দেশ
 

  ‘সকলের জন্য গৃহ’ প্রকল্প সফল করার দায়িত্ব রাজ্যগুলির উপরই চাপাচ্ছে মোদি সরকার

সন্দীপ স্বর্ণকার • নয়াদিল্লি, ২০ এপ্রিল: মোদি সরকারের প্রকল্প। অথচ রাজ্যগুলির ওপরই তা সফল করার দায়িত্ব চাপাচ্ছে কেন্দ্র। প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় (নগর) আগামী ২০২২ সালের মধ্যে হাউজিং ফর অল অর্থাৎ ‘সকলের জন্য গৃহ’ প্রকল্প প্রসঙ্গে আজ এক সাংবাদিক সম্মেলনে স্পষ্টভাষায় এমনটাই জানালেন কেন্দ্রীয় আবাসনমন্ত্রী বেঙ্কাইয়া নাইডু। বললেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি যা করার করে দিয়েছেন। এবার রাজ্যগুলির কোর্টে বল। তারা যদি ঠিক মতো প্রস্তাব না পাঠায়, তাহলে তার দায় মোটেই কেন্দ্রের নয়।
বেঙ্কাইয়া বলেন, সকলেরই নিজের বাড়ির স্বপ্ন থাকে। আর সেই স্বপ্ন সার্থক করার জন্যই নরেন্দ্র মোদিজির উদ্যোগ। কিন্তু ‘জমি’ রাজ্যের বিষয়। তাই তারা যদি উদ্যোগ না বাড়ায়, তাহলে এই প্রকল্প নিয়ে কেন্দ্রের দিকে আঙুল তোলা যাবে না। রাজ্যগুলিকেই দোষারোপ করতে হবে। কেন্দ্রে ক্ষমতায় আসার পর গত তিন বছরে এই ‘সকলের জন্য গৃহ’ প্রকল্পের রিপোর্ট কার্ড প্রকাশ করতেই এদিন সাংবাদিক সম্মেলন ডাকা হয়।
কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বলেন, মাত্র তিন বছরে আমরা ১৭ লক্ষ ৭৩ হাজার ৫৩৩ টি বাড়ি তৈরির অনুমোদন দিয়েছি। ২৭ হাজার ৮৮৩ কোটি টাকা অনুমোদনও হয়েছে। সরকারি রিপোর্ট অনুযায়ী, পশ্চিমবঙ্গসহ দেশের ১২টি রাজ্য অ্যাফোডেবল হাউজেস বা স্বল্পমূল্যের বাড়ি তৈরির ক্ষেত্রে পারফরমেন্স অপেক্ষাকৃত ভালো। যদিও যে হারে হওয়া উচিত ছিল, তা হয়নি বলেই মন্তব্য করে বেঙ্কাইয়া নাইডু বলেন, আরও বেশি করে রাজ্যগুলি যদি উদ্যোগ না নেয়, তাহলে তাদেরই লোকে সমালোচনা করবে।
সরকারি রিপোর্ট বলছে, পশ্চিমবঙ্গ এখনও পর্যন্ত যে ১ লক্ষ ৪৪ হাজার ৩৬৯ টি বাড়ি তৈরির অনুমোদন পেয়েছে, তার মধ্যে ৫ হাজার ৬৬৫ টির কাজ শেষ করেছে। ৪৫ হাজার ২৬৯টির কাজ শুরু হয়েছে। অন্যদিকে, মোদির রাজ্য গুজরাত ১ লক্ষ ৪৪ হাজার ৬৮৭ টি বাড়ি তৈরির অনুমোদন আদায় করে ২৮ হাজার ৭০ টি সম্পূর্ণ করেছে। ৯২ হাজার ৩৬৭ টির কাজ শুরু হয়েছে। অনুমোদন এবং সম্পূর্ণ করার পরিসংখ্যানে সবার আগে রয়েছে গুজরাত।
