Bartaman Patrika
বিশেষ নিবন্ধ
 

হৃদয় গিয়েছে চুরি
অতনু বিশ্বাস

ছেলেবেলায় যখন পঞ্চতন্ত্রের সেই কুমির আর বাঁদরের গল্পটা পড়েছিলাম, বেশ অদ্ভুত লেগেছিল। সেই যে, বাঁদরটা থাকত এক জামগাছে, আর বন্ধু কুমিরকে আদর করে জাম খাওয়াত। কুমির সেই জাম নিয়ে তার কুমিরনীকে দিলে, জামের স্বাদে মজে কুমিরনী সেই জাম-খাওয়া বাঁদরের হৃদপিণ্ড খেতে চায়। তারপর কুমির বাঁদরকে ভুলিয়ে ভালিয়ে পিঠে করে নিয়ে রওনা দেয় তার বাসস্থানের দিকে। পথে আবেগের বশে সত্যি কথাটা বলে দিলে বাঁদর বুদ্ধি করে বলে যে সে তার হৃদপিণ্ডটা জামগাছে ফেলে এসেছে। বোকা কুমির বাঁদরকে নিয়ে আসে সেই জামগাছের কাছে, হৃদপিণ্ডের জন্যে।
আচ্ছা, হৃদয়টাকে (হৃদপিণ্ড মানে হৃদয় ধরে নিয়ে) সত্যি সত্যিই কি কোথাও ফেলে আসা যায় না? যদি সত্যিই না যায়, কুমিরটা সেটা বিশ্বাস করল কী করে? উপকথার কুমিররা হয়তো বোকা হয়, তবে তার তথাকথিত বোকামিকে অনেক ক্ষেত্রেই আমার নেহাতই সরলতা বলে মনে হয়েছে। আর এত বড় বয়স্ক একটা কুমির জানে না যে হৃদয়খানা আদপে শরীরেরই এক অচ্ছেদ্য অঙ্গমাত্র! একটু বড় হতে হতে আমার নিজের সে সন্দেহটা কিন্তু দৃঢ় হয়েছে। আমরা আমাদের হৃদয়কে অনেক ক্ষেত্রেই হারিয়ে ফেলি, কখনও বা চুরি হয়ে যায় হৃদয়খানা। ওই কুমিরটার হৃদয়খানার খানিক অংশও নির্ঘাৎ বাঁধা পড়েছিল তার কুমিরনীর কাছে। তাই তো সে কুমিরনীর অন্যায় আবদারে বাঁদরের হৃদয় আনতে ছুটেছিল। আর কুমিরনীর হৃদয়ের একটা টুকরো সেই সুস্বাদু জামের জালে জড়িয়ে গিয়েছিল কি না, তা অবশ্য ভিন্ন প্রসঙ্গ। তবু, হৃদয় চুরি তো হতে পারে নানাভাবেই। কবি যতীন্দ্রমোহন বাগচীর 'জন্মভূমি' কবিতায় যেমন দেখেছি, ‘‘ঐটি আমার গ্রাম—আমার স্বর্গপুরী,/ ঐখানেতে হৃদয় আমার গেছে চুরি!”
হৃদয় চুরির প্রসঙ্গ নিয়ে এত আলোচনা কেন, তা এবার একটু খোলসা করা যাক। নাগপুরের এক পুলিস স্টেশনের এক চমকপ্রদ ঘটনা সর্বভারতীয় খবরে এসেছে সম্প্রতি। এক তরুণ থানায় ঢুকে অভিযোগ জানায় যে তার হৃদয় গিয়েছে চুরি। তার অভিযোগ একটি মেয়ের প্রতি, যে নাকি চুরি করেছে তার হৃদয়খানা। পুলিসের কাছে তার