Bartaman Patrika
আমরা মেয়েরা
 

 কাশ্মীরের শুকিয়ে যাওয়া চোখের জল

কাশ্মীর নিয়ে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক মহল এখন সরগরম। ৩৭০ ধারা তুলে দিয়ে রাজ্যটাকে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল করে দেওয়ার পক্ষে এবং বিপক্ষে বিতর্কের ঝড় উঠেছে। আর তারই মাঝে কত কাশ্মীরি কন্যার চোখের জল শুকিয়ে যেতে বসেছে। এমনই দুই মেয়ের কথায় শুভঙ্কর মুখোপাধ্যায়।

এই কাশ্মীর উপত্যকা ‘আমার দেশ’ নয়!
কারণ এই ‘কাশ্মীর’-এর জন্যই বুক জুড়ে হা হা শূন্যতা নিয়ে মাটির ঘরের দাওয়ায় বসে আছেন হাকিমন বিবি। দিন যায়, রাত যায়। খাওয়া নেই, দুই চোখে তাঁর ঘুম নেই। এই বুঝি বাপ-বেটা এল, এসেই তো বলবে, ‘খিদে পেয়েছে, খেতে দাও’! আর তখন অড়িঘড়ি তৈরি করতে হবে পছন্দসই জলখাবার। এই নিয়েই ভাবনা চলছে হাকিমনের মনে। সাকিন কালিয়াচক গ্রাম, জেলা মালদা। হাকিমনের বর সুলেমান আর ছেলে সুভান গুলমার্গের আপেল বাগানে কাজ করেন। হঠাৎ তাঁদের আর কোনও খোঁজখবর নেই। ডাকপিওনের ঝুলিতে কোনও চিঠি নেই হাকিমনের জন্য। যাযাবর-এর ‘ঝিলম নদীর তীরে’ ইদের চাঁদ ঢেকে গেছে কার্ফুর কালো মেঘে!
এই কাশ্মীরের জন্যই দুই চোখ ভরা কয়েক পশলা বৃষ্টি নিয়ে, জানালার গরাদ ধরে পথপানে চেয়ে আছে সাত বছরের রুক্সানা, ঠিকানা বারামুল্লা। দিন নেই, রাত নেই, তার ছোট্ট হাতের মুঠিতে একটা ফোন ধরে রেখেছে সে। ফোন বাজলেই সে বলবে, ‘বাবা, তুমি কোথায়’! রুক্সানার বাবা আহমেদ বসে আছেন কলকাতায়, তাঁর নিউ মার্কেটের দোকানে। তাঁর আর কাশ্মীর যাওয়া হবে কি না, কে জানে! একটা অজানা ভয় পেয়ে বসেছে আহমেদকে। কাশ্মীরের সৌন্দর্যকে ছাপিয়ে যাচ্ছে লোকের চোখের ভয় মিশ্রিত চাউনি আর আর্ত কণ্ঠস্বর।
এ কেমন কাশ্মীর! কোথাও টেলিফোনের রিনঝিন নেই। ‘আপনি যেখানে ফোন করেছেন, সেই কাশ্মীরটাই এখন পরিষেবার বাইরে। অনুগ্রহ করে কয়েকদিন বাদে ফোন করুন’! কাশ্মীরের ডাকঘরগুলো এখন যেন মর্গ! কত মায়ের চিঠি, কত প্রেমের চিঠি এখন পোস্টবক্সে থমকে থাকা ‘ডেড লেটার’! অন্তরজাল ছিঁড়ে গিয়েছে। কাশ্মীরের সব কম্পিউটার এখন ‘হ্যাংড টু ডেথ’! যেন ‘Y2K’-এর পুনর্জন্ম হয়েছে! বাজার ব্যাঙ্ক বন্ধ। সব জনপদ জনমানবহীন। কাশ্মীরে প্রবেশ প্রস্থান নিষিদ্ধ।
তা অচানক কেন এমন হল কাশ্মীরের! রাজা জানেন ‘গোপন কম্মটি’! প্রজারা জানে না। কাশ্মীর জানিল না কী বা অপরাধ তাঁর, বিচার হইয়া গেল। রাজা ভাবছেন, বারে বা, কাশ্মীর নিয়ে কিছু করতে হলে সেটা কাশ্মীরিদের জানাতেই হবে, তাদের মত নিয়েই করতে হবে, তার কী মানে আছে! স্বাধীন দেশে প্রজারা যেমন স্বাধীন, রাজাও তেমনি স্বাধীন! কাজেই রাজা মনের সুখে যা খুশি করতেই পারেন। তাছাড়া আহামরি তো কিছু করা হয়নি কাশ্মীরে। শুধু একটা ৩৭০ ধারা তুলে নেওয়া হয়েছে, একটা রাজ্যকে ভেঙে দু’টো কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল করা হয়েছে, আর ওই ভূখণ্ডে খানিক সেনা লেলিয়ে দেওয়া হয়েছে।