প্রশ্ন হল, স্বাধীনতার ৭৫ বছর পূর্তি বর্ষের মধ্যে ভারতীয়দের সবার জন্য গৃহ, নরেন্দ্র মোদির স্বপ্ন পূরণের উদ্যোগ কি নতুন? কারাই বা পেতে পারেন এই স্বল্পমূল্যের বাড়ি? উত্তর হল, প্রকল্পটি নতুন নয়। তবে নতুন নামে, মোড়কে এনেছে মোদি সরকার। আগে যা ছিল জওহরলাল নেহরু ন্যাশনাল আরবান রিনিউয়াল মিশন, এখন পিএমএওয়াই বা প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা (আরবান)।
অন্যদিকে, হাউজিং ফর অল মানে কি বাস্তবিকই প্রত্যেকের জন্য বাড়ি? উত্তর হল, না। পেতে পারেন পরিবারের যেকোনও একজন। পরিবার মানে এক্ষেত্রে স্বামী, স্ত্রী তাদের সন্তান। শর্ত হল, সারা ভারতে যাদের নামে কোথাও কোনও বাড়ি নেই, একমাত্র সেইসব পরিবারই এই সরকারি সুযোগ পাবেন। বাড়ি যে নেই, তার প্রমাণপত্র লাগবে। চার ধরনের উপার্জনকারীরা এই বাড়ি পেতে পারেন। বছরে যাদের উপার্জন যথাক্রমে ৩ লক্ষ, ৬ লক্ষ, ১২ লক্ষ এবং ১৮ লক্ষ টাকা পর্যন্ত, তারা এই সুযোগ পাবেন। এই চার উপার্জনকারী শ্রেণির জন্য ব্যাংক ঋণের ক্ষেত্রে ভরতুকির ব্যবস্থা করে কেন্দ্র বাড়ি তৈরিতে বা বাড়ি কিনতে উৎসাহ দিচ্ছে। বছরে যাদের উপার্জন তিন লক্ষ টাকা পর্যন্ত তারা (ইডব্লুএস) ঋণের ক্ষেত্রে ৬.৫ শতাংশ ছাড় পাবেন। মিলবে ৩০ বর্গ মিটার এলাকার বাড়ি। যাদের উপার্জন ৬ লক্ষ টাকা পর্যন্ত তারা (এমআইজি) পাবেন সাড়ে ৬ শতাংশ হারে সুদ ছাড়। মিলবে ৬০ বর্গ মিটার এলাকার বাড়ি। এমআইজি ওয়ানে যাদের উপার্জন বছরে ১২ লক্ষ টাকা তার ঋণের ক্ষেত্রে ভরতুকি পাবেন ৪ শতাংশ। মিলবে ৯০ বর্গমিটার এলাকার বাড়ি। আর যাদের উপার্জন ১৮ লক্ষ টাকা পর্যন্ত, তারা ঋণে ছাড় পাবেন ৩ শতাংশ। এমআইজি টুতে মিলবে ১১০ বর্গমিটার এলাকার বাড়ি। স্থানীয় পুরসভার মাধ্যমে আবেদন করতে হবে।
উল্লেখযোগ্য বিষয় হল, মোদি সরকারের এই প্রকল্পে দিল্লিতে এ ধরনের বাড়ি তৈরির জন্য কেন্দ্রের কাছে কোনও আবেদনই আসেনি। অথচ দিল্লি যেহেতু কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল, তাই তার জমির অধিকারও কেন্দ্রের। তাহলে সমস্যা কীসের? প্রশ্ন করায় বেঙ্কাইয়া নাইডু বলেন, এটা অরবিন্দ কেজরিওয়াল সরকারকে জিজ্ঞেস করুন। জমি কেন্দ্রের হতে পারে। কিন্তু প্রস্তাব রা঩জ্যের মাধ্যমেই আসতে হবে। তার জন্য কেন্দ্রের সঙ্গে যে ‘মউ’ চুক্তি করতে হয়, আপ সরকার তা করেনি। তাই বাড়ি হচ্ছে না। মোদির ঘোষণা, অথচ তা এগচ্ছে শম্বুকগতিতে। দু’বছর পরেই লোকসভা নির্বাচন। সেই কারণেই এখন রাজ্যের ঘাড়ে দায়িত্ব চাপাচ্ছে কেন্দ্র? উঠছে প্রশ্ন।
21st  April, 2017
মমতার ২ টাকার চালের কথা শুনে মুগ্ধ প্রবাসীরাও
আজ রাষ্ট্রসংঘের মঞ্চে মুখ্যমন্ত্রী