আবেদন, চুরি যাওয়া তার হৃদয়টা খুঁজে দেবার জন্যে। চুরি যাওয়া জিনিসের তালিকা-সহ অনেক অভিযোগ পেয়েছে পুলিসরা। কিন্তু এমন অভিযোগ যে কস্মিনকালেও পায়নি, সে কথা বলাই বাহুল্য। স্বভাবতই নাগপুরের থানার এই পুলিসকর্মীরা যোগাযোগ করে তাদের উপরওয়ালার সঙ্গে। তারপর নিজেদের মধ্যে বিস্তর আলোচনা করে তারা ঠিক করে যে, ভারতের আইনের কোনও ধারাতেই এমন অভিযোগের অবকাশ নেই। তারা তাদের অক্ষমতার কথা জানিয়ে দেয় তরুণটিকে। ব্যস।
ঘটনাটি ছোট্ট। আমি কিন্তু এ বিষয়ে আমার কল্পনা বিলাসিতার লাটাইয়ের সুতো একটু ছাড়তে চাই। বিষয়টি নিয়ে একটু ভেবে দেখা যেতে পারে অবশ্যই। সর্বভারতীয় মিডিয়াতে প্রকাশিত খবর অনুসারে পুলিস জানিয়েছে, এমন অভিযোগের কোন অবকাশ নেই। তাই হৃদয় চুরি যেতে পারে না, এমন কথা কিন্তু বলা হয়নি একবারও।
বলা হবেই-বা কী করে? যুগ যুগ ধরে হৃদয়খানা চুরি গিয়েছে বলেই তো গড়ে উঠেছে মহৎ শিল্প, যুগোত্তীর্ণ সাহিত্য। সামাজিক, অর্থনৈতিক শ্রেণীভেদ না মেনেই। কোনও নগরনটীকে হৃদয় দিয়ে ফেলেন নৃপতি। এক নগণ্য নটীর প্রেমে হাবুডুবু খায় বৌদ্ধ সন্ন্যাসী। চুরি যাওয়া হৃদয়খানার সঙ্গে বিরহের তীর্থগামী ভাষা মিলিয়েই তো গড়ে ওঠে আষাঢ়ের প্রথম দিনের গান! রোমিও-জুলিয়েট, লায়লা-মজনু, সেলিম-আনারকলির গল্প তো ইতিহাস আর ভূগোলের গণ্ডি পার করে ফেলে। তবে কে যে কার হৃদয় চুরি করেছিল—রোমিও জুলিয়েটের, নাকি জুলিয়েট রোমিওর, না দুজনে দুজনের—বলা কঠিন বইকি। প্যারিস আর হেলেনের প্রেম ধ্বংস করে দিল ট্রয়। তার কতটা হৃদয়ের সত্যিকারের চুরি যাওয়া, আর কতটা সেই চুরির বিলাসিতা মাত্র, তা বলা কঠিন। তাজমহল তো সম্রাট কবির হৃদয়ের ছবি বলেই জানিয়েছেন রবি ঠাকুর। সম্রাট তাঁর যে হৃদয়ের ছবিকে অমর করে রাখতে চেয়েছেন, তাকে কি সত্যিই চুরি করতে পেরেছিলেন মমতাজ? দেসদোমিনা কি চুরি করতে পেরেছিল ভেনিসের মুরের হৃদয়?
