বিশেষ নিবন্ধ
 

যোগদিবস: ভারতের লক্ষ্মীলাভের মস্ত সুযোগ
হরলাল চক্রবর্তী

২০১৫ সাল থেকে বিশ্বজুড়ে ২১ জুন মহা ধুমধামে ‘বিশ্ব-যোগদিবস’ পালিত হচ্ছে। সারা বিশ্বের প্রায় ২০০টি দেশ যোগদিবসের স্বীকৃতি দিয়েছে, ১৮০টি দেশ যোগে অংশগ্রহণ করেছে, এর মধ্যে কিছু ইসলামিক দেশও আছে। আশা করা যায়, এ বছর তা আরও বেশি সাফল্য পাবে।
যোগাসন ভারতের পরম্পরা, হাজার হাজার বছর ধরে ভারতের মুনি-ঋষিরা এর চর্চা করেছেন, যোগাসনের উন্নতি সাধন করেছেন, নীরোগ থেকে শতবর্ষ আয়ু পেয়েছেন। উল্লেখ্য, দেবাদিদেব ‘মহাযোগী মহেশ্বর’ আমাদের এ দেশের আরাধ্য দেবতা।
যোগাসনে যে শুধু শরীর এবং মন নীরোগ রাখে তা-ই নয়, চারিত্রিক শুচিতা, চারিত্রিক দৃঢ়তা, শরীর নীরোগ, স্মরণশক্তি এবং কর্মপটুত্ব বাড়াতেও এর জুড়ি নেই। আজ আমাদের দেশের শহরগুলিতে জলাশয় বন্ধ করে, গাছপালা কেটে, কংক্রিটের জঙ্গল তৈরি হয়েছে, খেলার মাঠ দখল হয়ে আবাসন প্রকল্প হয়েছে, পাড়ায় শিশুদের খেলাধুলার আর জায়গা নেই, তার স্থান করে নিয়েছে কম্পিউটার গেম। শরীর চর্চার সুযোগ অনেক কমে গিয়েছে। বিভিন্ন জায়গায় মাল্টিজিম শরীর চর্চায় সহায়তা করছে, কিন্তু তা অধিকাংশের কাছেই অধরা আর তা মেধার উন্নতি, মানসিক বিকাশ এবং চারিত্রিক উন্নতির হয়তো তেমন সহায়ক নয়, খেলাধুলার বিকল্পও নয়। তাই একেবারে প্রাথমিক বিদ্যালয় স্তর থেকেই ইচ্ছুক শিক্ষার্থীদের জন্য যোগ ব্যায়ামের সুযোগ থাকা উচিত।
গত দু’বছর ধরে ভারতে প্রতিটি রাজ্যের জনগণ ‘বিশ্ব-যোগদিবসে’ যোগাসনে অংশগ্রহণ করছেন এবং তাদের সংখ্যা দু’কোটিরও বেশি, আর প্রধানমন্ত্রী নিজে এবং বহু রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীও জনগণের মধ্যে যোগাসনে অংশগ্রহণ করে জনগণকে উৎসাহিত করেছেন। আমাদের দক্ষিণ কলকাতায় বাবা রামদেবের নিজের হাতে শিক্ষণপ্রাপ্ত মণিরঞ্জন চট্টোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে পতঞ্জলি যোগপীঠের ৩০টি যোগাসন কেন্দ্র আছে। ওখানে বিদ্যুৎ এবং পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা বাবদ মাসে মাত্র ১০ টাকা দিতে হয়, শিক্ষকরা কোনও পয়সা নেন না। ওখানে দেখেছি বহু লোক, বিশেষত মহিলা, প্রায় চলচ্ছক্তিহীন অবস্থায় যোগাসন শুরু করে আজ প্রায় স্বাভাবিকভাবে চলাফেরা করছেন। বিভিন্ন অসুখের জন্য তাঁদের ওষুধ খাবার পরিমাণও অনেক কমে গিয়েছে। দেশজুড়ে সবাই যদি যোগাসন আর নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষা করতে পারতেন তাহলে সবাই যথেষ্ট সুস্থ থাকতেন, হাসপাতালের ভিড় কম হত; অবশ্য লক্ষ কোটি টাকার চিকিৎসা এবং ওষুধের ব্যাবসা মারাত্মকভাবে মার খেত।