আর এ সবের বিনিময়ে, আদতে দুই খণ্ড করে দেওয়া হলেও কাশ্মীর নাকি ‘অখণ্ড’ হয়েছে! এবং, কাশ্মীর ‘স্বাধীন’ হয়েছে! কেন, সে স্বাধীন ছিল না! না, ছিল না, কাশ্মীর পরাধীন ছিল স্বাধীন সার্বভৌম গণতান্ত্রিক ভারতের পবিত্র সংবিধানের অধীনে। কোনও আপত্তি আছে! কি জানি বাবা, যে দেশের স্বাধীনতা এক ‘বাহাত্তুরে বুড়ো’, সে দেশের ‘জনগনমন অধিনায়ক’ কাশ্মীরের কপালে কী লটকে দিলেন কে জানে! আমাদের প্রাচ্যের সেই ‘একুশে কন্যা’ মালালা ইউসুফজাই শুধু একবারটি বলেছে, ‘খুব দুশ্চিন্তা হচ্ছে কাশ্মীরের জন্য, বিশেষ করে সেখানের মহিলা আর শিশুদের জন্য’। অমনি তাঁর দিকে রে রে করে তেড়ে গেছে রাজার স্বেচ্ছাসেবকরা, ছোট মুখে কেমন বড় কথা দেখো! বলি, কাশ্মীর কি তোমার ‘বাপের বাড়ি’, যে তার লাগি নাকিকান্না কাঁদছো! মালালার পক্ষে ওদেরকে বোঝানো অসম্ভব যে, যে দেশে মেয়েরা কাঁদে, সেথায় আর যাই থাকুক, শান্তি থাকে না। কাশ্মীরেও নেই। কাশ্মীর এখন ‘এক বিন্দু নয়নের জল, কালের কপোলতলে’!
এই স্বাধীনতা চেয়েছিল কাশ্মীর? এই অখণ্ডতা চেয়েছিল সে? মোটেই না। কিন্তু কোনও প্রশ্ন করা যাবে না। প্রশ্ন করা যাবে না যে, দেশের আরও ১১টা রাজ্যেও তো ৩৭০ ছিল, তাহলে কাশ্মীর কেন শুধু ‘নন্দ ঘোষ’! প্রশ্ন করা যাবে না যে, দেশের আরও কত রাজ্যে তো জঙ্গিপনা আছে। তারা রইল যার যার মতো সন্ত্রাস আর আতঙ্ক নিয়ে, শুধু কাশ্মীর হয়ে গেল ‘কেন্দ্রশাসিত’! কেন? প্রশ্ন করা যাবে না যে, দেশের এত রাজ্যে তো কত শত ‘শাস্তিযোগ্য’ প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী গায়ে হাওয়া লাগিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। তাহলে শুধু কাশ্মীরের দুই প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীকে কেন রাতারাতি আটক করা হল? কাশ্মীর নিয়ে মালালার দুশ্চিন্তা যদি ‘নাকিকান্না’ হয়, তাহলে কাশ্মীর নিয়ে কেন্দ্রের বেলেল্লাপনা কি গণতন্ত্রে ‘নাক গলানো’ নয়? প্রশ্ন করা যাবে না। কারণ, প্রশ্নহীন আনুগত্যের এই অপসংস্কৃতির একটা নিষ্ঠুর নেতিবাচক নাম আছে, ফ্যাসিবাদ।
সংগঠিত স্বৈরতন্ত্রের এই প্রাতিষ্ঠানিক ব্যবস্থায় ‘রাজা যত বলে পারিষদ দলে বলে তার দশ গুণ’! তারা বলবে, দেখো, এক ঝটকায় কাশ্মীর কেমন শান্তটি হয়ে গেছে! শান্তই বটে! হ্রদচারী নৌকোবাড়িগুলো কেমন খাঁ খাঁ করছে। বুলেটের ভয়ে অর্কিডের ডালে ডালে পাখিরা আর বসছে না। নীল আকাশে ভাসছে না সাদা মেঘ, যেন সেখানে থমকে আছে ১৪৪ ধারা। পশমের আদর পেতে মিনাবাজারের শালের দোকানে হামলে পড়ছে না পর্যটকের দল। গুলমার্গের গোলাপ বাগিচায় ফুলের গন্ধ নেই, সেখানে বাতাসে ভাসছে বারুদের আঁশটে ঘ্রাণ। পহেলগাঁওয়ের নয়নাভিরাম সরোবরের পাম্পোশে (পদ্মফুল) চোখের জলবিন্দু হয়ে টলমল করছে পাহাড়িয়া বারিশ! জাতীয় সড়ক দিয়ে যাওয়ার সময় গাড়ি থেকে নেমে কচিকাঁচারা আর অনন্তনাগের বনতলে মনের আনন্দে আপেল কুড়োচ্ছে না। সেলুলয়েডের ক্যামেরার সামনে দুধসাদা বরফের ঢালে আর ফুটে উঠছে না স্বর্গকাননের সেই ‘কাশ্মীর কি কলি’।
এই ‘শান্তি’ চেয়েছিল কাশ্মীর? আলবাৎ না। কাশ্মীরের ইতিহাস আসলে এক রূপকথা। একের পর এক হ্রদের জল শুকিয়ে গিয়ে বিকশিত হয়েছিল কাশ্মীর উপত্যকা। কাশ্মীরি ইতিহাসবিদ কলহন ‘রাজতরঙ্গিনী’-তে লিখেছেন, সংস্কৃতে ‘কাশ্মীর’ শব্দের অর্থ হল ‘শুকিয়ে যাওয়া জল’! কী আশ্চর্য মিল! আজকের ‘কাশ্মীর’ মানেও তো হাকিমন আর রুক্সানার ‘শুকিয়ে যাওয়া চোখের জল’!
24th  August, 2019
মহাষ্টমী পুজো