শাহরুখ খান অভিনীত হিন্দি ছবি ‘অঞ্জাম’-এর কথা মনে পড়তে পারে। তাতে ছিল একটি জনপ্রিয় গান—‘‘বড়ি মুশকিল হ্যায়, খোয়া মেরা দিল হ্যায়...যাকে কঁহা মে রপট লিখাউ কোই বাতলায়ে না!’’ নাগপুরের যুবকটি সেই কাজেই তবে পৌঁছেছে পুলিস স্টেশনে। নাগপুরের এই ছোট্ট ঘটনাটার সূত্র ধরে তবে কি আইন-কানুন বদলাতে হবে? হৃদয় চুরির অভিযোগ পেলেই ‘ধরে আন চোর’ বলে ছুটবে পাইক বরকন্দাজ? আচ্ছা, তাহলে এমন অভিযোগের বন্যা বয়ে যাবে নাতো? সমস্ত পুলিস স্টেশনে। কেউ এসে বলল, পাশের বাড়ির ‘খেঁদি’ তার হৃদয় চুরি করেছে। তাকে হয়তো তখন প্রশ্ন করা হতে পারে, কত শতাংশ হৃদয় চুরি গিয়েছে। হয়তো পুরোটা হৃদয়, হয়তো আধখানা, কখনও-বা এক টুকরো। অভিযোগটা জটিল হয়ে উঠবে যদি হৃদয়ের খানিকটা ‘খেঁদি’, খানিকটা ‘বুঁচকি’, আর কিছুটা ‘সোনা’ চুরি করে নেয়। অভিযোগগুলো উল্টোদিক থেকেও আসতে পারে। ‘খেঁদি’ এসে ‘খোকন’ বা ‘দুলাল’-এর বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ জানাতে পারে। পুলিস স্টেশনগুলিতে কি তবে ঢাকঢোল পিটিয়ে হার্ট ডিপার্টমেন্ট খোলা হবে? তাতে থাকবে বিশেষ ভারপ্রাপ্ত অফিসাররা। হৃদয়ের চুরি এবং চোর ধরায় বিশেষ ট্রেনিং পাওয়া। আচ্ছা, সোশ্যাল মিডিয়ায় অদেখা বন্ধু বা বন্ধুনী হৃদয় চুরি করলে কী হবে, সেটাও ঠিক করতে হবে বইকি। ভার্চুয়াল মাধ্যমে হৃদয় চুরি গেলে সেটা চুরি নয়, তেমনটা তো নয়। (আগেকার যুগ হলে না হয় টেলিফোনের ক্রস কানেকশনের ফলে হৃদয় চুরির বিষয়টাকেও হিসেবে রাখতে হতো।) আবার, এমনটাও তো সম্ভব যে, হৃদয় যে চুরি করেছে সে জানেই না যে সে চোর। কানু যে ঠিক কত গোপিনীর মন চুরি করেছে, কানু নিজেই কি তা জানত? তাই হৃদয় চুরিকে পেনাল কোডে ঢোকাতে গেলে বিস্তর সমস্যা রয়েছে বইকি। তাহলে উপায়? আচ্ছা, পুলিস ফোর্স কি তবে চুরি-ডাকাতি-রাহাজানি, খুন-জখম, রাজনৈতিক ঝগড়া-ঝঞ্ঝাট, ইত্যাদি আইনশৃঙ্খলার অন্যান্য বিষয় না দেখে শেষে মন-দেওয়া-নেওয়ার কীর্তন গাইতে বসবে?
আচ্ছা, তাও নাহয় হল। পুলিস নাহয় শকুন্তলার অভিযোগটা নিল—দুষ্মন্ত তাঁর হৃদয় চুরি করে ফিরে গিয়ে বেমালুম ভুলে গিয়েছে বলে। অর্থাৎ হৃদয় চুরিটা ঠিক অপরাধ নয়, চুরি করে পালানো কিংবা ভুলে যাওয়াটাই কিন্তু এক্ষেত্রে আসল অপরাধ। আপাতদৃষ্টিতে যেমন নাগপুরের যুবকটির অভিযোগ তার হৃদয় চুরি গিয়েছে বলে নয়, চুরি করে চোর