একটা ব্যাপার লক্ষণীয়, এই যোগা সেন্টারগুলিতে কিন্তু বয়স্কদেরই ভিড়, তাঁরা শেষ জীবনে নানান অসুখ-বিসুখে ভুগে প্রায় চলচ্ছক্তিহীন হয়ে তা থেকে উদ্ধার পেতে যোগাসনের আশ্রয় নিয়েছেন। অল্পবয়সিরা, শিশুরা এতে যোগদান করলেও কয়েকদিন পরেই আর তাদের দেখা মেলে না। এর কারণ অনুধাবন করা দরকার। অল্পবয়সি এবং শিশুদের জন্য আলাদাভাবে শিক্ষার ব্যবস্থা করা উচিত। প্রাণ-ভরপুর শিশুদের শরীর এবং মন সদা চঞ্চল; তারা এক জায়গায় বেশি সময় স্থির থাকতে পারে না। তাদের জন্য যোগার ক্লাসের সময় হতে হবে অনেক কম, যোগার সঙ্গে খেলাকেও মিলিয়ে দিতে হবে যাতে তাদের কাছে তা উপভোগ্য হয়। আজকের পরিবেশ দূষণের জন্য শিশুদের জন্য যোগা-চর্চা একান্ত জরুরি হয়ে পড়েছে। যোগা পরিচালকবর্গের অবিলম্বে শিশুদের জন্য বিশেষ আকর্ষণীয় প্যাকেজ তৈরি করে শিশুদের যোগশিক্ষার ব্যবস্থা করা উচিত।
আজ প্রধানমন্ত্রীর প্রচেষ্টায় বিশ্ব-যোগাদিবস নিয়ে উদ্দীপনার ফলে সারা বিশ্ব ভারতীয় যোগার উপকারিতা সম্পর্কে অবগত হয়েছে; বিভিন্ন দেশে ভারত থেকে যোগা বিশেষজ্ঞরা গিয়ে যোগদিবসের যোগাসন পরিচালনা করেছেন, তাঁদের প্রয়াস প্রশংসিত হয়েছে।
কোনও কোনও রাজনৈতিক নেতার চোখে যোগা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর এই মাতামাতি অর্থহীন। তাঁদের মতে, আমাদের প্রধান সমস্যা হল খাদ্য, বস্ত্র, বাসস্থান, কর্মসংস্থান— তাই সরকারের শুধু এইসব সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করা উচিত। ওই রাজনীতিবিদরা কিন্তু যোগা নিয়ে বিশ্বজুড়ে এই মাতামাতির সু-স্বাস্থ্যের দিক এবং ব্যাবসায়িক দিকটা এড়িয়ে গিয়েছেন। যোগা ভারতবর্ষের মুনি-ঋষিদের হাজার হাজার বছর ধরে চর্চার অবদান, ভারতের অমূল্য সম্পদ। প্রধানমন্ত্রী সারা বিশ্বকে ভারতবর্ষের এই যোগা-সম্পদ সম্পর্কে অবহিত করে সারা বিশ্বে যোগা চর্চার দ্বার উদ্ঘাটন করে দিয়েছেন। ফলে আজ ভারতের জন্য অভাবনীয় ‘যোগা-ট্যুরিজমে’র দ্বার উদ্ঘাটিত হয়ে গিয়েছে। কল্পনা করুন, সারা বিশ্বের জনসংখ্যার ভগ্নাংশও যদি ‘যোগার’ মাধ্যমে সুস্থ থাকতে চান তাহলে তাঁদের প্রশিক্ষণের জন্য কত লক্ষ যোগা-শিক্ষকের দরকার হবে, কত লক্ষ যোগা-ম্যাট লাগবে, যোগা ট্যুরিজমের জন্য থাকা-খাওয়ার কী বিপুল কর্মকাণ্ডের দরকার হবে, দেশে ফেরার পথে তাঁরা এদেশ থেকে কী বিপুল পরিমাণ মার্কেটিং করে নিয়ে যাবেন আর তার ফলে কী বিপুল পণ্যের চাহিদা তৈরি হবে, তাতে কত কর্মসংস্থান হবে!