 মহাষ্টমী পুজোর দিন সকালে পুরোহিত আচমন করে মায়ের পুজো শুরু করেন। আসনশুদ্ধি, ভূতশুদ্ধি, মাতৃকান্যাস, প্রাণায়াম, পীঠন্যাস সমাপ্ত করে মাকে দন্তকাষ্ঠ নিবেদন করেন। তারপর শুরু হয় মায়ের মহাস্নান।
বিশদ

21st  September, 2019
মহাপূজার আঙিনায়
বলিদান

 মহাপূজার অন্যতম অঙ্গ বলিদান। বলি শব্দের অর্থ উপহার। দেবীভাগবতের মতে, একমাত্র দেবী পূজাতেই বলিদান সম্মত। অন্যত্র নয়। কারণ ব্রহ্মবিদ্যাস্বরূপিণী দেবী আমাদের স্বরূপনিরোধক এই ঘোর জীববুদ্ধি নাশ করে ব্রহ্মকারা বৃত্তিতে প্রকাশমান হন। তাই মহাদেবী বলিপ্রিয়া।
বিশদ

21st  September, 2019
সেকাল একালের
আগমনী আড্ডা

দুর্গা পুজো মানেই নতুন পোশাক, খাওয়া-দাওয়া, রাত জেগে ঠাকুর দেখা আর নির্ভেজাল আড্ডা। আড্ডা পরিকল্পনাও থাকে নানারকম। আড্ডাবাজ বাঙালির আড্ডার আসর বসে পাড়ার পুজো, বাড়ির পুজো, বা আবাসনের পুজোমণ্ডপে। নব্য প্রজন্মের কেউ বা পছন্দ করে ঘুরে বেড়িয়ে আড্ডা দিতে। বিশদ

21st  September, 2019
মহিলা মৃৎশিল্পী
ঠাকুর গড়েন চায়না পাল

 ছোটবেলায় আঁকতে ভীষণ ভালোবাসতেন চায়না। পেন বা পেন্সিল দিয়ে পাতার পর পাতা ঠাকুর দেবতার ছবি আঁকতেন তিনি। টানা টানা চোখওয়ালা সাবেকি ঠাকুরের মুখ ভরে যেত তাঁর খাতার পাতায়। বাবা যখন ঠাকুর গড়তেন সেটাও হাঁ করে দেখতেন চায়না। বিশদ