 রূপাঞ্জনা দত্ত, হেগ, ২২ জুন: শুক্রবার রাষ্ট্রসংঘের মঞ্চে বক্তব্য রাখবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বিষয় ‘বাংলার জননীতি’ হলেও, তাতে প্রাধান্য পেতে চলেছে রাজ্যের স্বাস্থ্যব্যবস্থায় বিপ্লব। তাঁর সরকারের উদ্যোগে কীভাবে বিনামূল্যে সকলের কাছে স্বাস্থ্য পরিষেবা পৌঁছে দেওয়া গিয়েছে, ন্যায্যমূল্যের ওষুধের দোকানের মাধ্যমে কম দামে ওষুধ কিনতে পারছেন সাধারণ মানুষ—এসবই আন্তর্জাতিক মঞ্চে তুলে ধরতে চান মুখ্যমন্ত্রী। পাশাপাশি থাকছে কন্যাশ্রীসহ অন্যান্য সামাজিক সুরক্ষা প্রকল্পও। বিশদ

অধিগৃহীত জমিতে বিমানবন্দর নয়, কৃষক-বিক্ষোভে অগ্নিগর্ভ মহারাষ্ট্র, অবরোধ, ভাঙচুর, পুড়ল পুলিশের গাড়ি, জখম ২২

 থানে, ২২ জুন (পিটিআই): একদিকে, অধিগৃহীত জমি ফেরতের দাবিতে কৃষক-বিক্ষোভে রণক্ষেত্র নেভালি। অন্যদিকে, ঋণগ্রস্ত চার কৃষকের আত্মহত্যা নাসিকে। বৃহস্পতিবার দিনভর এই দু’টি ঘটনাকে ঘিরে উত্তাল থাকল মহারাষ্ট্র। কৃষকদের এই দ্বিমুখী ক্ষোভের মুখে প঩ড়ে বেসামাল অবস্থা দেবেন্দ্র ফড়নবিশ সরকারের।
বিশদ

রাষ্ট্রপতি পদে বিরোধী
প্রার্থী মীরা কুমারই

সমৃদ্ধ দত্ত, নয়াদিল্লি, ২২ জুন: বিরোধীদের ১৭টি দলের সর্বসম্মত রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী হলেন মীরা কুমার। অতএব আগামী ১৭ জুলাই রাষ্ট্রপতি পদের জন্য বিহারের দলিত কন্যার সঙ্গে লড়াই হতে চলেছে কানপুরের দলিত সন্তানের। রাজনৈতিক বায়োডেটার প্রেক্ষিতে অবশ্যই বিরোধী প্রার্থী মীরা কুমার তুলনামূলকভাবে অনেক ওজনদার তাঁর প্রতিপক্ষের তুলনায়।
বিশদ

  দেশের স্বার্থে আমাকে ভোট দিন, জনপ্রতিনিধিদের মীরা

 নিজস্ব প্রতিনিধি, নয়াদিল্লি, ২২ জুন: ‘দেশের স্বার্থে আমাকে ভোট দিন। প্রেসিডেন্ট হিসাবে আমাকে নির্বাচিত করুন আদর্শের খাতিরে’। বিরোধী জোটের রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী হিসাবে নাম ঘোষণার পর জনপ্রতিনিধিদের উদ্দেশে এই আরজিই রেখেছেন মীরা কুমার।
বিশদ

পাওয়ার, মায়াবতী মুখে সমর্থন দিলেও জল্পনা যেন থামছে না
মীরাকুমারকে সামনে রেখে ১৭ জুলাই সোনিয়ার প্রেস্টিজের লড়াই

 নিজস্ব প্রতিনিধি, নয়াদিল্লি, ২২ জুন: শারদ পাওয়ার, ময়াবতী মুখে মীরাকুমারকে সমর্থন দিলেও টানাপোড়েন, জল্পনার অন্ত নেই। রাজনীতির এই মহাযুদ্ধে অনেক সময়ই প্রতিশ্রুতির মূল্য থাকে না। পরতে পরতে বদলে যায় রং, প্রেক্ষাপট ও পটভূমি। বিশদ

