Bartaman Patrika
হ য ব র ল
 

ক্ষুদিরামের ছেলেবেলা 

আমাদের এই দেশকে গড়ে তোলার জন্য অনেকে অনেকভাবে স্বার্থত্যাগ করে এগিয়ে এসেছিলেন। এই কলমে জানতে পারবে সেরকমই মহান মানুষদের ছেলেবেলার কথা। এবার শহিদ ক্ষুদিরাম বসু। লিখেছেন চকিতা চট্টোপাধ্যায়।

ভারতের স্বাধীনতা সংগ্রামের ইতিহাসে শহিদ ক্ষুদিরামের নাম অমর হয়ে আছে। ফাঁসির মঞ্চে যাঁরা দেশের স্বাধীনতার জন্য প্রাণ বিসর্জন দিয়েছেন তাঁদের মধ্যে প্রথম বিপ্লবী ছিলেন ক্ষুদিরাম বসু। আজ তোমাদের শোনাব তাঁর ছেলেবেলার কথা, কেমন করে তিনি হয়ে উঠলেন বীর বিপ্লবী ক্ষুদিরাম। ১৮৮৯ সালের ৩ ডিসেম্বর মেদিনীপুরের হাবিবপুর গ্রামে ত্রৈলোক্যনাথ ও লক্ষ্মীদেবীর ঘরে জন্ম হয়েছিল ক্ষুদিরামের। ক্ষুদিরামের নাম কেন ‘ক্ষুদিরাম’ হয়েছিল জানো? ক্ষুদিরামের জন্মের ঠিক আগে তাঁর দুই দাদা শিশু অবস্থাতেই মারা যান। সেই সময় মানুষের মনে একটা সংস্কার ছিল যে, যদি শিশুর জন্মের পর কোনও আত্মীয় তাকে কিনে নেন ‘কড়ি’ অথবা ‘খুদ’-এর বিনিময়, তাহলে সেই শিশুর অকাল মৃত্যু হবে না। তাই ক্ষুদিরামের মা ছেলের জীবন বাঁচাতে নিজের মেয়ে অপরূপার কাছে তিন মুঠো খুদের বিনিময় তাঁকে বিক্রি করে দিয়েছিলেন। এই জন্যই তাঁর নাম হয় ‘ক্ষুদিরাম’। মাত্র দু’বছর বয়সেই মাকে হারালেন ক্ষুদিরাম। বাবাকে হারালেন সাত বছর বয়সে। দিদি অপরূপা নিজের শ্বশুরবাড়ি দাসপুরের হাটগাছা গ্রামে তাঁকে নিয়ে এলেন। ক্ষুদিরাম বড় হতে লাগলেন দিদির বাড়িতেই। জামাইবাবু অমৃতলাল রায় বদলি হয়ে গেলেন তমলুকে। ক্ষুদিরাম তাঁদের সঙ্গে তমলুকে চলে এলেন। ভর্তি হলেন তমলুকের হ্যামিলটন স্কুলে। পড়াশুনোয় কিন্তু একদম মন ছিল না তাঁর। মন পড়ে থাকত নানান রকম দুরন্তপনার দিকে। যদিও তিনি খুব একগুঁয়ে ছিলেন, কিন্তু তাঁর স্বভাবটি ছিল খুব মিষ্টি। তাই মাস্টারমশাইরা তাঁকে খুব ভালোবাসতেন। জামাইবাবু অমৃতলাল আবার বদলি হলেন। এবার মেদিনীপুর শহরে। ক্ষুদিরামও এসে ভর্তি হলেন মেদিনীপুর কলেজিয়েট স্কুলে। তখন দেশে স্বদেশি আন্দোলনের জোয়ার বয়ে চলেছে চারদিকে। এই মেদিনীপুর কলেজিয়েট স্কুলে ক্ষুদিরাম শিক্ষক হিসেবে পেলেন সত্যেন্দ্রনাথ বসুকে। গুরুশিষ্যর এখানেই হল প্রথম দেখা।