21st  September, 2019
উৎসবের ভোজ, ভোজের উৎসব 

ভোরের প্রথম আলোয় শিউলি ফুলের মন মাতানো মিষ্টি গন্ধই শুধু নয়, ভোরের বাতাসেও অকারণ পুলকের স্পন্দন। পাড়ায় পাড়ায় বাঁশ আর কাপড়ের স্তূপ। যেন উৎসবের আর উৎসাহের জোয়ার। মায়ের আগমনী বার্তা বয়ে নিয়ে আসে এইসব খুঁটিনাটির অনুষঙ্গগুলো।   বিশদ

14th  September, 2019
মহিলা মৃৎশিল্পী 

সুস্মিতা রুদ্রপাল মিত্র: এক দশক মানে প্রায় বারো বছর হয়ে গেল সুস্মিতা রুদ্রপাল মিত্র প্রতিমা তৈরি করা শুরু করেছেন। সুস্মিতার বেড়ে ওঠা কুমোরটুলির এক মৃৎশিল্পীর পরিবারে। বাড়িতে বাবা-দাদাদের কাজ দেখতে দেখতে বড় হয়েছেন সুস্মিতা।  বিশদ

14th  September, 2019
মহাসপ্তমী পুজোর রীতি ও আচার 

দুর্গাপুজোর মহাসপ্তমী। এই দিন প্রথমে গৃহকর্তা পুরোহিতকে কাপড় ও নানা দ্রব্য দিয়ে বরণ করে নেবেন। তারপর নবপত্রিকা স্নান। গঙ্গা বা কোনও জলাশয়ে নবপত্রিকাকে স্নান করিয়ে নতুন কাপড় পরিয়ে যথাযথ মন্ত্র উচ্চারণ করে দুর্গামণ্ডপে প্রতিষ্ঠা করা হয়।   বিশদ

14th  September, 2019
মহাপূজার আঙিনায় 

মহাস্নানের পর আরম্ভ হয় দেবীর পুজো। আরাধনার প্রথম ধাপ সুস্থ দেহ ও স্থির মন। সর্বাগ্রে এটি করা প্রয়োজন, না করলে দেবতার অধিষ্ঠান হতে পারে না। শ্রীরামকৃষ্ণদেব বলতেন, ‘প্রতিমায় আবির্ভাব হতে গেলে তিনটি জিনিসের দরকার— প্রথম পূজারীর ভক্তি, দ্বিতীয় প্রতিমার সৌন্দর্য, তৃতীয় গৃহস্বামীর ভক্তি।’  বিশদ

14th  September, 2019
 শহর জুড়ে আজ পুজোর মরশুম

নরম শিউলি ফুলের মতো মিষ্টি রোদ ছেয়ে আছে শহর জুড়ে। চাঁদার বই হাতে উদ্যোক্তাদের ইতিউতি উপস্থিতি, বেমক্কা জ্যাম, শপিং মল থেকে ফুটপাতে উপচানো ভিড় দেখেই অনুমান করা যায় শহর জুড়ে আজ পুজোর মরশুম। উচ্ছ্বাসে মেতে ওঠা শহরবাসী এখন কেনাকাটা করেন চুটিয়ে।
বিশদ

07th  September, 2019
 বোধনে মহাষষ্ঠী

মহাষষ্ঠীতে হয় মা দুর্গার বোধন। সকালবেলায় তিথি দেখে ষষ্ঠীপুজো হয়ে থাকলেও তিথি অনুযায়ী সন্ধেবেলায় বিল্ববৃক্ষতলে হয় দেবীর বোধন। তখন শুদ্ধাচারে, শুদ্ধাসনে, শুদ্ধবস্ত্র পরিধান করে স্বস্তিবাচন ও পাপাপনোদন করেন পুরোহিত। তিনি ঊর্ধ্ব, অধঃ পার্শ্বদ্বয় ভালো করে দেখেন ও শান্ত চিত্তে কুশ, তিল, ফল, পুষ্প দিয়ে জলপূর্ণ তাম্রপাত্র গ্রহণ করেন।
বিশদ

07th  September, 2019
মহিলা মৃৎশিল্পী কাকলি পাল

দু’ হাজার তিন সাল। কালীপুজোর ঠিক আগের ঘটনা। মৃৎশিল্পী কাকলি পালের স্বামী ঠাকুর তৈরির বায়না নিয়ে আসার পরের পরের দিন হঠাৎ ব্রেন স্ট্রোকে মারা যান। তখন কাকলির বড় মেয়ের বয়স সাত এবং ছোট মেয়ের এক। দুটো মেয়েকে নিয়ে কাকলি অথৈ জলে পড়েছিল।
বিশদ