পালিয়েছে বলে। কোনও এক দুষ্মন্ত যদি শকুন্তলার হৃদয়খানা চুরি করেই ফেলে, তারপর তাকে তার ক্ষতিপূরণ পেতে কতটা পরিশ্রম করতে হয়, সে গল্প বলতে মহাকবিকে একখানা আস্ত কাব্যই লিখে ফেলতে হল। তাই প্রতিকারটা খুব সহজ হয়তো নয়। পুলিস চোর ধরে আনতে পারলেও ঠিক কী করে চুরি যাওয়া হৃদয়খানা ফেরত দেবার ব্যবস্থা করবে, সেটা সহজবোধ্য নয়।
বিষয়টা মজার হতে পারে। হতে পারে শিল্পীতও। দাঁড়ান, দাঁড়ান, আগে নাহয় দেখা যাক সত্যি সত্যিই হৃদয় চুরি হয়েছে কি না। এত বড় দুনিয়াতে, সহস্র সহস্র বছর ধরে সত্যিকারের হৃদয় চুরির ক’টা ঘটনা ঘটেছে? তাই এই সিদ্ধান্ত করাটাও সহজ নয় নিঃসন্দেহে। দক্ষ হৃদয় বিশেষজ্ঞদের কাজ। এ-কাজ করার জন্যে তৈরি হয়ে যেতে পারে নতুন ধরনের প্রফেশনাল হার্ট স্পেশালিস্টরা। তবে সিদ্ধান্তটা কোনওভাবে ঠিকঠাক নিতে পারলে হয়তো দেখা যাবে যে, অধিকাংশ ক্ষেত্রেই হৃদয় চুরি মরীচিকার মতো ভ্রম মাত্র। তাই পুলিসের এই চুরি যাওয়া হৃদয় খোঁজার কাজটাও কিন্তু হয়ে যেতে পারে বিরল ব্যতিক্রমী কাজ—কোটিতে গুটিক মাত্র।
আচ্ছা, অমিত রায়ের হৃদয় কি লাবণ্য চুরি করেই নিয়েছিল? নাকি অমিত নিজেই উজাড় করে লাবণ্যকে দিতে চেয়েছে নিজের হৃদয় উৎসারিত কথকতা আর কল-কাকলি? লাবণ্যকে হৃদয় দিয়ে অমিতের হৃদয়ের কি সমৃদ্ধি ঘটে না? তার পরিধিও কি ব্যাপ্ত হয় না কুঁজো থেকে দিঘিতে? তবে কিনা অমিতের পরিণতি তো পরিণত রবীন্দ্রনাথের উপলব্ধি। সাধারণ জনতার পক্ষে তার তল খুঁজে পাওয়া দুষ্কর বইকি। গ্রহণ করার সঙ্গে যে ঋণী করে ফেলা যায়, সে তো এক গভীর স্নিগ্ধ অনুভূতি।
ভেবে দেখি যে, হৃদয় চুরি হলে সেটাই কি লাবণ্যে প্রাণের পূর্ণ হয়ে ওঠা নয়? আমার হৃদয়ের এমনকী একটা টুকরোও কেউ চুরি করতে পারলে, সেটা শুধু তার নয়, আমারও যে মহত্তম সাফল্য। নিঃসন্দেহে। চুরি যাওয়া হৃদয়ের টুকরোর সঙ্গে সঙ্গে সে চোরেকে যে অনায়াসে দিয়ে ফেলতে পারি এক পৃথিবী।
 ইন্ডিয়ান স্ট্যাটিস্টিক্যাল ইনস্টিটিউট, কলকাতার রাশিবিজ্ঞানের অধ্যাপক
09th  February, 2019
ডাক্তারবাবুদের গণ-ইস্তফা নজিরবিহীন,
কিন্তু তাতে কি হাসপাতাল সমস্যা মিটবে?