আজ অবিলম্বে সারা দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের লোকদের যোগের প্রশিক্ষণ দিয়ে অসংখ্য যোগা-শিক্ষক তৈরি করা দরকার, আর দরকার ওই সব অঞ্চলে পেয়িং-গেস্ট ট্যুরিজমের ব্যবস্থা করা যাতে প্রত্যন্ত অঞ্চলের স্থানীয় লোকেরাই উপকৃত হন। সমস্ত রাজ্য সরকারের উচিত এই পেয়িং-গেস্ট হাউসগুলির ডিজাইন এবং নর্ম তৈরি করা, ট্যুরিজমের জন্য, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নভাবে খাদ্য পরিবেশন করার জন্য স্থানীয় লোকদের প্রশিক্ষণ দেওয়া। সারা দেশজুড়ে যে হাজার হাজার যোগা সেন্টার আছে তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করে প্রশিক্ষকদের নথিভুক্ত করা। পর্যটকরা ‘যোগা-ট্যুরিজমে’র জন্য পেয়িং-গেস্ট হিসাবে এখানে এসে যোগ শিক্ষা করে ভারত ভ্রমণ করে তাঁদের দেশে ফিরে যাবেন, সুস্থ জীবনযাপন করবেন। একবার কল্পনা করা যাক, বিদেশিরা দমদম বিমান বন্দরে এসে নামলেন। সেখান থেকে চলে গেলেন নামখানা, থাকলেন কোনও গ্রামে পেয়িং-গেস্ট হিসাবে। সেখানে তাঁরা ট্রেনারের সাহচর্যে সকালে যোগা করে সুন্দরবন ভ্রমণে বের হলেন। সুন্দরবন ভ্রমণের সময় প্রতিদিন লঞ্চেই যোগা শিক্ষকদের তত্ত্বাবধানে যোগা সারলেন। এরপর নৌকা ভ্রমণের মাধ্যমে বিভিন্ন জায়গায় দর্শনীয় স্থানগুলি দেখা আর শপিং, আর প্রতিদিন সকাল-সন্ধ্যায় যোগা করতে করতে নবদ্বীপ, মুর্শিদাবাদ, মালদহ, শিলিগুড়ি, দার্জিলিং হয়ে ফেরার পথে একইভাবে অন্যান্য দর্শনীয় স্থানগুলি দেখলেন, যোগা করলেন এবং ফিরে এলেন দমদম। এরপর হয়তো বা তাঁরা ভারত ভ্রমণ করবেন। এই ভ্রমণ তাঁদের সারা জীবন মনে থাকবে।
রাজ্য সরকারগুলির উচিত এই ব্যাপারে প্রকল্প তৈরি করে মন্ত্রী এবং সরকারি আধিকারিকদের বিবৃতির মাধ্যমে ব্যাপক প্রচার করা এবং পরীক্ষামূলকভাবে প্রকল্প শুরু করা এবং ধীরে ধীরে প্রকল্পের ফাইন টিউন করা।
১৯৯০-এর দশকে আমাদের অফিসের এক সেমিনারে আইআইএম কলকাতার ডিরেক্টর বলেছিলেন, প্রতি বিদেশি পর্যটকপিছু নাকি প্রায় ৪টি কর্ম-দিবস তৈরি হয়! তাছাড়া আমাদের দেশীয় বহু পর্যটকও এতে অংশগ্রহণ করবেন। ফলে লক্ষ লক্ষ স্থানীয় লোকের কর্মসংস্থান হতে পারবে এবং এর জন্য কোনও রকম জমি অধিগ্রহণ দরকার হবে না, পেয়িং-গেস্ট ট্যুরিজমের জন্য তেমন বিশাল মূলধনও লাগবে না, আর পতঞ্জলি যোগপীঠের কল্যাণে এই দেশে যোগা শিক্ষকেরও অভাব হবে না। পর্যটক আসায় এই দেশের বিক্রিবাটাও বহুগুণ বাড়বে। এখন দেখার, উপযুক্ত বিজ্ঞাপন এবং মানব-সম্পদ উন্নয়নের মাধ্যমে এই বিশাল ‘যোগা-ট্যুরিজম’ সাম্রাজ্যের কতটা কোন রাজ্য অধিকার করতে পারে।


