Bartaman Patrika
বিশেষ নিবন্ধ
 

হৃদয় গিয়েছে চুরি
অতনু বিশ্বাস

ছেলেবেলায় যখন পঞ্চতন্ত্রের সেই কুমির আর বাঁদরের গল্পটা পড়েছিলাম, বেশ অদ্ভুত লেগেছিল। সেই যে, বাঁদরটা থাকত এক জামগাছে, আর বন্ধু কুমিরকে আদর করে জাম খাওয়াত। কুমির সেই জাম নিয়ে তার কুমিরনীকে দিলে, জামের স্বাদে মজে কুমিরনী সেই জাম-খাওয়া বাঁদরের হৃদপিণ্ড খেতে চায়। তারপর কুমির বাঁদরকে ভুলিয়ে ভালিয়ে পিঠে করে নিয়ে রওনা দেয় তার বাসস্থানের দিকে। পথে আবেগের বশে সত্যি কথাটা বলে দিলে বাঁদর বুদ্ধি করে বলে যে সে তার হৃদপিণ্ডটা জামগাছে ফেলে এসেছে। বোকা কুমির বাঁদরকে নিয়ে আসে সেই জামগাছের কাছে, হৃদপিণ্ডের জন্যে।
আচ্ছা, হৃদয়টাকে (হৃদপিণ্ড মানে হৃদয় ধরে নিয়ে) সত্যি সত্যিই কি কোথাও ফেলে আসা যায় না? যদি সত্যিই না যায়, কুমিরটা সেটা বিশ্বাস করল কী করে? উপকথার কুমিররা হয়তো বোকা হয়, তবে তার তথাকথিত বোকামিকে অনেক ক্ষেত্রেই আমার নেহাতই সরলতা বলে মনে হয়েছে। আর এত বড় বয়স্ক একটা কুমির জানে না যে হৃদয়খানা আদপে শরীরেরই এক অচ্ছেদ্য অঙ্গমাত্র! একটু বড় হতে হতে আমার নিজের সে সন্দেহটা কিন্তু দৃঢ় হয়েছে। আমরা আমাদের হৃদয়কে অনেক ক্ষেত্রেই হারিয়ে ফেলি, কখনও বা চুরি হয়ে যায় হৃদয়খানা। ওই কুমিরটার হৃদয়খানার খানিক অংশও নির্ঘাৎ বাঁধা পড়েছিল তার কুমিরনীর কাছে। তাই তো সে কুমিরনীর অন্যায় আবদারে বাঁদরের হৃদয় আনতে ছুটেছিল। আর কুমিরনীর হৃদয়ের একটা টুকরো সেই সুস্বাদু জামের জালে জড়িয়ে গিয়েছিল কি না, তা অবশ্য ভিন্ন প্রসঙ্গ। তবু, হৃদয় চুরি তো হতে পারে নানাভাবেই। কবি যতীন্দ্রমোহন বাগচীর 'জন্মভূমি' কবিতায় যেমন দেখেছি, ‘‘ঐটি আমার গ্রাম—আমার স্বর্গপুরী,/ ঐখানেতে হৃদয় আমার গেছে চুরি!”
হৃদয় চুরির প্রসঙ্গ নিয়ে এত আলোচনা কেন, তা এবার একটু খোলসা করা যাক। নাগপুরের এক পুলিস স্টেশনের এক চমকপ্রদ ঘটনা সর্বভারতীয় খবরে এসেছে সম্প্রতি। এক তরুণ থানায় ঢুকে অভিযোগ জানায় যে তার হৃদয় গিয়েছে চুরি। তার অভিযোগ একটি মেয়ের প্রতি, যে নাকি চুরি করেছে তার হৃদয়খানা। পুলিসের কাছে তার আবেদন, চুরি যাওয়া তার হৃদয়টা খুঁজে দেবার জন্যে। চুরি যাওয়া জিনিসের তালিকা-সহ অনেক অভিযোগ পেয়েছে পুলিসরা। কিন্তু এমন অভিযোগ যে কস্মিনকালেও পায়নি, সে কথা বলাই বাহুল্য। স্বভাবতই নাগপুরের থানার এই পুলিসকর্মীরা যোগাযোগ করে তাদের উপরওয়ালার সঙ্গে। তারপর নিজেদের মধ্যে বিস্তর আলোচনা করে তারা ঠিক করে যে, ভারতের আইনের কোনও ধারাতেই এমন অভিযোগের অবকাশ নেই। তারা তাদের অক্ষমতার কথা জানিয়ে দেয় তরুণটিকে। ব্যস।
ঘটনাটি ছোট্ট। আমি কিন্তু এ বিষয়ে আমার কল্পনা বিলাসিতার লাটাইয়ের সুতো একটু ছাড়তে চাই। বিষয়টি নিয়ে একটু ভেবে দেখা যেতে পারে অবশ্যই। সর্বভারতীয় মিডিয়াতে প্রকাশিত খবর অনুসারে পুলিস জানিয়েছে, এমন অভিযোগের কোন অবকাশ নেই। তাই হৃদয় চুরি যেতে পারে না, এমন কথা কিন্তু বলা হয়নি একবারও।