তামিলনাড়ুর খুদে বিজ্ঞানীর বানানো ৬৪ গ্রামের কালামস্যাট রওনা দিল মহাকাশে

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: সফলভাবে উৎক্ষেপিত হল বিশ্বের সবথেকে ছোট এবং কম ওজনের স্যাটেলাইট। তামিলনাড়ুর পাল্লাপট্টির ১৮ বছরের কিশোর রিফাৎ শারুকের তৈরি এই স্যাটেলাইট গোটা বিশ্ববাসীকে চমকে দিয়েছেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে নাসার ওয়ালপস স্পেস সেন্টার থেকে সাউন্ডিং রকেটে চড়ে মহাকাশে পাড়ি দেয় বিশ্বের ক্ষুদ্রতম স্যাটেলাইট ‘কালামস্যাট’।
বিশদ

  বিরোধীদের আক্রমণের জের, কৃষিঋণ মকুবকে ‘ফ্যাশন’ বলেও পিছু হটলেন বেঙ্কাইয়া

 মুম্বই, ২২ জুন (পিটিআই): বিতর্কে পড়ে কৃষিঋণ মকুবের বিষয়টিকে ‘ফ্যাশন’ বলেও পরক্ষণেই মত পালটালেন কেন্দ্রীয় নগরোন্ননমন্ত্রী বেঙ্কাইয়া নাইডু। বিশদ

রাজস্থানে সরকারি উদ্যোগে বাড়ির দেওয়ালে লিখে বিপিএল হিসাবে চিহ্নিত করা নিয়ে বিতর্ক তুঙ্গে

 জয়পুর, ২২জুন: বাড়ির বাইরের আলাদা করে হলুদ রংয়ের পোঁচ। তার উপর লাল রংয়ে বড় বড় অক্ষরে লেখা, ‘আমরা গরিব। আমরা খাদ্য সুরক্ষা আইনে রেশন পাই।’ শুধু একটি বাড়িতে নয়। দু’টি গ্রামের কয়েক হাজার বাড়িকে এইভাবে গরিব হিসাবে চিহ্নিত করা হয়েছে।
বিশদ

বাড়ি কিনতে পিএফ অ্যাকাউন্ট
থেকে ৯০ শতাংশ পর্যন্ত টাকা
তুলতে পারবেন গ্রাহকরা

 দিব্যেন্দু বিশ্বাস, নয়াদিল্লি, ২২ জুন: এবার থেকে বাড়ি কেনার জন্য নিজেদের প্রভিডেন্ট ফান্ড (পিএফ) অ্যাকাউন্ট থেকে ৯০ শতাংশ পর্যন্ত টাকা তুলতে পারবেন সংশ্লিষ্ট গ্রাহকেরা। শুধু তাই নয়, এখন থেকে এমপ্লয়িজ প্রভিডেন্ট ফান্ডে (ইপিএফ) ন্যূনতম তিন বছর নথিভুক্ত থাকলেই এই টাকা তোলার সুবিধা পাওয়া যাবে।
বিশদ

Pages: 12345




একনজরে
 বিএনএ, বারাসত: কোটি কোটি টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগ উঠল হাবড়ার ‘আবাদ সোনাকানিয়া সমবায় কৃষি উন্নয়ন সমিতি লিমিটেডের’ ম্যানেজার ও ক্যাশিয়ারের বিরুদ্ধে। গ্রাহকদের দাবি, প্রায় চার ...

সংবাদদাতা, ঘাটাল: ঘাটালের সুন্দরপুরে তিনজনকে পুড়িয়ে মারার ঘটনায় অপরাধীদের গ্রেপ্তারের বিষয়ে প্রশাসন কোনওরকম ত্রুটি রাখবে না। বৃহস্পতিবার মৃতদের পরিবারকে সান্ত্বনা দিতে এসে এই আশ্বাস দেন ...

 রাষ্ট্রসংঘ, ২২ জুন (পিটিআই): ‘সন্ত্রাসবাদের বিপুল অর্থ কোথা থেকে আসছে?’ রাষ্ট্রসংঘে পাকিস্তানের নাম না করে এই প্রশ্ন তুললেন ভারতের স্থায়ী প্রতিনিধি সৈয়দ আকবরউদ্দিন। বুধবার রাষ্ট্রসংঘের ...

বিএনএ, শিলিগুড়ি ও সংবাদদাতা দার্জিলিং: রাজ্য সরকার আলোচনার দরজা খুলে দিলেও গোর্খা জনমুক্তি মোর্চা তাদের অবস্থান থেকে সরে আসার কোনও ইঙ্গিত দিল না। বরং তাদের ...


আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

কর্মপ্রার্থীদের বিভিন্ন থেকে শুভ যোগাযোগ ঘটবে। হঠাৎ প্রেমে পড়তে পারেন। কর্মে উন্নতির যোগ। মাঝ মধ্যে ... বিশদ



ইতিহাসে আজকের দিন

 ১৯৪৮: সাহিত্যিক নবারুণ ভট্টাচার্যের জন্ম
 ১৯৫২: অভিনেতা ও রাজনীতিক রাজ বব্বরের জন্ম
 ১৯৫৩: রাজনীতিক শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের মৃত্যু
 ১৯৮০: বিমান দুর্ঘটনায় রাজনীতিক সঞ্জয় গান্ধীর মৃত্যু




ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৩.৭০ টাকা ৬৫.৩৮ টাকা
পাউন্ড ৮০.৪২ টাকা ৮৩.২০ টাকা
ইউরো ৭০.৮৭ টাকা ৭৩.৩৯ টাকা
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ২৯,১২৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ২৭,৬৩০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ২৮,০৪৫ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৩৮,৮০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৩৮,৯০০ টাকা

দিন পঞ্জিকা

৮ আষাঢ়, ২৩ জুন, শুক্রবার, চতুর্দশী দিবা ১১/৫০, রোহিণীনক্ষত্র দিবা ৭/৪৯ পরে মৃগশিরা শেষ রাত্রি ৪/৪৯, সূ উ ৪/৫৭/৬, অ ৬/২০/১২, অমৃতযোগ দিবা ১২/৫-২/৪৫ রাত্রি ৮/২৮ পুনঃ ১২/৪৩-২/৫০ পুনঃ ৩/৩৩-উদয়াবধি, বারবেলা ৮/১৮-১১/৩৯, কালরাত্রি ৯/০-১০/১৯।
 ৮ আষাঢ়, ২৩ জুন, শুক্রবার, চতুর্দশী ১১/১০/৪৪, রোহিণীনক্ষত্র ৭/২৮/৫১, সূ উ ৪/৫৪/৪, অ ৬/২২/১৫, অমৃতযোগ দিবা ১২/৫/১৬-২/৪৬/৫৪, ৮/২৮/৪৮, ১২/৪১/৩১-২/৪৭/৫৩, ৩/৩০/০-৪/৫৪/২১, বারবেলা ৮/১৬/৭-৯/৫৭/৮, কালবেলা ৯/৫৭/৮-১১/৩৮/৯, কালরাত্রি ৯/০/১২-১০/১৯/১১।
২৭ রমজান

ছবি সংবাদ


এই মুহূর্তে
চুঁচুড়া স্টেশনের কাছ থেকে যুবকের দেহ উদ্ধার, তাঁকে পিটিয়ে মারা হয়েছে বলে অভিযোগ মৃতের পরিজনদের
প্রনয় ঘটিত সমস্যা সালিশি সভায় মিটমাট হয়ে যাওয়ার পরও এক যুবককে পিটিয়ে মারার অভিযোগ উঠলো প্রেমিকার পরিবারের বিরুদ্ধে। গতকাল গভীর রাতে ওই যুবকের মৃতদেহ উদ্ধার হয় চুঁচুড়া স্টেশনের কাছে রেল লাইনের ধার থেকে। চুঁচুড়া স্টেশন সংলগ্ন মৌলি পাড়ার বাসিন্দা পেশায় দর্জি ওই যুবকের নাম শ্রীবাস মণ্ডল (১৮)। শ্রীবাস পাড়ারই একটি মেয়ের সঙ্গ প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে বলে জানা গিয়েছে। গতকাল সন্ধ্যায় পাড়াতে সালিশি সভা বসেছিল, স্থানীয় পঞ্চায়েত সদস্যও ছিল সেই সভাতে। সেখানে মিটমাট হওয়ার পরও শ্রীবাসকে মারধর করা হয় বলে তাঁর পরিজনদের অভিযোগ। রাত এগারোটা নাগাদ রেল লাইনের ধারে শ্রীবাসের দেহ পড়ে থাকতে দেখা যায়। আজ সকাল থেকেই ব্যাপক উত্তেজনা রয়েছে ওই এলাকায়|

