগোড়ায় আগামী ৩ এপ্রিল বিজেপি প্রার্থীদের হয়ে প্রচারে ব্রিগেড প্যারেড গ্রাউন্ডে হাজির হচ্ছেন মোদি। সূত্রের দাবি, ওইদিন উত্তরবঙ্গের শিলিগুড়িতে প্রথম সভা করার কথা রয়েছে তাঁর। 
বিশদ

 ঘোষিত প্রার্থীদের নিয়ে গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে বঙ্গ নেতৃত্বের উপর ক্ষুব্ধ কেন্দ্রীয় নেতারাই

 দিব্যেন্দু বিশ্বাস, নয়াদিল্লি, ২৪ মার্চ: নিশীথ প্রামাণিক, খগেন মুর্মু, সায়ন্তন বসু, লকেট চট্টোপাধ্যায়—বিজেপির একের পর ঘোষিত প্রার্থীকে নিয়ে যেভাবে দলের মধ্যেই গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে পশ্চিমবঙ্গে, তাতে ব্যাপক উদ্বিগ্ন গেরুয়া শিবিরের কেন্দ্রীয় নেতারা।
বিশদ

 এসএসসি অনশনকারীদের পাশে দাঁড়িয়ে চিঠি অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: অনশনরত স্কুল সার্ভিস কমিশনের (এসএসসি) চাকরি প্রার্থীদের আন্দোলনকে সমর্থন জানিয়ে চিঠি দিলেন অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। তাঁর বক্তব্য, গত ২৫ দিন ধরে এই প্রার্থীরা অনশন করছেন।
বিশদ

 দেওয়াল লেখার শিল্পীর সংখ্যা কমছে, বাড়ছে অনীহাও

 সংবাদদাতা, তারকেশ্বর: ভোট-প্রচারের প্রথম ধাপই হল দেওয়াল লিখন। কিন্তু দেওয়াল লেখার শিল্পীর সংখ্যা ক্রমেই কমছে। ফ্লেক্স, ব্যানার ও স্টিকারের মত আধুনিক প্রচার পদ্ধতির দাপটে সমস্যায় পড়তে হচ্ছে ওই শিল্পীদের। দলীয় কর্মীরা দেওয়াল দখলের পরেই ডাক পড়ত তাঁদের।
বিশদ

চুক্তিভিত্তিক তথ্যপ্রযুক্তি কর্মীদের বেতনে অসঙ্গতি দূর করার দাবি

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: রাজ্য সরকারের বিভিন্ন দপ্তরে চুক্তিতে নিযুক্ত প্রায় সাড়ে তিন হাজার তথ্যপ্রযুক্তি কর্মী কাজ করেন। অনেক কর্মী আট-দশ বছর ধরে কাজ করছেন। এবারের বাজেটে চুক্তিভিত্তিক কর্মীদের মাসিক বেতন দুই হাজার টাকা করে বৃদ্ধি করার কথা ঘোষণা হয়। কিন্তু চুক্তিভিত্তিক তথ্যপ্রযুক্তি কর্মীদের চাকরির নিশ্চয়তা এখনও হয়নি।
বিশদ

 ধান সংগ্রহের গতি হল শ্লথ, লক্ষ্যমাত্রা পূরণ নিয়ে সংশয়

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: প্রথম পর্যায়ে সরকারি উদ্যোগে ধান কেনার যে গতি ছিল, তাতে চলতি খরিফ মরশুমে ৫২ লক্ষ টনের লক্ষ্যমাত্রা পূরণ হতেও পারে বলে আশা করছিলেন খাদ্য দপ্তরের আধিকারিকরা। কিন্তু মার্চ মাসে ধান সংগ্রহের গতি অনেকটাই কমে গিয়েছে। এখনও পর্যন্ত সরকারি উদ্যোগে প্রায় ৩২ লক্ষ টন ধান কেনা হয়েছে।
বিশদ

রাজ্যে এসে মোদি-মমতাকে
একযোগে আক্রমণ রাহুলের
নাম না করে মৌসমকে বিশ্বাসঘাতক বলে তোপ