বলা হবেই-বা কী করে? যুগ যুগ ধরে হৃদয়খানা চুরি গিয়েছে বলেই তো গড়ে উঠেছে মহৎ শিল্প, যুগোত্তীর্ণ সাহিত্য। সামাজিক, অর্থনৈতিক শ্রেণীভেদ না মেনেই। কোনও নগরনটীকে হৃদয় দিয়ে ফেলেন নৃপতি। এক নগণ্য নটীর প্রেমে হাবুডুবু খায় বৌদ্ধ সন্ন্যাসী। চুরি যাওয়া হৃদয়খানার সঙ্গে বিরহের তীর্থগামী ভাষা মিলিয়েই তো গড়ে ওঠে আষাঢ়ের প্রথম দিনের গান! রোমিও-জুলিয়েট, লায়লা-মজনু, সেলিম-আনারকলির গল্প তো ইতিহাস আর ভূগোলের গণ্ডি পার করে ফেলে। তবে কে যে কার হৃদয় চুরি করেছিল—রোমিও জুলিয়েটের, নাকি জুলিয়েট রোমিওর, না দুজনে দুজনের—বলা কঠিন বইকি। প্যারিস আর হেলেনের প্রেম ধ্বংস করে দিল ট্রয়। তার কতটা হৃদয়ের সত্যিকারের চুরি যাওয়া, আর কতটা সেই চুরির বিলাসিতা মাত্র, তা বলা কঠিন। তাজমহল তো সম্রাট কবির হৃদয়ের ছবি বলেই জানিয়েছেন রবি ঠাকুর। সম্রাট তাঁর যে হৃদয়ের ছবিকে অমর করে রাখতে চেয়েছেন, তাকে কি সত্যিই চুরি করতে পেরেছিলেন মমতাজ? দেসদোমিনা কি চুরি করতে পেরেছিল ভেনিসের মুরের হৃদয়?
শাহরুখ খান অভিনীত হিন্দি ছবি ‘অঞ্জাম’-এর কথা মনে পড়তে পারে। তাতে ছিল একটি জনপ্রিয় গান—‘‘বড়ি মুশকিল হ্যায়, খোয়া মেরা দিল হ্যায়...যাকে কঁহা মে রপট লিখাউ কোই বাতলায়ে না!’’ নাগপুরের যুবকটি সেই কাজেই তবে পৌঁছেছে পুলিস স্টেশনে। নাগপুরের এই ছোট্ট ঘটনাটার সূত্র ধরে তবে কি আইন-কানুন বদলাতে হবে? হৃদয় চুরির অভিযোগ পেলেই ‘ধরে আন চোর’ বলে ছুটবে পাইক বরকন্দাজ? আচ্ছা, তাহলে এমন অভিযোগের বন্যা বয়ে যাবে নাতো? সমস্ত পুলিস স্টেশনে। কেউ এসে বলল, পাশের বাড়ির ‘খেঁদি’ তার হৃদয় চুরি করেছে। তাকে হয়তো তখন প্রশ্ন করা হতে পারে, কত শতাংশ হৃদয় চুরি গিয়েছে। হয়তো পুরোটা হৃদয়, হয়তো আধখানা, কখনও-বা এক টুকরো। অভিযোগটা জটিল হয়ে উঠবে যদি হৃদয়ের খানিকটা ‘খেঁদি’, খানিকটা ‘বুঁচকি’, আর কিছুটা ‘সোনা’ চুরি করে নেয়। অভিযোগগুলো উল্টোদিক থেকেও আসতে পারে। ‘খেঁদি’ এসে ‘খোকন’ বা ‘দুলাল’-এর বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ জানাতে পারে। পুলিস স্টেশনগুলিতে কি তবে ঢাকঢোল পিটিয়ে হার্ট ডিপার্টমেন্ট খোলা হবে? তাতে থাকবে বিশেষ ভারপ্রাপ্ত অফিসাররা। হৃদয়ের চুরি এবং চোর ধরায় বিশেষ ট্রেনিং পাওয়া। আচ্ছা, সোশ্যাল মিডিয়ায় অদেখা বন্ধু বা বন্ধুনী হৃদয় চুরি করলে কী হবে, সেটাও ঠিক করতে হবে বইকি। ভার্চুয়াল মাধ্যমে হৃদয় চুরি গেলে সেটা চুরি নয়, তেমনটা তো নয়। (আগেকার যুগ হলে না হয় টেলিফোনের ক্রস কানেকশনের ফলে হৃদয় চুরির বিষয়টাকেও হিসেবে রাখতে হতো।) আবার, এমনটাও তো সম্ভব যে, হৃদয় যে চুরি করেছে সে জানেই না যে সে চোর। কানু যে ঠিক কত গোপিনীর মন চুরি করেছে, কানু নিজেই কি তা জানত? তাই হৃদয় চুরিকে পেনাল কোডে ঢোকাতে গেলে বিস্তর সমস্যা রয়েছে বইকি। তাহলে উপায়? আচ্ছা, পুলিস ফোর্স কি তবে চুরি-ডাকাতি-রাহাজানি, খুন-জখম, রাজনৈতিক ঝগড়া-ঝঞ্ঝাট, ইত্যাদি আইনশৃঙ্খলার অন্যান্য বিষয় না দেখে শেষে মন-দেওয়া-নেওয়ার কীর্তন গাইতে বসবে?