07th  September, 2019
মহাপূজার আঙিনায়

মা আনন্দময়ীর আগমন। বর্ষে বর্ষে আসেন তিনি। আমাদের ঘরে-বাইরে তাঁর ছড়ানো সংসারে। শারদীয়া দেবীর আবির্ভাবের মধ্য দিয়েই জাতির আত্মশক্তির উদ্বোধন। ব্রত-পার্বণ উৎসবময় ভাবালোকে মাতৃমূর্তির এই আবির্ভাব।   বিশদ

07th  September, 2019
 ঋণ নিয়ে রোজগেরে মেয়েরা

গ্রামের মহিলাদের ঋণ দিয়ে রোজগেরে করে তুলছে ভিলেজ ফিনানসিয়াল সার্ভিস। কীভাবে এই পথে ঋণ নিয়ে রোজগেরে হয়ে ওঠা যায় তারই উপায় জানালেন সংস্থার কর্ণধার। প্রতিবেদনে কমলিনী চক্রবর্তী।
বিশদ

31st  August, 2019
কুড়ির তারুণ্যে ভরা ল্যা ক মে

পাঁচদিনের ‘ল্যাকমে ফ্যাশন উইক উইন্টার-ফেস্টিভ ২০১৯’-র এবারের আসরও ছিল জমজমাট। এবছর কুড়িতে পা দিল ল্যাকমে ফ্যাশন উইক। কুড়ির অভিজ্ঞতা গায়ে মেখে তারুণ্যে ভরা ল্যাকমের আসর থেকে নতুন নতুন ফ্যাশনধারার সন্ধান দিলেন আমাদের মুম্বই প্রতিনিধি দেবারতি ভট্টাচার্য।
বিশদ

31st  August, 2019
একনজরে
বিএনএ, রায়গঞ্জ: শনিবার দুপুরে রায়গঞ্জের বাহিন গ্রাম পঞ্চায়েতের শঙ্করপুরে জমিতে কাজ করার সময় এক মহিলা শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। পুলিস জানিয়েছে, মৃতের নাম লক্ষ্মী দাস(২৫)। মৃতের বাড়ি বাহিনের হাঁটমুনি গ্রামে।  ...

  নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: গত এক সপ্তাহ ধরে মহমেডান স্পোর্টিং মাঠের পরিচর্যা চলছে। কালো-সাদা ব্রিগেডের টেকনিক্যাল ডিরেক্টর দীপেন্দু বিশ্বাসের উদ্যোগে কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষজ্ঞরা এসে মাঠটির হাল ফেরানোর চেষ্টা করছেন। গত এক সপ্তাহর মধ্যে শনিবারই মহমেডান নিজেদের মাঠে অনুশীলন করল। ...

 অভিমন্যু মাহাত, সোদপুর, বিএনএ: ১৫০ বছরের পুরনো আস্ত জমিদার বাড়িকেই তুলে ধরছে সোদপুরের উদয়ন সংঘ। এবার তাদের থিম ‘খিড়কি থেকে সিংহদুয়ার’। থিম ড্রামা, থিম সং ...

সংবাদদাতা, কালনা: কালনা থানার বাঘনাপাড়া এলাকায় শুক্রবার রাতে এক প্রৌঢ়ার অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে। মৃতার নাম কল্পনা দুর্লভ(৫০)। বাড়ি স্থানীয় দেউলপাড়া এলাকায়। শনিবার কালনা হাসপাতালে মৃতদেহ ময়নাতদন্ত করা হয়। পুলিস একটি অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করে তদন্ত শুরু করেছে।  ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