 এ-কথাও তো সত্যি যে, হাসপাতালের পরিকাঠামোগত উন্নয়নে বা ডাক্তারবাবুদের যথাযথ নিরাপত্তা বিধানে তাঁর সদিচ্ছা আছে এবং ইতিমধ্যেই তার যথেষ্ট প্রমাণ মিলেছে। এই অচলাবস্থা কাটাতে প্রবীণদের বৈঠকে ডেকে মুখ্যমন্ত্রী সমাধানসূত্র খুঁজছেন— সেটাও কি ওই সদিচ্ছারই নামান্তর নয়? বিশদ

নরেন্দ্র মোদির মালদ্বীপ সফর এবং ভারত মহাসাগরে ভারতের নতুন রণনীতি
গৌরীশঙ্কর নাগ

 মোদিজির এই দ্বীপপুঞ্জ-সফর কেবলমাত্র হাসি বিনিময় ও করমর্দনের রাজনীতি হবে না, বরং এর প্রধান অ্যাজেন্ডাই হল প্রতিরক্ষা ও নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে মজবুত করা। তবে সেটা করতে গিয়ে ভারত যেন দ্বীপপুঞ্জের অভ্যন্তরীণ রাজনীতিতে অযথা হস্তক্ষেপ না করে বসে। কিন্তু তার অর্থ এই নয় যে, ভারত মালদ্বীপকে সন্ত্রাসবাদের নয়া ‘আঁতুড়ঘর’ হতে দেবে। কারণ ইতিমধ্যেই আমরা দেখেছি পাকিস্তান, আফগানিস্তান এমনকী মধ্যপ্রাচ্য থেকেও জেহাদি নেটওয়ার্কের কারবার মালদ্বীপেও পৌঁছে গিয়েছে। এই র‌্যাডিক্যালিজমের একমাত্র দাওয়াই হল অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও তার সহায়ক শক্তি হিসেবে রাজনৈতিক স্থিরতা।
বিশদ

15th  June, 2019
সতর্কতার সময়
সমৃদ্ধ দত্ত

 ভারতীয় সংস্কৃতির সনাতন ধারাটি হল দিবে আর নিবে, মিলিবে মেলাবে। কিন্তু সেই সংস্কৃতি থেকে আমাদের সরিয়ে এনেছে অসহিষ্ণুতা আর স্বল্পবিদ্যা। আর সবথেকে বেশি জায়গা করে নিয়েছে বিদ্বেষ। রাজনৈতিক প্রতিপক্ষের প্রতি বিদ্বেষ।
বিশদ

14th  June, 2019
ক্ষমতার ‘হিন্দি’ মিডিয়াম
শান্তনু দত্তগুপ্ত

 উত্তর ভারতের সঙ্গে দক্ষিণের সীমারেখা। আর তার কারিগর আমরাই। আমাদের কাছে সাউথ ইন্ডিয়ান মানে মাদ্রাজি। দক্ষিণ ভারতের লোকজন নারকেল তেল খায়, অদ্ভুত ওদের উচ্চারণ, লুঙ্গি পরে বিয়েবাড়ি যায়... হাজারো আলোচনা। উত্তর ভারত মানে বিষম একটা নাক উঁচু ব্যাপার। আর দক্ষিণ মানেই রসিকতার খোরাক। তাই ওদের একটু ‘মানুষ’ করা দরকার। কীভাবে সেটা সম্ভব? হিন্দি শেখাতে হবে। বিশদ

13th  June, 2019
বারুদের স্তূপের উপর পশ্চিমবঙ্গ
হিমাংশু সিংহ

সংসদীয় রাজনীতিতে কিছুই চিরস্থায়ী নয়। কারও মৌরসিপাট্টাই গণতন্ত্রে বেশিদিন টেকে না। সব সাজানো বাগানই একদিন শুকিয়ে যায় কালের নিয়মে। ইতিহাস কয়েক বছর অন্তর ফিরে ফিরে আসে আর ধুরন্ধর শাসককে চরম শিক্ষা দিয়ে তাঁকে, তাঁর ক্ষমতাকে ধুলোয় লুটিয়ে দিয়ে আবার ফকির করে দিয়ে যায়। সব ক্ষমতা এক ভোটে বিলীন। ধূলিসাৎ। আর এখানেই মহান গণতন্ত্রের জিত আর চমৎকারিত্ব। আর সেই দিক দিয়ে ২৩ মে-র ফল এই পশ্চিমবঙ্গের রাজনীতিকেও আবার এক মহান সন্ধিক্ষণের দিকেই যেন ঠেলে দিয়েছে। ‘বিয়াল্লিশে বিয়াল্লিশ’ হয়নি, ‘২০১৯ বিজেপি ফিনিশ’—তাও হয়নি। উল্টে সারাদেশে বিজেপি থ্রি-নট-থ্রি (অর্থাৎ ৩০৩টি) আসন জিতে তাক লাগিয়ে দিয়েছে ভোট-পণ্ডিতদের।
বিশদ