মেদিনীপুরের কাঁসাই নদীর ধারে ঘন জঙ্গলের মধ্যে ছিল এক ভাঙা মন্দির। সেই মন্দিরের দেবতা বুড়ো শিব নাকি খুব জাগ্রত। ভক্তের প্রার্থনা অপূর্ণ রাখেন না তিনি। ক্ষুদিরাম গুটি গুটি পায়ে একদিন এসে দাঁড়ালেন সেই মন্দিরের দরজায়। তাঁর মনের ইচ্ছের কথা জানালেন বুড়ো শিবকে। এমন সময় হঠাৎ শোনেন তাঁর নাম ধরে কেউ ডাকছে। দেখেন মাস্টারমশাই সত্যেন্দ্রনাথ। চমকে গেলেন ক্ষুদিরাম। সত্যেন্দ্রনাথ জিজ্ঞেস করলেন, ‘তুমি এখানে? কেন এসেছ?’ ক্ষুদিরাম বললেন, ‘বর চাইতে’। সত্যেন্দ্রনাথ জানতে চাইলেন, ‘কী বর চাইলে?’ ক্ষুদিরাম বললেন, ‘দেশের মুক্তি। দেশের স্বাধীনতা।’ অবাক হয়ে গেলেন মাস্টারমশাই! বললেন, ‘দেশকে তুমি এত ভালোবাসো? নিজের জন্য কিছু না চেয়ে ভগবানের কাছে দেশের স্বাধীনতা চাইতে এসেছ?’ ক্ষুদিরাম বললেন, ‘দেশকে যে আমি খুব ভালোবাসি মাস্টারমশাই!’ মাস্টারমশাই বোধহয় এইটুকু শোনার জন্যই অপেক্ষা করছিলেন। বললেন, ‘পারবে প্রয়োজন হলে দেশের জন্য প্রাণ দিতে?’ ক্ষুদিরাম নির্ভীক কণ্ঠে বললেন, ‘পারব মাস্টারমশাই।’ সত্যেন্দ্রনাথ বললেন, ‘দেশের জন্য তোমার প্রাণ উৎসর্গ করতে হবে। দেশের মুক্তির জন্য তোমায় দীক্ষা নিতে হবে।’ ক্ষুদিরাম ব্যাকুল হয়ে বললেন, আমায় দীক্ষা দিন মাস্টারমশাই! দেশের জন্য আমি প্রাণ বিসর্জন দেব!’ তাঁর ব্যাকুলতা দেখে তিনি বললেন, ‘বেশ। আজ থেকে তুমি হবে আমাদের গুপ্ত সমিতির সদস্য।’
এই গুপ্ত সমিতিতে ছেলেদের লাঠিখেলা, তলোয়ার চালানো, কুস্তি করা, বন্দুক চালানো, ঘোড়ায় চড়া, সব কিছু শেখানো হতো। অল্প ক’দিনের মধ্যেই ক্ষুদিরাম সব কিছুতেই পারদর্শী হয়ে উঠলেন।
দিদির নিরাপদ আশ্রয় এবার ছাড়লেন ক্ষুদিরাম। পুরোপুরি দেশের কাজে নিজেকে সঁপে দিলেন। এই সময় থেকে তাঁর কাজ হল বিলিতি কাপড়ের গাঁট লুঠ করা, বিলিতি কাপড় পোড়ানো, বিলিতি লবণের নৌকা ডুবিয়ে দেওয়া। পাশাপাশি পিস্তল ছোঁড়াও অভ্যাস করতেন তিনি।
পরের দুঃখ দেখলে ক্ষুদিরাম আর নিজেকে স্থির রাখতে পারতেন না। জীবন পণ করে ঝাঁপিয়ে পড়তেন সমস্যা সমাধানের জন্য। একবার কাঁসাই নদীর বন্যায় গ্রাম ভেসে গেল। ক্ষুদিরাম ‘রণ-পা’ পরে সেখানে ছুটে গেলেন ত্রাণ কাজ করার জন্য। গ্রামে কোনও কারণে আগুন লাগলে, কিংবা ওলাওঠা বা বসন্তের মতো রোগের মহামারী শুরু হলে ক্ষুদিরাম তাঁদের সমিতির ছেলেদের নিয়ে নিজের জীবন তুচ্ছ করে ঝাঁপিয়ে পড়তেন মানুষের সেবায়।