আচ্ছা, তাও নাহয় হল। পুলিস নাহয় শকুন্তলার অভিযোগটা নিল—দুষ্মন্ত তাঁর হৃদয় চুরি করে ফিরে গিয়ে বেমালুম ভুলে গিয়েছে বলে। অর্থাৎ হৃদয় চুরিটা ঠিক অপরাধ নয়, চুরি করে পালানো কিংবা ভুলে যাওয়াটাই কিন্তু এক্ষেত্রে আসল অপরাধ। আপাতদৃষ্টিতে যেমন নাগপুরের যুবকটির অভিযোগ তার হৃদয় চুরি গিয়েছে বলে নয়, চুরি করে চোর পালিয়েছে বলে। কোনও এক দুষ্মন্ত যদি শকুন্তলার হৃদয়খানা চুরি করেই ফেলে, তারপর তাকে তার ক্ষতিপূরণ পেতে কতটা পরিশ্রম করতে হয়, সে গল্প বলতে মহাকবিকে একখানা আস্ত কাব্যই লিখে ফেলতে হল। তাই প্রতিকারটা খুব সহজ হয়তো নয়। পুলিস চোর ধরে আনতে পারলেও ঠিক কী করে চুরি যাওয়া হৃদয়খানা ফেরত দেবার ব্যবস্থা করবে, সেটা সহজবোধ্য নয়।
বিষয়টা মজার হতে পারে। হতে পারে শিল্পীতও। দাঁড়ান, দাঁড়ান, আগে নাহয় দেখা যাক সত্যি সত্যিই হৃদয় চুরি হয়েছে কি না। এত বড় দুনিয়াতে, সহস্র সহস্র বছর ধরে সত্যিকারের হৃদয় চুরির ক’টা ঘটনা ঘটেছে? তাই এই সিদ্ধান্ত করাটাও সহজ নয় নিঃসন্দেহে। দক্ষ হৃদয় বিশেষজ্ঞদের কাজ। এ-কাজ করার জন্যে তৈরি হয়ে যেতে পারে নতুন ধরনের প্রফেশনাল হার্ট স্পেশালিস্টরা। তবে সিদ্ধান্তটা কোনওভাবে ঠিকঠাক নিতে পারলে হয়তো দেখা যাবে যে, অধিকাংশ ক্ষেত্রেই হৃদয় চুরি মরীচিকার মতো ভ্রম মাত্র। তাই পুলিসের এই চুরি যাওয়া হৃদয় খোঁজার কাজটাও কিন্তু হয়ে যেতে পারে বিরল ব্যতিক্রমী কাজ—কোটিতে গুটিক মাত্র।
আচ্ছা, অমিত রায়ের হৃদয় কি লাবণ্য চুরি করেই নিয়েছিল? নাকি অমিত নিজেই উজাড় করে লাবণ্যকে দিতে চেয়েছে নিজের হৃদয় উৎসারিত কথকতা আর কল-কাকলি? লাবণ্যকে হৃদয় দিয়ে অমিতের হৃদয়ের কি সমৃদ্ধি ঘটে না? তার পরিধিও কি ব্যাপ্ত হয় না কুঁজো থেকে দিঘিতে? তবে কিনা অমিতের পরিণতি তো পরিণত রবীন্দ্রনাথের উপলব্ধি। সাধারণ জনতার পক্ষে তার তল খুঁজে পাওয়া দুষ্কর বইকি। গ্রহণ করার সঙ্গে যে ঋণী করে ফেলা যায়, সে তো এক গভীর স্নিগ্ধ অনুভূতি।
ভেবে দেখি যে, হৃদয় চুরি হলে সেটাই কি লাবণ্যে প্রাণের পূর্ণ হয়ে ওঠা নয়? আমার হৃদয়ের এমনকী একটা টুকরোও কেউ চুরি করতে পারলে, সেটা শুধু তার নয়, আমারও যে মহত্তম সাফল্য। নিঃসন্দেহে। চুরি যাওয়া হৃদয়ের টুকরোর সঙ্গে সঙ্গে সে চোরেকে যে অনায়াসে দিয়ে ফেলতে পারি এক পৃথিবী।
 ইন্ডিয়ান স্ট্যাটিস্টিক্যাল ইনস্টিটিউট, কলকাতার রাশিবিজ্ঞানের অধ্যাপক
09th  February, 2019
ভোট চাই, ভোট
মোশারফ হোসেন