বেফাঁস মন্তব্যে বন্ধুর সঙ্গে মনোমালিন্য। সম্পত্তি নিয়ে ভ্রাতৃবিরোধ। সৃষ্টিশীল কাজে আনন্দ। কর্মসূত্রে দূর ভ্রমণের সুযোগ।প্রতিকার— ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৫৩৯: পাঞ্জাবের শহর কর্তারপুরে প্রয়াত গুরু নানক
১৭৯১: ইংরেজ বিজ্ঞানী মাইকেল ফ্যারাডের জন্ম
১৮৮৮: ন্যাশনাল জিওগ্রাফিক ম্যাগাজিন প্রথম প্রকাশিত
১৯১৫ - নদিয়া পৌরসভার নামকরণ বদল করে করা হয় নবদ্বীপ পৌরসভা
১৯৩৯: প্রথম এভারেস্ট জয়ী মহিলা জুনকো তাবেইয়ের জন্ম
১৯৬২ – নিউজিল্যাণ্ডের প্রাক্তন ক্রিকেটার তথা ধারাভাষ্যকার মার্টিন ক্রোর জন্ম
১৯৬৫: শেষ হল ভারত-পাকি স্তান যুদ্ধ। রাষ্ট্রসংঘের আহ্বানে সাড়া দিয়ে দু’দেশ যুদ্ধ বিরতি ঘোষণা করল
১৯৭০: লেখক শরদিন্দু বন্দ্যোপাধ্যায়ের মৃত্যু
১৯৭৬: ব্রাজিলের প্রাক্তন ফুটবলার রোনাল্ডোর জন্ম
১৯৮০: ইরান আক্রমণ করল ইরাক
১৯৯৫: নাগারকোভিল স্কুলে বোমা ফেলল শ্রীলঙ্কার বায়ুসেনা। মৃত্যু হয় ৩৪টি শিশুর। যাদের মধ্যে বেশিরভাগই তামিল
২০১১: ক্রিকেটার মনসুর আলি খান পতৌদির মৃত্যু

ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৯.১৯ টাকা ৭২.৭০ টাকা
পাউন্ড ৮৬.৪৪ টাকা ৯১.১২ টাকা
ইউরো ৭৬.২৬ টাকা ৮০.৩৮ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
21st  September, 2019
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৮, ৩৩৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৬, ৩৭০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৬, ৯১৫ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৬, ১০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৬, ২০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

৫ আশ্বিন ১৪২৬, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, রবিবার, অষ্টমী ৩৫/৫৪ রাত্রি ৭/৫০। মৃগশিরা ১৫/৪৪ দিবা ১১/৪৬। সূ উ ৫/২৮/৪০, অ ৫/৩০/৩৮, অমৃতযোগ দিবা ৬/১৬ গতে ৮/৪১ মধ্যে পুনঃ ১১/৫৪ গতে ৩/৭ মধ্যে। রাত্রি ৭/৫৫ গতে ৯/৩০ মধ্যে পুনঃ ১১/৫৪ গতে ১/২৯ মধ্যে পুনঃ ২/১৭ গতে উদয়াবধি, বারবেলা ৯/৫৯ গতে ১/০ মধ্যে, কালরাত্রি ১২/৫৯ গতে ২/২৯ মধ্যে।
৪ আশ্বিন ১৪২৬, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, রবিবার, অষ্টমী ২৩/৭/৩২ দিবা ২/৪৩/৩১। মৃগশিরা ৬/৫২/৫৬ দিবা ৮/১৩/৪০, সূ উ ৫/২৮/৩০, অ ৫/৩২/৩০, অমৃতযোগ দিবা ৬/২০ গতে ৮/৪১ মধ্যে ও ১১/৪৭ গতে ২/৫৪ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/৪২ গতে ৯/২১ মধ্যে ও ১১/৪৯ গতে ১/২৭ মধ্যে ও ২/১৭ গতে ৫/২৯ মধ্যে, বারবেলা ১০/০/০ গতে ১১/৩০/৩০ মধ্যে, কালবেলা ১১/৩০/৩০ গতে ১/১/০ মধ্যে, কালরাত্রি ১/০/০ গতে ১১/৩০/৩০ মধ্যে।
 ২২ মহরম

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
টি ২০: ভারত ৯৯/৬ (১৫ ওভার) 

08:18:46 PM

টি ২০: ভারত ৭৬/৩ (১০ ওভার) 

07:53:38 PM

টি ২০: ভারত ৪১/১ (৫ ওভার) 

07:30:18 PM

পূর্ব মেদিনীপুরের রামনগরে বাসের ধাক্কায় যুবকের মৃত্যু, জখম ১ 

06:59:00 PM

তৃতীয় টি ২০: টসে জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত ভারতের 

06:42:49 PM

মালদহে বজ্রাঘাতে তিনজনের মৃত্যু
রবিবার দুপুরে মালদহের পরানপুর চুনাখালী মাঠে বাজ পড়ে তিনজনের মৃত্যু ...বিশদ

04:09:46 PM