১৯০৬ সালে মেদিনীপুরের মারাঠা কেল্লা অর্থাৎ পুরোনো জেলখানার মাঠে ‘কৃষিশিল্প প্রদর্শনী ও মেলা’ বসেছে। প্রচুর লোক এসেছে সেই মেলায়। বিপ্লবী দলের পত্রিকা ‘সোনার বাংলা’ বিলি করছেন ক্ষুদিরাম। পুলিস হঠাৎ শুরু করল স্বদেশিদের ধরপাকড়। ক্ষুদিরাম পুলিসকে মেরে সেখান থেকে পালালেন। তাঁর বিরুদ্ধে মামলা উঠল আদালতে। বয়স কম বলে তাঁকে শাস্তি দেওয়া হল না।
এর কিছুদিন পরই ঘটল সেই ঐতিহাসিক ঘটনা। অত্যাচারী ম্যাজিস্ট্রেট কিংসফোর্ডকে হত্যা করার জন্য নির্বাচিত হলেন ক্ষুদিরাম ও প্রফুল্ল চাকী। বিপ্লবী দলের আদেশে তাঁরা দু’জন ১৯০৮ সালের ৩০ এপ্রিল কিংসফোর্ডের ঘোড়ার গাড়ি লক্ষ্য করে বোমা ছুঁড়লেন। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত, সে গাড়িতে কিংসফোর্ড ছিলেন না, ছিলেন দু’জন নিরীহ স্ত্রীলোক মিসেস এবং মিস কেনেডি। ক্ষুদিরাম ও প্রফুল্ল চাকী সেখান থেকে পালালেন।
সারারাত রেললাইন ধরে হেঁটে পরদিন ভোরে চব্বিশ মাইল দূরের ওয়াইনি স্টেশানে পৌঁছলেন ক্ষুদিরাম। খিদে তেষ্টায় বাধ্য হয়ে একটি মুদির দোকানে যখন খাবার কিনে খাচ্ছেন, তখন তাঁকে দেখতে পেয়ে গেল দু’জন কন্সটেবল ফতে সিং আর শিবপ্রসাদ মিশ্র। ক্ষুদিরাম কোমরে গোঁজা পিস্তল বার করবার আগেই তারা দু’জন দু’পাশ থেকে জাপটে ধরে ফেলল তাঁকে।
পয়লা মে ধরা পড়লেন তিনি। কোর্টে মামলা উঠল। বিনা পারিশ্রমিকে আইনজীবী কালিদাস বসু, সতীশ চক্রবর্তী, নৃপেন লাহিড়ী মামলা লড়লেন। কিন্তু তবু বাঁচাতে পারলেন না তাঁকে।
১৯০৮ সালের ১১ আগস্ট ফাঁসির দিন ধার্য হল তাঁর। ভারত মায়ের সোনার ছেলে ক্ষুদিরাম হাসতে হাসতে নিজেই এগিয়ে গেলেন ফাঁসির মঞ্চের দিকে। সোজা দৃপ্ত ভঙ্গিতে দাঁড়িয়ে দেশের স্বাধীনতার জন্য নিজের অমূল্য প্রাণ-বিসর্জন দিলেন তিনি। অমর হয়ে রয়ে গেলেন শুধু ইতিহাসেই নয়, প্রতিটি ভারতবাসীর মনের মধ্যেও। দেশের পথে প্রান্তরে বাউল, ফকিরদের কণ্ঠে ছড়িয়ে পড়ল ক্ষুদিরামকে নিয়ে পল্লীকবির বাঁধা সেই
চিরন্তন গান —
‘একবার বিদায় দে মা ঘুরে আসি—
হাসি হাসি পরব ফাঁসি
দেখবে ভারতবাসী।’
ছবি: সংশ্লিষ্ট সংস্থার সৌজন্যে 
11th  August, 2019
বিদ্যাসাগরের জন্মের দ্বিশতবর্ষ 