দেশজুড়ে লোকসভা ভোটের দামামা বেজে উঠেছে। বিশ্বের বৃহত্তম গণতান্ত্রিক দেশ ভারতে লোকসভা ভোট একটি জাতীয় উৎসবই বলা চলে। কারণ, নানা ভাষা নানা মত নানা পরিধান, হরেকরকম বৈচিত্র্যের মধ্যে অদ্ভুত ঐক্যের আসমুদ্র হিমাচল বিস্তৃত এই দেশে যে কোনও সামাজিক, ধর্মীয় বা অন্য কোনওরকমের উৎসবে কিছু সীমাবদ্ধতা থাকে।
বিশদ

26th  March, 2019
দক্ষ ম‌্যানেজারদের চাই, নিছক চৌকিদারদের নয় 
পি চিদম্বরম

পি চিদম্বরম: চৌকিদার হওয়াটা সম্মানের কাজ যেটা অনেক শতাব্দী ধরে চলে আসছে। চৌকিদার বা ওয়াচম‌্যানদের পাওয়া গিয়েছে সমস্ত গোষ্ঠী-সম্প্রদায় এবং পরিবেশ-পটভূমি থেকে। তাঁরা ছিলেন কিছু ব‌্যক্তি এবং তাঁদের কাজটি ছিল নিয়মমাফিক। আবাসন থেকে বাণিজ‌্য কেন্দ্র প্রভৃতি নানা স্থানে বেসরকারি উদ‌্যোগে নিরাপত্তারক্ষী নিয়োগের একটি সংগঠিত ব‌্যবসার জন্ম দিয়েছে উদারীকরণ নীতি।  বিশদ

25th  March, 2019
 লোকসভা ২০১৯: প্রার্থী বাছতেই
হিমশিম, মমতাকে রুখবেন কীভাবে!
শুভা দত্ত

 দোল শেষ। তবে, রাজ্যজুড়ে রঙের উৎসবের আমেজ এখনও যথেষ্টই রয়েছে। পথেঘাটে মানুষের শরীরে মনে তার ছাপ এখনও স্পষ্ট। এবার দোলে গরম তেমন অসহনীয় ছিল না। বৃষ্টিও হয়নি। বরং, শুক্রবার হোলির বিকেলে কালবৈশাখী এসে যেটুকু ভ্যাপসা গরম জমে ছিল তাও ধুয়েমুছে নিয়ে গেছে।
বিশদ