11th  June, 2019
মোদিজি কি ‘সবকা বিশ্বাস’ অর্জন করতে পারবেন?
পি চিদম্বরম

 নরেন্দ্র মোদি এবার যে জনাদেশ পেয়েছেন তা অনস্বীকার্যভাবে বিপুল। যদিও, অতীতে লোকসভা নির্বাচনে একটি পার্টি ৩০৩-এর বেশি আসন জেতার একাধিক দৃষ্টান্ত আছে। যেমন ১৯৮০ সালে ইন্দিরা গান্ধী ৩৫৩ এবং ১৯৮৪ সালে রাজীব গান্ধী ৪১৫ পেয়েছিলেন।
বিশদ

10th  June, 2019
 বিজেপি এ রাজ্যের বিধানসভা ভোটকে
কঠিন চ্যালেঞ্জ মনে করছে কেন?
শুভা দত্ত

 কয়েকদিনের মধ্যে বেশ কয়েকটি মর্মান্তিক খুনের ঘটনা ঘটে গেল রাজ্যের উত্তর থেকে দক্ষিণে। তাই আজও একই প্রসঙ্গ দিয়ে এই নিবন্ধ শুরু করতে হচ্ছে। গত সপ্তাহেই লিখেছিলাম, ভোটফল প্রকাশের পর রাজ্যের বেশ কিছু এলাকায় যেন একটা হিংসার বাতাবরণ তৈরি হয়েছে।
বিশদ

09th  June, 2019
ইচ্ছে-ডানায় নাচের তালে
অতনু বিশ্বাস

এ বছরের সিবিএসই পরীক্ষার ফল বেরতে দেখা গেল, প্রথম হয়েছে দু’টি মেয়ে। একসঙ্গে। ৫০০-র মধ্যে তারা পেয়েছে ৪৯৯ করে। দু’জনেই আবার আর্টসের ছাত্রী। না, পরীক্ষায় আজকাল এত এত নম্বর উঠছে, কিংবা আর্টস বিষয় নিয়েও প্রচুর নম্বর তুলে বোর্ডের পরীক্ষায় র‍্যাঙ্ক করা যায় আজকাল—এগুলোর কোনওটাই আমার আলোচনার বিষয়বস্তু নয়।
বিশদ

08th  June, 2019
ভারতের রাজনীতিতে ‘গেম মেকার’
মৃণালকান্তি দাস

মেধাবী হলেই যে পড়ুয়ার জন্য মোটা বেতনের চাকরি নিশ্চিত, তার কোনও গ্যারান্টি নেই। শুধু প্রতিভা থাকলে আর পরিশ্রমী হলেই হবে না, উপযুক্ত প্রশিক্ষণ এবং ঠিকঠাক ‘গাইড’ না পাওয়ায় পড়ুয়ারা আজ আর সরকারি চাকরির লক্ষ্যভেদ করতে পারেন না।
বিশদ