01:48:00 PM

বাসন্তীতে তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর সংঘর্ষের অভিযোগ, পুড়ল দুটি বাড়ি
ফের তৃণমূলের গোষ্ঠী সংঘর্ষের অভিযোগ। আর তার জেরে আজ সকাল থেকে উত্তপ্ত বাসন্তীর কাঁঠালবেড়িয়ার কলতলা এলাকা। একাধিক বাড়িতে আগুন লাগানো হয়েছে বলে অভিযোগ। এলাকায় চলছে ব্যাপক বোমাবাজি। একাধিক দোকান ও বাইক ভাঙচুর করা হয়েছে। পরিস্থিতি সামাল দিতে অকুস্থলে হাজির রয়েছে পুলিশ বাহিনী। নেতৃত্বে রয়েছেন এলাকার এসডিপিও ক্যানিং ধ্রুব দাস। উদ্ধার হয়েছে প্রচুর তাজা বোমা। ঘটনার প্রতিবাদে বিক্ষোভে নেমেছেন তৃণমূলের মহিলা কর্মীরা। জানা গিয়েছে, এলাকা দখলকে কেন্দ্র করে দীর্ঘদিন ধরে বাসন্তীতে যুব তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি আমানুল্লা লস্কর ও বাসন্তী ব্লক তৃণমূলের আহ্বায়ক আবদুল মান্নান গাজির গোষ্ঠীর সংঘর্ষ লেগেই রয়েছে বলে অভিযোগ। আজ সকাল বেলায় ফের শুরু হয় দুই গোষ্ঠীর মধ্যে কোন্দল। একদল যুব তৃণমূল কর্মী হঠাৎ কলতলা মোড়ে এসে চড়াও হয় অপর কয়েকজন তৃণমূল কর্মীদের উপর। তৃণমূল সংখ্যালঘু সেলের বাসন্তী ব্লক সভাপতি আনসার মল্লিক সহ কয়েকজনকে মারধর করা হয় বলেও অভিযোগ। ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রথমে বচসায় জড়ায় দু’পক্ষ। এরপর একে অপরকে লক্ষ্য করে বোমা ছুঁড়তে শুরু করে। এলাকাবাসীদের অভিযোগ, অন্তত ৭০টি বোমা ছোঁড়া হয়েছে। আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয়েছে অনেকগুলি বাড়িতে। খবর পেয়ে দমকলের একটি ইঞ্জিন গিয়ে আগুন নেভায়। তৃণমূল কর্মী ইয়াকুব মোল্লার বাড়িতেও আগুন লাগানো হয় বলে অভিযোগ। আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয় যুব তৃণমূল কর্মী সিরাজ সর্দারের বাড়িতেও। ঘটনায় একে অপরের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলেছে দুই গোষ্ঠীর লোকজন। গোটা এলাকা এখনও থমথমে। মোতায়েন রয়েছে প্রচুর পুলিশ ।

01:45:34 PM

বর্ধমানে বড়নীলপুরে একটি আবাসিক বিদ্যালয়ে খাদ্য বিষক্রিয়ায় অসুস্থ বেশ কয়েকজন পড়ুয়া, তাদের বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে, উপ-মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক-২ সুনেত্রা মজুমদারের নেতৃত্বে স্কুলে স্বাস্থ্য দপ্তরের টিম

12:52:00 PM

কোচবিহারের সাগরদিঘি চত্বর এলাকার সাইলেন্স জোনে স্বেচ্ছাসেবক পরিষদের মাইক বাজানোকে কেন্দ্র করে গোলমাল, সংঘর্ষ, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে লাঠি চার্জ করে পুলিশ

12:42:00 PM

পাহাড়ে জি টি এ থেকে গণপদত্যাগ পত্র দেওয়া শুরু করলেন মোর্চার সভাসদরা, অ্যাডিশনাল চিফ সেক্রেটারির কাছে পদত্যাগ পত্র পাঠালেন রোশন গিরি

12:40:00 PM

বিহারের দেহরি রেল স্টেশনে লাইনচ্যুত প্যাসেঞ্জার ট্রেনের ইঞ্জিন, হতাহতের কোনও খবর নেই

12:19:00 PM