24th  March, 2019
কংগ্রেস-সিপিএম জোট যেন
সান্ধ্য মেগা সিরিয়াল!
মৃণালকান্তি দাস

শত্রু চিহ্নিত হয়েছিল বছরখানেক আগেই। কেন্দ্রে বিজেপি, রাজ্যে তৃণমূল। সেই শত্রুকে বধ করতে কংগ্রেসের সঙ্গে হাতে হাত ধরে লড়াইয়ের ময়দানে থাকতে হবে, সেই বার্তাও দেওয়া হচ্ছিল বহুদিন ধরে। সূর্যকান্ত মিশ্র থেকে সুজন চক্রবর্তী, অধীর চৌধুরি থেকে আব্দুল মান্নান—যাঁদের জোট চর্চার সঙ্গে শত্রু-বিরোধী গরম গরম ভাষণও শোনা গিয়েছিল অনেক। কিন্তু লোকসভা ভোটের আগেই অশ্বডিম্ব প্রসব করে চূড়ান্ত হাস্যস্পদে পরিণত হয়েছে দুই দল।
বিশদ

24th  March, 2019
ধর্মের বেশে ভোটব্যাঙ্ক!
শান্তনু দত্তগুপ্ত

 

দুপুর গড়িয়ে বিকেলের পথে। তারিখটা ২৭ মে, ১৯৬৪। দিল্লির রাজপথে কালো মাথার ভিড়ে তিল ধারণের জায়গা নেই। আর ভিড়ের বেশিরভাগেরই গতিমুখ তিনমূর্তি ভবনের দিকে। সেখানে শায়িত জওহরলাল নেহরু। শেষযাত্রায় প্রধানমন্ত্রীকে শ্রদ্ধা জানাতে হাজির গ্র্যানভিল অস্টিনও। মার্কিন ছাত্র। থিসিস লিখছেন ভারতের সংবিধানের উপর। তাই আগ্রহটা বাকিদের থেকে একটু বেশিই।  
বিশদ

23rd  March, 2019
পরিবেশ নিরুদ্দেশ 
রঞ্জন সেন

খবরের কাগজে দেখলাম, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি জানিয়েছেন, সন্ত্রাস ও জলবায়ু পরিবর্তন মানব সভ্যতার সামনে বড় বিপদ। বাতাসে কার্বন নিঃসরণ বাড়ে এমন কোনও কাজ তিনি করেন না। কার্বন নিঃসরণের বিপদ সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রীর এমন সতর্কতা খুব ভালো লাগল।  
বিশদ

23rd  March, 2019
এবারের লোকসভা নির্বাচনে বাংলার
বামফ্রন্ট এবং তার প্রার্থীতালিকা
শুভময় মৈত্র

এ দেশে বামপন্থার ইতিহাস আজকের নয়। প্রায় একশো বছর আগে ১৯২৫ সালের বড়দিনের ঠিক পরের তারিখেই কানপুরে কমিউনিস্ট পার্টি অফ ইন্ডিয়ার (সিপিআই) প্রতিষ্ঠা হয়েছিল বলে শোনা যায়। সিপিএমের আবার অন্য তত্ত্বও আছে। তাদের একাংশের মতে ১৯২০ সালের ১৭ অক্টোবর তাসখন্দে ভারতের কমিউনিস্ট পার্টির পথ চলা শুরু।
বিশদ

21st  March, 2019
গত বিধানসভার ফল রাজ্যে এবারের লোকসভার ভোটে কী ইঙ্গিত রাখছে?
বিশ্বনাথ চক্রবর্তী
 

২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে বেশ কয়েক মাস ধরে চলছে জনমত সমীক্ষার কাজ। ভারতের মতো বৃহৎ গণতান্ত্রিক দেশে যেখানে ৯০ কোটি ভোটার রয়েছেন সেখানে এই বিপুল সংখ্যক মানুষের মনের খোঁজ পাওয়া সমীক্ষকদের পক্ষে কতটুকু সম্ভব তা নিয়ে বিস্তর বিতর্ক রয়েছে—বিশেষ করে ৯০ কোটি ভোটার যেখানে জাত, ধর্ম, অঞ্চলে বিভক্ত।  
বিশদ

19th  March, 2019
মোদিজির বালাকোট স্বপ্ন 

পি চিদম্বরম: গত ১০ মার্চ, রবিবার নির্বাচন কমিশন রণতূর্য বাজিয়ে দিল। সরকারকে শেষবারের মতো ‘ফেভার’ও করল তারা। নির্বাচন ঘোষণাটিকে সাধারণ মানুষ মুক্তির শ্বাসের মতো গ্রহণ করল: আর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের ঘটা নেই, আর অর্ডিন‌্যান্স নেই এবং নেই কিছু নড়বড়ে সরকারি স্কিমের বেপরোয়া সূচনা।  বিশদ

18th  March, 2019
আধাসেনা নামিয়ে কি ভোটযুদ্ধে
মমতাকে ঘায়েল করা যাবে?