07th  June, 2019
অবিজেপি ভোটে বাজিমাত
বিজেপির, এবং তারপর...
মেরুনীল দাশগুপ্ত

আলোড়ন! নিঃসন্দেহে একটা জবরদস্ত আলোড়ন উঠেছে। লোকসভা ভোটফল প্রকাশ হওয়া ইস্তক সেই আলোড়নের দাপটে রাজ্য-রাজনীতি থেকে সাধারণের অন্দরমহল জল্পনা-কল্পনা, বিবাদ-বিতর্ক, আশা-আশঙ্কায় যাকে বলে রীতিমতো সরগরম! পথেঘাটে আকাশে বাতাসে যেখানে সেখানে ছিটকে উঠছে উৎকণ্ঠা নানান জিজ্ঞাসা।
বিশদ

06th  June, 2019
কর্ণাটক পুরনির্বাচন: আবার উল্টালো ভোটফল
শুভময় মৈত্র 

নির্বাচনে ভোটফল নিয়ে কখন যে কী ঘটছে তার ব্যাখ্যা পাওয়া যাচ্ছে না মোটেই। মানুষ অবশ্যই মত বদলাবেন। সে স্বাধীনতা তাঁদের আছে। সে জন্যেই তো ভোটফল বদলায়। নাহলে সংসদীয় গণতন্ত্রের কোনও অর্থই থাকে না।  
বিশদ

04th  June, 2019
বাংলায় রামবোকামির মরশুম
হারাধন চৌধুরী 

আমার মামার বাড়ি ভারত-বাংলাদেশের একটি সীমান্ত গ্রামে। বলা বাহুল্য, আমার মায়ের জন্ম দেশভাগের অনেক আগে। স্বভাবতই তাঁর স্মৃতির অনেকখানি জুড়ে ছিল অখণ্ড ভারতীয় গ্রামদেশ ও তার সংস্কৃতি। ১৯৪৭-এ মায়ের শৈশবের গ্রামের উপর দিয়েই ভাগ হয়ে গিয়ে ভারতের ভূগোল এবং ইতিহাস খুলেছিল এক নতুন অধ্যায়। 
বিশদ

04th  June, 2019
একনজরে
 ভদোদরা, ১৫ জুন (পিটিআই): হোটেলের নর্দমা পরিষ্কার করতে গিয়ে বিষাক্ত গ্যাসের কবলে পড়ে গুজরাতে মৃত্যু হল সাতজনের। শনিবার ভোররাতে ফরতিকুল গ্রামের দর্শন হোটেলে ঘটনাটি ঘটেছে। মৃতদের মধ্যে রয়েছে হোটেলের তিনকর্মীও। ...

সংবাদদাতা, বহরমপুর: মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে জুনিয়র ডাক্তারদের কর্মবিরতি ঘিরে রাজনৈতিক ষড়যন্ত্রের গন্ধ পাচ্ছে তৃণমূল। শুক্রবার দুপুরে তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা সভাপতি আবু তাহের খান সাংবাদিক সম্মেলন করে বলেন, আমাদের অনুরোধে বৃহস্পতিবার রাতে জুনিয়র ডাক্তাররা অবস্থান বিক্ষোভ আন্দোলন থেকে সরে দাঁড়ান ...

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: কেষ্টপুরে ট্যাক্সি চালককে চড় মেরে খুন করায় অভিযুক্ত যাত্রী সৌমেন রায়কে শনিবার আদালতে তোলা হলে তাঁকে জেল হেফাজতে পাঠানো হয়েছে বলে পুলিস সূত্রে জানা গিয়েছে। শুক্রবার বিকেলে কেষ্টপুরের রবীন্দ্রপল্লির ওই ঘটনায় বাগুইআটি থানার পুলিস গ্রেপ্তার করে সৌমেনকে। ...