 লেখক দুর্গাপুর স্টিল প্ল্যান্টের (সেইল)  প্রাক্তন চিফ ইঞ্জিনিয়ার (প্রজেক্ট)
20th  June, 2017
রাজ্যের উদ্বেগজনক বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে কেন্দ্র এত উদাসীন কেন?
শুভা দত্ত

 ‘কেন্দ্রের বিমাতৃসুলভ আচরণ’ বলে একটা কথা একসময় খুব শোনা যেত। ইন্দিরা গান্ধীর আমলে তো বটেই, তার পরে তাঁর পুত্র রাজীব গান্ধী বা তাঁর পরের প্রধানমন্ত্রীদের আমলেও এ রাজ্যে ওই ‘বিমাতৃসুলভ আচরণ’ নিয়ে রাজনৈতিক হইচই যথেষ্ট হয়েছে।
বিশদ

আহা, সেই নতুন ভারত ভয়মুক্ত হোক
সৌম্য বন্দ্যোপাধ্যায়

 স্বাধীনতা দিবসে লাল কেল্লা থেকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির চতুর্থ ভাষণ বেশ মন দিয়েই শুনলাম। স্বচ্ছ ভারত, স্মার্ট সিটি, মেক ইন ইন্ডিয়া, স্টার্ট আপ ইন্ডিয়া, জন ধন প্রকল্প, নমামি গঙ্গে, বেটি বাঁচাও বেটি পড়াও, ডিজিটাল ইন্ডিয়া, কংগ্রেস মুক্ত ভারত, কালো টাকা ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে কোমর-কষা লড়াই ইত্যাদি ইত্যাদি প্রতিজ্ঞা ও স্বপ্নের জাল গত চারটি ভাষণে শোনানোর পর সেদিন তিনি ‘নিউ ইন্ডিয়া’ বা নতুন ভারত গড়ার কথা শোনালেন।
বিশদ

সফলতা বনাম সফলতা
অভিজিৎ তরফদার

 সংবাদপত্রের প্রথম পাতা আলো করে কোন ব্যক্তিরা শোভা পান? তাঁরা জনপ্রতিনিধি। তাঁরা দেশের আইনও প্রণয়ন করেন। দুর্জনে বলে তাঁদের এক চতুর্থাংশ বা তারও বেশিজনের নামে ফৌজদারি মামলা আছে। খুন-ধর্ষণ-ডাকাতি ইত্যাদি ভয়ানক সব অভিযোগে তাঁরা অভিযুক্ত। কিন্তু আমরা, আম জনতা, তাঁদের ফুল্লবিকশিত মুখশোভা সংবাদপত্রে দেখতেই অভ্যস্ত হয়ে গিয়েছি।
বিশদ

19th  August, 2017
ভারত চীন যুদ্ধ হলে চীন পরাজিত হবে
প্রশান্ত দাস

 সারা ভারতজুড়ে এখন একটাই আলোচনা ঝড় তুলেছে—ডোকালাম নিয়ে চীন ভারতকে আক্রমণ করবে কি? চীন অনবরত ভারতকে চমকে চলেছে। মার্কিন প্রতিরক্ষা বিভাগের মুখপত্র গ্যারিরস বলেছেন—কোনও দেশ যেন নিজেকে সর্বশক্তিমান না ভাবে। চীন এবং ভারত মুখোমুখি আলোচনায় বসে ব্যাপারটি মিটিয়ে নেয়।
বিশদ

19th  August, 2017
শুধুই প্রচার, রেজাল্ট কই!
সমৃদ্ধ দত্ত

 গোরখপুর থেকে ৪৩ কিলোমিটার দূরের জৈনপুর গ্রামের লক্ষ্মী আর শৈলেন্দ্র তিন সপ্তাহ বয়সি মেয়ের মৃতদেহ নিয়ে অনেক দেরি করে বাড়িতে ফিরতে পেরেছিল। গোরখপুরের হাসপাতালে অক্সিজেনের অভাবে শ্বাসরুদ্ধ হয়ে মেয়ে মারা যাওয়ার পর হাসপাতালের বাবুদের কাছে বারংবার ধমক খেতে হয়েছে তাঁদের।
বিশদ

18th  August, 2017
 কেন্দ্রের দায়িত্বজ্ঞানহীন আচরণেই মেডিকেল ভরতিতে রাজ্যের ছাত্রছাত্রীরা বঞ্চনার শিকার
গৌতম পাল

 নিট পরীক্ষার দায়িত্ব সিবিএসই-কে দিয়ে কেন্দ্রীয় সরকার ক্ষমতাকে কেন্দ্রীভূত করেছে। নিট পরীক্ষায় যাঁরা বিষয় বিশেষজ্ঞ হিসাবে সাহায্য করেছেন তাঁরা অধিকাংশই দিল্লির কলেজ বা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, এবং বেশিরভাগই কেন্দ্রীয় সরকার পরিচালনাকারী একটি বড় রাজনৈতিক দলের সদস্য বা কাছের মানুষ। অথচ পশ্চিমবাংলার বা অন্যান্য রাজ্যের খ্যাতনামা যে সকল অধ্যাপক অত্যন্ত দক্ষতা এবং স্বচ্ছতার সঙ্গে রাজ্যের প্রবেশিকা পরীক্ষায় এ যাবৎ সাহায্য করে এসেছেন, সিবিএসই কিন্তু তাঁদেরকে নিটের সঙ্গে অন্তর্ভুক্ত করেনি, বা এই সম্পর্কে রাজ্যের কোনও মতামতও নেয়নি। অনেকেই বলছেন রাজ্যের পাঠ্যক্রম সংশোধন করে নিটের সমমানের করলেই রাজ্যের ছেলে-মেয়েরা নিটে ভালো র‌্যাংক করবে।
বিশদ