অভিজিৎ চৌধুরী, চাঁচল, বিএনএ: পশ্চিমবঙ্গে ২০১৯ সালের প্রথম নির্বাচনী জনসভাতে এসেই মোদি ও মমতাকে একযোগে আক্রমণ করে গেলেন সর্বভারতীয় কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। শনিবার মালদহের চাঁচলের নির্বাচনী জনসভা থেকে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ও দিল্লির প্রধানমন্ত্রীর নাম করে তিনি দু’জনকেই মিথ্যেবাদী বলে দাবি করেন। রাহুল গান্ধী বলেন, নরেন্দ্র মোদি মিথ্যে কথা বলেন। আপনাদের মুখ্যমন্ত্রীও তাই। দু’জনেই প্রতিশ্রুতির পর প্রতিশ্রুতি দিয়ে যান। কিন্তু কাজ কিছু হয় না। দেশে এবং রাজ্যে কংগ্রেস ক্ষমতায় এলেই গরিব মানুষের উন্নয়ন হবে। দেশ প্রসঙ্গে যেমন এদিন রাফাল, থেকে নীরব মোদি, মেহুল চোকসিদের নিয়ে রাহুল আক্রমণ শানিয়েছেন, তেমনই রাজ্যের ক্ষেত্রেও কর্মসংস্থান থেকে শিল্প, স্বাস্থ্য প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীর জোর সমালোচনা করেছেন। পাশাপাশি এদিন তিনি নাম না করে মৌসম নুরকে বিশ্বাসঘাতক বলে সম্বোধন করে হুঁশিয়ারি দিয়ে গিয়েছেন।
বিশদ

24th  March, 2019
 এখানে কংগ্রেসের আর কোনও অস্তিত্ব
নেই, সময় নষ্ট করছেন রাহুল: তৃণমূল

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: এ রাজ্যে কংগ্রেসের কোনও গুরুত্ব নেই। রাহুল গান্ধী এখানে এসে সময় নষ্ট করছেন। তার চেয়ে যেখানে বিজেপির বিরুদ্ধে কংগ্রেসের লড়াই, সেখানে তিনি সময় দিতে পারেন। 
বিশদ

24th  March, 2019
 লক্ষ্য এবার দিল্লি, ইস্তাহারে বাংলার
উন্নয়নকে মডেল করতে চান মমতা

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনে তাঁর লক্ষ্য ‘দিল্লি চলো’। সেই অভিমুখেই এবার মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ইস্তাহারে বিশেষ গুরুত্ব পেতে চলেছে সর্বভারতীয় প্রেক্ষিত। গত সাত বছরে বাংলায় আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের যে ধারা তৈরি করেছেন তিনি, তা ইতিমধ্যেই বিশ্বের দরবারে ঠাঁই করে নিয়েছে।
বিশদ

24th  March, 2019
শিলিগুড়ি দিয়ে রাজ্যে ৩ এপ্রিল ভোট প্রচার শুরু করবেন মোদি

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: উত্তরবঙ্গ থেকে লোকসভা ভোটের প্রচার শুরু করবেন দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। আগামী ৩ এপ্রিল শিলিগুড়িতে জনসভা করবেন তিনি। দলের রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, প্রধানমন্ত্রী একাধিকবার রাজ্যে প্রচারে আসবেন। সেই সূত্রে ৩ এপ্রিল শিলিগুড়িতে বিজেপি প্রার্থীদের হয়ে প্রচার সারবেন তিনি।
বিশদ

24th  March, 2019

Pages: 12345

একনজরে
সংবাদদাতা, কান্দি: রবিবার কান্দি পুরসভা এলাকার আন্দুলিয়া গ্রামের কাছে অধীর চৌধুরীর সমর্থনে হওয়া মিছিলের বাইক আটকে দেয় পুলিস। এনিয়ে অধীরবাবু পুলিসের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন।  ...

সংবাদদাতা, মাথাভাঙা: এবারের লোকসভা নির্বাচনে হলদিবাড়িতে অন্যতম ইস্যু হয়ে উঠেছে টম্যাটো প্রক্রিয়াকরণ শিল্প স্থাপন ও বহুমূখী হিমঘর তৈরির দাবি। কেননা হলদিবাড়ি ব্লকের ছয়টি গ্রাম পঞ্চায়েতে অন্তত ১২০০ হেক্টর জমিতে টম্যাটো চাষ হয়।   ...

 লন্ডন, ২৪ মে (এপি): ব্রেক্সিট ইস্যুতে ঘরেবাইরে ক্রমশঃ চাপ বাড়ছে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী টেরিজা মের উপর। নিজের দল কনজারভেটিভ পার্টি থেকেই দাবি উঠেছে হয় অবিলম্বে পদত্যাগ করতে, নয়তো পদত্যাগ দিনক্ষণ চূড়ান্ত করতে। রবিবার এই নিয়েই সরগরম ব্রিটিশ মিডিয়া।  ...