এই মহান মানুষটি তাদের বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা। সেই বিদ্যাসাগরের জন্মের দুশো বছর উপলক্ষে তাঁকে নিয়ে লিখল মেট্রোপলিটন ইনস্টিটিউশন (মেন)-এর ছাত্ররা। 
বিশদ

22nd  September, 2019
বিদ্যাসাগরের ছেলেবেলা 

আমাদের এই দেশকে গড়ে তোলার জন্য অনেকে অনেকভাবে স্বার্থত্যাগ করে এগিয়ে এসেছিলেন। এই কলমে জানতে পারবে সেরকমই মহান মানুষদের ছেলেবেলার কথা। এবার ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর। লিখেছেন চকিতা চট্টোপাধ্যায়। 
বিশদ

22nd  September, 2019
শ্যুটিং ফ্লোর ছেড়ে পুজোর প্যান্ডেলে 

অ্যাকশন, কাট শব্দগুলো এখন শুনতে একঘেয়ে লাগছে ছোট্ট অভিনেতা-অভিনেত্রীদের। মন তাদের উড়ুউড়ু। আকাশ নীল, কাশের বনে দোলা লেগেছে। সব্বার প্ল্যানিং সারা। কে কী করবে জানাল হ য ব র ল’র বন্ধুদের। 
বিশদ

15th  September, 2019
শিউলি কুঁড়ির সকাল 
কার্তিক ঘোষ

দাপুটে কানা নদীর গা ঘেঁষে তখন বোসেদের একটাই বাড়ি। তবু সবাই বলত বোসপাড়া!
আসলে, যত রাজ্যের পড়াশোনা করা ছেলে-মেয়েরা তখন সব ওই বাড়িতেই বেশি।
কেউ কলকাতায় নামী বিজ্ঞানী, তো, কেউ ডাক্তার!
পাশের বাড়িটা বড্ড গরিব! 
বিশদ

15th  September, 2019
 ড.‌ মারিয়া মন্টেসরির জন্মদিনে জে আই এস গোষ্ঠীর অনুষ্ঠান

ড.‌ মারিয়া মন্টেসরির ১৪৯তম জন্মদিনে জেআইএস গোষ্ঠীর প্রি-স্কুল ‘‌লিটল ব্রাইট স্টারস প্লে স্কুল’‌ পথ চলা শুরু করল। গত ৩১ আগস্ট সংস্থাটি এ নিয়ে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিল। প্রিস্কুলের পঠনপাঠনের পরিবর্তন নিয়ে একটি আলোচনাচক্রের আয়োজন করা হয়।   বিশদ

08th  September, 2019
 পৃথিবীতে বন্দি ভিনগ্রহী?

খোদ আমেরিকার বুকেই নাকি রয়েছে ভিনগ্রহীরা বন্দি হয়ে! এমনই দাবি বেশ কিছু মানুষের। কোথায় বন্দি হয়ে থাকতে পারে তারা? কেনই বা বন্দি করে রাখা হতে পারে তাদের? হ য ব র ল’র পাতায় রইল সেই নিয়ে খোঁজখবর।
বিশদ

08th  September, 2019
 লাইব্রেরি অব কংগ্রেসে কয়েক ঘণ্টা...

আমেরিকা থেকে ফিরে তোমাদের জন্য লিখেছেন মৃণালকান্তি দাস।
বিশদ

08th  September, 2019
ঘুঘুরাম
বাণীব্রত চক্রবর্তী

লোকটার চোখের দিকে তাকিয়ে কিট্টু ভয় পেয়ে গেল। নৌকোটা নদীর ঘাটের কাছে। ওখানে এক কোমর জল। তবে নৌকো ও ঘাটের মধ্যে পাটাতন পাতা আছে। সে সহজেই নৌকোয় উঠে যেতে পারে। নৌকোটা পাড়ের বটগাছের গুঁড়ির সঙ্গে দড়ি দিয়ে শক্ত করে বাঁধা। তবু নৌকো দুলছে। লোকটাও।
বিশদ

08th  September, 2019
গভর্নমেন্ট স্পনসর্ড মাল্টিপারপাস স্কুলের অনুষ্ঠান 

সাড়ম্বরে ৭৩ তম স্বাধীনতা দিবস পালন করল গভর্নমেন্ট স্পনসর্ড মাল্টিপারপাস স্কুল (বয়েজ), টাকী হাউজ। এদিন সকালে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন প্রধান শিক্ষিকা স্বাগতা বসাক। 
বিশদ

01st  September, 2019
পৃথিবী থেকে হারিয়ে যাওয়া প্রাণী 

দাউ দাউ করে জ্বলছে পৃথিবীর ফুসফুস। ভয়ঙ্কর দাবানলের গ্রাসে পড়ে নিশ্চিহ্ন হয়ে যাচ্ছে আমাজন জঙ্গলের অনেকটা অংশ। গাছপালার পাশাপাশি আগুনে পুড়ে প্রাণ হারিয়েছে অসংখ্য জীবজন্তু। হয়তো তাদের মধ্যে কোনও কোনও প্রজাতি চিরদিনের জন্য মুছে গেল পৃথিবীর মানচিত্র থেকে।  
বিশদ