শুভা দত্ত 

রাজ্যে ভোটের হাওয়া গরম হচ্ছে। জেলায় জেলায় শাসক এবং বিরোধী—দুই শিবিরের প্রচারও একটু একটু করে গতি পাচ্ছে। মন্দিরে পুজো দিয়ে প্রার্থীদের অনেকেই নেমে পড়েছেন জনসংযোগে। দেওয়াল লেখাও চলছে জোরকদমে। ভোটপ্রার্থীদের সমর্থনে পোস্টার ব্যানার দলীয় পতাকাও দেখা দিতে শুরু করেছে চারপাশে।  
বিশদ

17th  March, 2019
তীব্র জলসঙ্কট হয় মানুষের কারণে
খেসারত দিতে হবে মানুষকেই 
মৃন্ময় চন্দ

নদী বিক্রি? আজব কথা, তাও কি হয় সত্যি? ছত্তিশগড় তখনও নয় স্বয়ংসম্পূর্ণ রাজ্য, কুলকুল করে বয়ে চলেছে ‘শেওনাথ’ নদী। ১৯৯৮ সালে মধ্যপ্রদেশ সরকার ২৩ কিমি দীর্ঘ ‘শেওনাথ’ নদীটিকে ৩০ বছরের লিজে হস্তান্তর করল স্থানীয় এক ব্যবসায়ীর কাছে।  বিশদ

16th  March, 2019
সংরক্ষণের রাজনীতি, রাজনীতির সংরক্ষণ 
রঞ্জন সেন

আগে ব্যাপারটা বেশ সহজ ছিল, সিপিএম, সিপিআই মানেই শ্রমিক-কৃষক- মধ্যবিত্তদের দল, কংগ্রেস উচ্চবিত্তদের দল, বিজেপি অবাঙালি ব্যবসায়ী শ্রেণীর দল। এই সরল শ্রেণীবিভাগ এখন অচল। বাম আমলে আমরা দেখেছি, টাটাদের মতো শিল্পপতিরাও বামেদের বেশ বন্ধু হয়ে গেছেন।   বিশদ

16th  March, 2019
একনজরে
বিএনএ, চুঁচুড়া: সরকারের কৃষিনীতির প্রতিবাদ এবং কৃষি কমিশনের সুপারিশ অনুযায়ী কৃষিতে উৎপাদিত ফসল উপযুক্ত দামে সরকারিভাবে কেনার দাবিতে মঙ্গলবার পাণ্ডুয়ার বৈঁচি ও বলাগড়ের মহিপালপুরে রাস্তা অবরোধ করল সারা ভারত কিষাণ মহাসভা (এআইকেএম)। ...

 সৌম্যজিৎ সাহা, কলকাতা: যোগ্যতামান বৃদ্ধির পরীক্ষায় দ্বিতীয় সুযোগে অবশেষে উত্তীর্ণ হলেন কয়েক হাজার কর্মরত শিক্ষক। ফলে স্বস্তি পেলেন সেই সব শিক্ষক যাঁদের উচ্চ মাধ্যমিকে ৫০ শতাংশ নম্বর ছিল না। ন্যাশনাল কাউন্সিল ফর টিচার এডুকেশন (এনসিটিই)-এর নিয়ম অনুযায়ী, প্রত্যেক কর্মরত প্রাথমিক ...

 মায়ামি, ২৬ মার্চ: জীবনের ১০১টি খেতাব জয়ের সামনে দাঁড়িয়ে রজার ফেডেরারের সামনে এখন বড় বাধা রাশিয়ার ড্যানিল মেদভেদেভ। মায়ামি ওপেনে ত্রয়োদশ বাছাই মেদভেদেভ ভালো ফর্মে রয়েছেন। ...