 সংবাদদাতা, তারকেশ্বর: তারকেশ্বরের তালপুর গ্রামে প্রায় ছয় কোটি টাকা ব্যয়ে তৈরি হওয়া দু’টি জলপ্রকল্পে উপকৃত হতে চলেছেন তিনটি গ্রামের প্রায় ৫০ হাজার মানুষ। তারকেশ্বর তালপুর পঞ্চায়েতের রামনারায়ণপুর ও নগদীপাড়া গ্রামে দু’টি জলপ্রকল্পের মাধ্যমে বাড়ি বাড়ি জল পৌঁছে দেওয়ার উদ্যোগে খুশি ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

বিদ্যার্থীদের অধিক পরিশ্রম করতে হবে। অন্যথায় পরীক্ষার ফল ভালো হবে না। প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় ভালো ফল ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৯২৭: হকি খেলোয়াড় লেসলি ক্লডিয়াসের জন্ম
১৯৪৮: অভিনেতা ফারুক শেখের জন্ম
১৯৮৪: ক্রিকেটার অশোক দিন্দার জন্ম
১৯৯২: ক্রিকেট বিশ্বকাপ জিতল পাকিস্তান 

ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৮.১৫ টাকা ৬৯.৮৪ টাকা
পাউন্ড ৮৮.৭৭ টাকা ৯২.১৯ টাকা
ইউরো ৭৬.৬৭ টাকা ৭৯.৬২ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
23rd  March, 2019
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩২, ৭১৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩১, ০৪০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩১, ৫০৫ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৩৮, ৩০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৩৮, ৪০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]
24th  March, 2019

দিন পঞ্জিকা

১০ চৈত্র ১৪২৫, ২৫ মার্চ ২০১৯, সোমবার, পঞ্চমী ৩৫/৫০ রাত্রি ৮/০। বিশাখা ৩/২৬ দিবা ৭/৩। সূ উ ৫/৪০/২৩, অ ৫/৪৫/২৯, অমৃতযোগ দিবা ৭/১৬ মধ্যে পুনঃ ১০/৩০ গতে ১২/৫৫ মধ্যে। রাত্রি ৬/৩৩ গতে ৮/৫৬ মধ্যে পুনঃ ১১/১৯ গতে ২/২৯ মধ্যে, বারবেলা ৭/১২ গতে ৮/৪২ মধ্যে পুনঃ ২/৪৪ গতে ৪/১৪ মধ্যে, কালরাত্রি ১০/১৪ গতে ১১/৪২ মধ্যে। 
১০ চৈত্র ১৪২৫, ২৫ মার্চ ২০১৯, সোমবার, পঞ্চমী রাত্রি ১২/১৯/৫। বিশাখানক্ষত্র ১১/৯/১১, সূ উ ৫/৪০/৪১, অ ৫/৪৪/৪১, অমৃতযোগ দিবা ৭/১৭/১৩ মধ্যে ও ১০/৩০/১৭ থেকে ১২/৫৫/৫ মধ্যে এবং রাত্রি ৬/৩২/২৫ থেকে ৮/৫৫/৩৭ মধ্যে ও ১১/৫৮/৪৯ থেকে ২/২৯/৪৫ মধ্যে, বারবেলা ২/৪৩/৪১ থেকে ৪/১৪/১১ মধ্যে, কালবেলা ৭/১১/১১ থেকে ৮/৪১/৪১ মধ্যে, কালরাত্রি ১০/১৩/১১ থেকে ১১/৪২/৪১ মধ্যে। 
১৭ রজব 

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
ম্যাট্রিমনি সাইটের সূত্রে পরিচিত তরুণীর সঙ্গে প্রতারণা, ধৃত অভিযুক্ত 
শহরে ফের ম্যাট্রিমনিয়াল সাইটে পরিচিত যুবকের হাতে প্রতারিত এক তরুণী। ...বিশদ

01:27:57 PM

লোকসভা নির্বাচন: প্রথম দফার ভোটে রাজ্যে আসছেন ৬জন জেনারেল অবজার্ভার ও ৩জন পুলিস অবজার্ভার 

01:24:00 PM

কালনায় আত্মঘাতী কৃষক, পরিবারের দাবি আলু চাষে ক্ষতি হওয়ায় আত্মহত্যা করেছেন তিনি 

01:17:27 PM

রাস্তা মেরামতির দাবিতে দাসপুরের সুলতানগর-গোপীগঞ্জ সড়ক অবরোধ করলেন স্থানীয়রা 

01:09:00 PM

মনোনয়ন জমা দিলেন রায়গঞ্জের কংগ্রেস প্রার্থী দীপা দাশমুন্সি 

01:05:54 PM

পূর্ব মেদিনীপুরে দুর্ঘটনার কবলে ট্যুরিস্ট বাস, জখম ৪০ 
পুরী থেকে ফেরার পথে দুর্ঘটনার কবলে পড়ল যাত্রীবোঝাই ট্যুইরিস্ট বাস। ...বিশদ

12:18:09 PM