17th  August, 2017
স্বাধীনতার ৭০ বছর, নেতাতন্ত্র বনাম গণতন্ত্র?
হিমাংশু সিংহ

বিয়াল্লিশের ভারত ছাড়ো আন্দোলন আমি দেখিনি। ৪৭-এর ঐতিহাসিক স্বাধীনতা লাভের মুহূর্তে মধ্যরাতের জওহরলাল নেহরুর সেই ঐতিহাসিক ভাষণ চাক্ষুষ করার সুযোগও হয়নি। হওয়ার কথাও নয়, কারণ ওই ঘটনার প্রায় দু’দশক পর আমার জন্ম। সেদিনের কথা বইয়ে, ইতিহাসের পাতায় পড়েছি মাত্র।
বিশদ

15th  August, 2017
গভীর রাতের নাটক শেষে স্যালুট
সৌম্য বন্দ্যোপাধ্যায়

জেতা ম্যাচ কী করে হারতে হয়, এই নির্বাচন তার একটা বড় উদাহরণ হয়ে থাকবে। হারতে হারতে জিতে গিয়েছেন আহমেদ প্যাটেল। এই দুর্দিনে তাঁর জয় কংগ্রেসের মরা গাঙে বান হয়তো ডেকে আনবে না, তবে মনোবল সামান্য হলেও বাড়াবে। সোনিয়া গান্ধীর দলের এই দুর্দিনে এটাই বা কম কী? তবে আহমেদ প্যাটেল নন, অমিত শাহও নন, শেষ বিচারে আসল জয়ী নির্বাচন কমিশন। ভারতীয় গণতন্ত্রের সৌন্দর্য এটাই। ওই গভীর রাতে নির্বাচন কমিশনকেই তাই স্যালুট জানিয়েছি।
বিশদ

13th  August, 2017
স্বাধীনতা দিবসের প্রাক্কালে: কিছু প্রশ্ন
শুভা দত্ত

শুধু ভারত ছাড়ো কেন? রামনবমী রাখিবন্ধন পুজোপাঠ স্বাধীনতা দিবস প্রজাতন্ত্র—সবকিছুতেই এখন এত বেশি বেশি রাজনৈতিক দখলদারি শুরু হয়েছে যে, সাধারণ মানুষের পক্ষে উৎসবের মেজাজ ধরে রাখাই মুশকিল হচ্ছে। রাজনীতি ছাড়া যেন কিছু হতেই পারে না!
বিশদ

13th  August, 2017



একনজরে
 মস্কো, ১৯ আগস্ট (এএফপি): রাশিয়ার রাস্তায় ছুরি নিয়ে হামলা চালাল অজ্ঞাতপরিচয় এক আততায়ী। পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, শনিবার সকাল ১১টা নাগাদ রাশিয়ার সুরগুট শহরে ঘটনাটি ঘটে। ...

সংবাদদাতা, আলিপুরদুয়ার: প্রতারণা চক্রের জালে পড়ে শুক্রবার বিকালে শামুকতলা থানার ব্রজেরকুঠি গ্রামের এক যুবক প্রতারিত হলেন। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রতারিত যুবক তরুণকান্তি দাস ওই চক্রের দেওয়া ব্যাংক অ্যাকাউন্টে টাকা জমা দিয়ে প্রতারিত হন। ...

ডাম্বুলা, ১৯ আগস্ট: হোয়াইটওয়াশের নেশায় বুঁদ হয়ে আছেন বিরাট কোহলিরা। টেস্ট সিরিজে শ্রীলঙ্কাকে ৩-০ ব্যবধানে চুরমার করার পর দারুণ চনমনে ‘টিম ইন্ডিয়া’। এক দিনের ...

 মুম্বই, ১৯ আগস্ট (পিটিআই): রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের অনাদায়ী ঋণের পরিমাণ বাড়ছে। ঋণগ্রহীতা সংস্থাগুলির থেকে সেই বকেয়া ঋণ আদায়ে নয়া আইন এনেছে কেন্দ্রীয় সরকার। যার নাম ‘ইনসলভেন্সি অ্যান্ড ব্যাংকরাপ্সি কোড’ (আইবিসি)। ...


আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

কর্মপ্রার্থীদের কর্মপ্রাপ্তি বিলম্ব হবে। ব্যাবসা সংক্রান্ত কাজে যুক্ত হলে ফল শুভ হবে। উপার্জন একই থাকবে। ... বিশদ



ইতিহাসে আজকের দিন

বিশ্ব মশা দিবস
১৮২৮: ব্রাহ্মসমাজ প্রতিষ্ঠা করলেন রাজা রামমোহন রায়
১৮৬৪: লেখক রামেন্দ্রসুন্দর ত্রিবেদির জন্ম
১৮৯৬: ফুটবলার গোষ্ঠ পালের জন্ম
১৯০৬: প্রথম ভারতীয় র্যাংেলার আনন্দমোহন বসুর মৃত্যু
১৯৪৪: ভারতের সপ্তম প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধীর জন্ম
১৯৮৬: গীতিকার গৌরীপ্রসন্ন মজুমদারের মৃত্যু


ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৩.৩৫ টাকা ৬৫.০৩ টাকা
পাউন্ড ৮১.২৫ টাকা ৮৪.২১ টাকা
ইউরো ৭৩.৯৬ টাকা ৭৬.৫৭ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
19th  August, 2017
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) 29465
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) 27955
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) 28375
রূপার বাট (প্রতি কেজি) 39100
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) 39200
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

৩ ভাদ্র, ২০ আগস্ট, রবিবার, চতুদর্শী রাত্রি ২/১০, পুষ্যানক্ষত্র অপঃ ৫/২২, সূ উ ৫/১৮/৫৪, অ ৬/১/১৬, অমৃতযোগ দিবা ৬/৯-৯/৩৩ রাত্রি ৭/৩২-৯/২, বারবেলা ১০/৫-১/১৫, কালরাত্রি ১/৫-২/৩০।
৩ ভাদ্র, ২০ আগস্ট, রবিবার, চতুদর্শী রাত্রি ৫/৫১/৫৬, পুষ্যানক্ষত্র সন্ধ্যা ৫/৫৬/৪৩, সূ উ ৫/১৬/২৯, অ ৬/৩/৯, অমৃতযোগ দিবা ৬/৬/৩৬-৯/৩১/২ রাত্রি ৭/৩২/৫৬-৯/২/৪২, বারবেলা ১০/৩/৫৯-১১/৩৯/৪৯, কালবেলা ১১/৩৯/৪৯-১/১৫/৩৯, কালরাত্রি ১/৩/৫৯-২/২৮/৯।
 ২৭ জেল্কদ

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
কালিম্পংয়ে সোশ্যাল ফরেস্ট বাংলো জ্বালিয়ে দিল দুষ্কৃতীরা 

12:11:00 AM

কালিম্পঙে আরও একটি বিস্ফোরণ: সূত্র 

12:06:34 AM

কালিম্পঙে বিস্ফোরণের ঘটনায় ১ সিভিক ভলান্টিয়ারের মৃত‍্যু 

19-08-2017 - 11:43:11 PM

কালিম্পং থানায় বিস্ফোরণ, জখম ২ 
২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে ফের বিস্ফোরণে কাঁপল পাহাড়। এদিন রাতে কালিম্পংয়ে বাদামতামের কাছে থানায় বিস্ফোরণ হয়। ঘটনায় পুলিশের এক হোমগার্ড ও এক সিভিক ভলান্টিয়ার জখম হয়েছেন। 

19-08-2017 - 10:44:00 PM

ট্রেন দুর্ঘটনা: মৃত বেড়ে ২৩, জখম বহু

19-08-2017 - 09:33:00 PM

ট্রেন দুর্ঘটনায় হতাহতদের জন্য আর্থিক সাহায্যের ঘোষণা রেলের 
উত্তরপ্রদেশের মুজফফরনগরে ট্রেন দুর্ঘটনায় হতাহতদের আর্থিক সাহায্যের ঘোষণা রেলমন্ত্রী সুরেশ প্রভুর। তিনি জানিয়েছেন, মৃতদের পরিবার পিছু সাড়ে ৩ লক্ষ টাকা করে দেওয়া হবে। গুরুতর জখমরা পাবেন ৫০ হাজার টাকা করে। যাঁদের আঘাত অপেক্ষাকৃত কম গুরুতর তাঁদের ২৫ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে। 

19-08-2017 - 08:41:54 PM