01st  September, 2019
রসগোল্লার ভূতভোজন 
দেবল দেববর্মা

এই গল্পটা শুনেছিলাম আমার বাবার মুখে, তা সে বহুকাল আগের কথা। তখন এত বাস-ট্রাক বা ছোটখাট লরি যাকে কলকাতার লোকে এখন ছোটহাতি বলে, সে-সবের এমন রমরমা ছিল না। আর গ্রামাঞ্চলের কথা আলাদা। 
বিশদ

01st  September, 2019
স্বাধীনতা দিবস উদ্‌যাপন  

৭৩তম স্বাধীনতা দিবস উদ্‌যাপন করল দিল্লি পাবলিক স্কুল (জোকা)। এদিন বিদ্যালয় সেজে উঠেছিল শিক্ষার্থীদের আঁকা টি-শার্ট, নিজের তৈরি পতাকা প্রভৃতি দিয়ে। স্বাধীনতা দিবস উদ্‌যাপন উপলক্ষে প্রতিটি অনুষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণ ছিল নজর কাড়ার মতো।  
বিশদ

25th  August, 2019
ন’বছরের জ্যাকের চাকরির আবেদনে অবাক নাসা 

আমেরিকার মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা। আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশন পরিচালনা, কক্ষপথে স্যাটেলাইট প্রেরণ, মহাকাশ থেকে আবহাওয়ার নজরদারি, সৌরজগতের বিভিন্ন গ্রহের তথ্য উদ্‌ঘাটনে বিভিন্ন মহাকাশ মিশন পরিচালনা, চাঁদ, মঙ্গল বা ইউরোপায় বসবাসের সম্ভাবনা সম্পর্কে গবেষণা প্রভৃতি নানা ধরনের কাজ করে নাসা। 
বিশদ

25th  August, 2019
রেনি ডে 

রেনি ডে মানেই একরাশ মজা। পড়ে পাওয়া একদিনের ছুটি, রাস্তার জমা জলে ইচ্ছেমতো হুটোপুটি আর বাড়িতে গরম গরম খিচুড়ি খেয়ে দুপুরবেলা গল্পের বই নিয়ে সোজা বিছানায়। সেই রেনি ডে নিয়ে এবার কলম আর রং-তুলি ধরেছে হিন্দু স্কুলের ছোটরা।  
বিশদ

25th  August, 2019
একনজরে
বিএনএ, বর্ধমান: বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ২৫টি বেডের নতুন ডায়ালিসিস ইউনিটের কাজ শেষ। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত দিয়ে উদ্বোধন করিয়ে শীঘ্রই ওই ইউনিট চালু করতে চাইছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।  ...

হিউস্টন, ২২ সেপ্টেম্বর: অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ কর্মসূচির পাশাপাশি রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারণ সভায় ভাষণ দেওয়ার নির্ঘণ্টও রয়েছে। কিন্তু মার্কিন সফর চলাকালীন প্রধানমন্ত্রী মোদির পাতে থাকছে কী কী পদ? খাবার-দাবার নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নিজে বিশেষ কোনও অনুরোধ করেননি। তাঁর খাবার তৈরির দায়িত্বে থাকছেন শেফ কিরণ ...

নুর সুলতান (কাজাখস্তান), ২২ সেপ্টেম্বর: ফাইনালে উঠে টোকিও ওলিম্পিকসের টিকিট নিশ্চিত করেছিলেন শনিবার। সেই সাফল্যের রেশ ধরেই বিশ্ব কুস্তি চ্যাম্পিয়নশিপে দীপক পুনিয়াকে ঘিরে তৈরি হয়েছিল ...