সংবাদদাতা, কালীগঞ্জ: গত দু’বারের সংসদ সদস্য কাজের চেয়ে বিতর্কে জড়িয়েছিলেন বেশি। তাঁকে সেভাবে পাননি এলাকার মানুষ। এবার তাই কৃষ্ণনগরের তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী মহুয়া মৈত্রর কাছে প্রত্যাশা অনেক বেশি নাকাশিপাড়া, কালীগঞ্জ ও পলাশিপাড়ার মানুষের। লোকসভা নির্বাচনের প্রার্থী ঘোষণা হওয়ার পর থেকে ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

বিদ্যার্থীদের মানসিক স্থিরতা রাখা দরকার। প্রেম-প্রণয়ে বাধাবিঘ্ন থাকবে। তবে নতুন বন্ধু লাভ হবে। সাবধানে পদক্ষেপ ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

বিশ্ব থিয়েটার দিবস
১৮৪৫- এক্স-রশ্মির আবিষ্কারক ইউলিয়াম রন্টজেনের জন্ম
১৮৯৮- লেখক ও দার্শনিক সৈয়দ আহমেদ খানের মৃত্যু
১৯৬৮- বিমান দুর্ঘটনায় মৃত্যু রুশ মহাকাশচারী ইউরি গ্যাগ্যারিনের 

ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৮.০৮ টাকা ৬৯.৭৭ টাকা
পাউন্ড ৮৯.৩৬ টাকা ৯২.৬২ টাকা
ইউরো ৭৬.৫৯ টাকা ৭৯.৫৪ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩২,৫৭০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩০,৯০০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩১,৩৬৫ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৩৮,২৫০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৩৮,৩৫০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

১২ চৈত্র ১৪২৫, ২৭ মার্চ ২০১৯, বুধবার, সপ্তমী ৩৮/১২ রাত্রি ৮/৫৫। জ্যেষ্ঠা ৬/৪১ দিবা ৮/১৯। সূ উ ৫/৩৮/২৯, অ ৫/৪৬/১, অমৃতযোগ দিবা ৭/১৩ মধ্যে পুনঃ ৯/৪০ গতে ১১/১৭ মধ্যে পুনঃ ৩/২০ গতে ৪/৫৭ মধ্যে। রাত্রি ৬/৩৩ গতে ৮/৫৬ মধ্যে পুনঃ ১/৩৯ গতে উদয়াবধি, বারবেলা ৮/৪০ গতে ১০/১১ মধ্যে পুনঃ ১১/৪২ গতে ১/১৩ মধ্যে, কালরাত্রি ২/৩৯ গতে ৪/৮ মধ্যে।
১২ চৈত্র ১৪২৫, ২৭ মার্চ ২০১৯, বুধবার, সপ্তমী রাত্রি ১২/৩৪/১৩। জ্যেষ্ঠানক্ষত্র ১২/৮/৫৮, সূ উ ৫/৩৮/৪৪, অ ৫/৪৫/২৪, অমৃতযোগ দিবা ৭/১৫/৩৭ মধ্যে ও ৯/৪০/৫৭ থেকে ১১/১৭/৫১ মধ্যে ও ৩/২০/৪ থেকে ৪/৫৬/৫৭ মধ্যে এবং রাত্রি ৬/৩২/৫৭ থেকে ৮/৫৫/৩৭ মধ্যে ও ১/৪০/৫৭ থেকে ৫/৩৭/৪৬ মধ্যে, বারবেলা ১১/৪২/৪ থেকে ১/১২/৫৪ মধ্যে, কালবেলা ৮/৪০/২৪ থেকে ১০/১১/১৪ মধ্যে, কালরাত্রি ২/৪০/২৪ থেকে ৪/৯/৩৪ মধ্যে।
১৯ রজব

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
সিএসকে-কে ১৪৮ রানের টার্গেট দিল দিল্লি ক্যাপিটালস 

26-03-2019 - 09:43:23 PM

দিল্লি ক্যাপিটালস ১১৮/২ (১৫ ওভার) 

26-03-2019 - 09:15:06 PM

দিল্লি ক্যাপিটালস ৬৫/১ (১০ ওভার) 

26-03-2019 - 08:51:51 PM

দিল্লি ক্যাপিটালস ৩৮/১ (৫ ওভার) 

26-03-2019 - 08:28:45 PM

সিএসকের বিরুদ্ধে টসে জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত দিল্লি ক্যাপিটালসের 

26-03-2019 - 07:36:48 PM

ফের অনুব্রত মণ্ডলকে শোকজ কমিশনের 
আবারও বীরভূমের দাপুটে তৃণমূল নেতা অনুব্রত মণ্ডলকে শোকজ করল নির্বাচন ...বিশদ

26-03-2019 - 07:01:32 PM