 ম্যাঞ্চেস্টার, ১৫ জুন: ওল্ড ট্রাফোর্ডে শনিবার ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলির সাংবাদিক সম্মেলনে ভিড় উপচে পড়েছিল। উদ্যোক্তারা সবার বসার ব্যবস্থা করে উঠতে পারেননি। এমন দৃশ্যই তো ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

পরীক্ষায় সাফল্য পেতে হলে পরিশ্রমী হতে হবে। কর্মপ্রার্থীদের বেসরকারি ক্ষেত্রে সাফল্যের যোগ আছে। ব্যবসায় যুক্ত ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮৯৬: জাপানে সুনামিতে ২২ হাজার মানুষের মৃত্যু
১৯৫০: শিল্পপতি লক্ষ্মী মিত্তালের জন্ম
১৯৫৩: চীনের প্রেসিডেন্ট জি জিনপিংয়ের জন্ম
১৯৬৯: জার্মানির গোলকিপার অলিভার কানের জন্ম 

15th  June, 2019
ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৮.৭৩ টাকা ৭০.৪২ টাকা
পাউন্ড ৮৬.৫৭ টাকা ৮৯.৭৯ টাকা
ইউরো ৭৬.৯৪ টাকা ৭৯.৯৩ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
15th  June, 2019
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৩, ২০৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩১, ৭৯০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩২, ২৬৫ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৩৭, ১৫০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৩৭, ২৫০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

১ আষা‌ঢ় ১৪২৬, ১৬ জুন ২০১৯, রবিবার, চতুর্দশী ২২/৪৬ দিবা ২/২। অনুরাধা ১২/৫৮ দিবা ১০/৭। সূ উ ৪/৫৫/৪২, অ ৬/১৮/২০, অমৃতযোগ দিবা ৬/৪৩ গতে ৯/২৩ মধ্যে পুনঃ ১২/৩ গতে ২/৪৪ মধ্যে। রাত্রি ৭/৪৩ মধ্যে পুনঃ ১০/৩৩ গতে ১২/৪১ মধ্যে, বারবেলা ৯/৫৬ গতে ১/১৭ মধ্যে, কালরাত্রি ১২/৫৭ গতে ২/১৭ মধ্যে।
৩২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১৬ জুন ২০১৯, রবিবার, চতুর্দশী ২২/২২/৭ দিবা ১/৫২/২২। অনুরাধানক্ষত্র ১৪/৮/৫৬ দিবা ১০/৩৫/৫, সূ উ ৪/৫৫/৩১, অ ৬/২০/৩৫, অমৃতযোগ দিবা ৬/৪৬ গতে ৯/২৬ মধ্যে ও ১২/৭ গতে ২/৪৮ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/৪৭ মধ্যে ও ১০/৩৭ গতে ১২/৪৪ মধ্যে, বারবেলা ৯/৫৭/২৫ গতে ১১/৩৮/৩ মধ্যে, কালবেলা ১১/৩৮/৩ গতে ১/১৮/৪১ মধ্যে, কালরাত্রি ১২/৫৭/২৫ গতে ২/১৬/৪৭ মধ্যে।
 ১২ শওয়াল

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
বিশ্বকাপ: পাকিস্তান ১৬৬/৬ (৩৫ ওভার), বৃষ্টির জন্য আপাতত: বন্ধ খেলা

10:50:00 PM

বিশ্বকাপ: পাকিস্তান ৯৫/১ (২১ ওভার) 

09:43:08 PM

বিশ্বকাপ: পাকিস্তান ৩৮/১ (১০ ওভার) 

08:56:50 PM

জুনিয়র ডাক্তারদের সঙ্গে আগামীকাল ৩টের সময় নবান্নে বৈঠক মুখ্যমন্ত্রীর 
দীর্ঘ টালবাহানার পর অবশেষে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে আলোচনার টেবিলে ...বিশদ

08:23:17 PM

ফিরহাদ হাকিমের নামে ভুয়ো প্রোফাইল, ধৃত যুবক 
মন্ত্রী তথা কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিমের নামে সোশ্যাল মিডিয়াতে ভুয়ো ...বিশদ

07:38:00 PM

বিশ্বকাপ: পাকিস্তানকে ৩৩৭ রানের টার্গেট দিল ভারত 

07:32:44 PM