সংবাদদাতা, মালদহ: ইংলিশবাজার শহরে চলাচলের অনুমতি দিতে শুরু হয়েছে টোটো বা ই-রিকশর নিবন্ধীকরণ কর্মসূচি। এই সুযোগে শহর জুড়ে পুজোর মুখে ফের হুহু করে বাড়ছে টোটো’র সংখ্যা।  ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

সম্পত্তিজনিত মামলা-মোকদ্দমায় জটিলতা বৃদ্ধি। শরীর-স্বাস্থ্য দুর্বল হতে পারে। বিদ্যাশিক্ষায় বাধা-বিঘ্ন। হঠকারী সিদ্ধান্তের জন্য আফশোস বাড়তে ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮৪৭: বাংলার প্রথম র‌্যাংলার ও সমাজ সংস্কারক আনন্দমোহন বসুর জন্ম
১৯৩২: চট্টগ্রাম আন্দোলনের নেত্রী প্রীতিলতা ওয়াদ্দেদারের মৃত্যু
১৯৩৫: অভিনেতা প্রেম চোপড়ার জন্ম
১৯৪৩: অভিনেত্রী তনুজার জন্ম
১৯৫৭: গায়ক কুমার শানুর জন্ম 

ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৯.১৯ টাকা ৭২.৭০ টাকা
পাউন্ড ৮৬.৪৪ টাকা ৯১.১২ টাকা
ইউরো ৭৬.২৬ টাকা ৮০.৩৮ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
21st  September, 2019
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৮, ৩৩৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৬, ৩৭০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৬, ৯১৫ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৬, ১০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৬, ২০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]
22nd  September, 2019

দিন পঞ্জিকা

৬ আশ্বিন ১৪২৬, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, সোমবার, নবমী ৩২/৫১ রাত্রি ৬/৩৭। আর্দ্রা ১৫/১ দিবা ১১/২৯। সূ উ ৫/২৮/৫৭, অ ৫/২৯/৪১, অমৃতযোগ দিবা ৭/৪ মধ্যে পুনঃ ৮/৪১ গতে ১১/৫ মধ্যে। রাত্রি ৭/৫২ গতে ১১/৫ মধ্যে পুনঃ ২/১৭ গতে ৩/৫ মধ্যে, বারবেলা ৬/৫৯ গতে ৮/২৯ মধ্যে পুনঃ ২/৩০ গতে ৪/০ মধ্যে, কালরাত্রি ১০/০ গতে ১১/৩০ মধ্যে। 
৫ আশ্বিন ১৪২৬, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, সোমবার, নবমী ১৯/৪৮/৫৫ দিবা ১/২৪/১৪। আর্দ্রা ৫/৩৮/১৫ দিবা ৭/৪৪/৮, সূ উ ৫/২৮/৫০, অ ৫/৩১/৩০, অমৃতযোগ দিবা ৭/৭ মধ্যে ও ৮/৪১ গতে ১১/১ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/৪২ গতে ১০/৫৯ মধ্যে ও ২/১৭ গতে ৩/৬ মধ্যে, বারবেলা ২/৩০/৫০ গতে ৪/১/১০ মধ্যে, কালবেলা ৬/৫৯/১০ গতে ৮/১৯/৩০ মধ্যে, কালরাত্রি ১/০/৩০ গতে ১১/৩০/১০ মধ্যে। 
২৩ মহরম

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
নদীয়ার কলেজে বোমাবাজি, জখম ২
নদীয়ার মাজদিয়া কলেজে বোমাবাজির ঘটনা ঘটল। টিএমসিপি-এবিভিপি একে অন্যের বিরুদ্ধে ...বিশদ

06:28:00 PM

গৃহবধূর অস্বাভাবিক মৃত্যু ঘিরে উত্তেজনা চন্দননগরে
এক গৃহবধূর অস্বাভাবিক মৃত্যুকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়াল হুগলী-চুঁচুড়া পৌরসভার ...বিশদ

06:23:18 PM

ষষ্ঠ বেতন কমিশন অনুযায়ী কেমন হচ্ছে কর্মচারীদের বেতন
ক্যাবিনেটেও অনুমোদিত হয়ে গেল ষষ্ঠ বেতন কমিশন । নতুন এই ...বিশদ

05:49:00 PM

ফায়ার লাইসেন্স ফি কমাল রাজ্য
ফায়ার লাইসেন্স ফি ৯২ শতাংশ কমিয়ে দিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকার। ...বিশদ

04:54:52 PM

কাটোয়ায় বাজ পড়ে মৃত ১ 
আজ সোমবার দুপুরে কাটোয়ায় বাজ পড়ে মৃত্যু হল এক ব্যক্তির। ...বিশদ

04:54:00 PM

রাজীব কুমারের কোয়ার্টারে ফের সিবিআই 
ফের নোটিস দিতে রাজীব কুমারের কোয়ার্টারে হানা দিল সিবিআই।   ...বিশদ

04:48:06 PM