Bartaman Patrika
শরীর ও স্বাস্থ্য
 

পরীক্ষা আর ইন্টারভিউ-এর
টেনশন কাটাবেন কীভাবে?

 মাস পেরলেই মাধ্যমিক পরীক্ষা। তারপর একে একে উচ্চ মাধ্যমিক ও স্নাতক স্তরের পরীক্ষাও ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলবে। পড়ুয়াদের মধ্যে টেনশন এবং স্ট্রেস আসা স্বাভাবিক। তবে উদ্বেগ মাত্রাতিরিক্ত হলে মুশকিল। মনের পাশাপাশি শরীরেও এই দুশ্চিন্তার প্রভাব পড়বে। আবার বড়রাও চাকরির ইন্টারভিউ নিয়েও মানসিক চাপে থাকেন। কীভাবে মাথা ঠান্ডা রেখে পরিস্থিতির মোকাবিলা করা যায়? পরামর্শ দিলেন বিশিষ্ট মনোবিদ ডাঃ দেবাঞ্জন পান।

টেনশন সবসময় খারাপ নয়। পরীক্ষা নিয়ে অল্প টেনশন থাকা ভালো। এর ফলে প্রস্তুতিটাও যেমন জোরদার হয়, তেমনই ভালো ফল করার তাগিদও বাড়ে। তবে ভীতি যদি ফোবিয়ায় পরিণত হয়, তাহলে মুশকিল। অনেকেই এমন রয়েছে, যাদের ব্যক্তিত্বের মধ্যে প্রথম থেকেই স্ট্রেসের লক্ষণ থাকে। এর পিছনে তাদের বেড়ে ওঠার পারিপার্শ্বিক পরিবেশও দায়ী থাকে। বিশেষ করে বাবা-মায়ের আচরণ একটা বড় ভূমিকা নেয়। সন্তানের উপর নিজের ইচ্ছেগুলোকে চাপিয়ে দেওয়াটা ঠিক নয়। এই প্রত্যাশার চাপ থেকেই অনেক পড়ুয়া মারাত্মক পরীক্ষা-ভীতিতে ভুগতে থাকে। অতএব এই চাপ কমাতে হবে। দেখা যাক, কীভাবে আমরা পরীক্ষা নিয়ে ফোবিয়া কাটাতে পারি—
 পরিকল্পনা বা প্ল্যানিং
পরীক্ষা-ভীতি কাটানোর প্রথম টোটকাই হচ্ছে, অনেক আগে থেকে প্রস্তুতি শুরু করা। পুরোটাই আগে থেকে পরিকল্পনা করে পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতি নিতে হবে। এতে একদিকে ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে আত্মবিশ্বাস বাড়বে। অন্যদিকে, পরীক্ষা নিয়ে অযথা টেনশন করার প্রবণতাও কমবে।
 সময়ের সদ্ব্যবহার
সময় ভাগ করে প্রস্তুতি নিলে পরীক্ষার ফল ভালো হবেই। রাতে হোক দিনে, নিজের সুবিধেমতো পড়ার জন্য সময় বের করে নিতে হবে। আর সেটা করতে হবে নিষ্ঠার সঙ্গে। নিজের দুর্বল জায়গাগুলির জন্য বেশি সময় দিলে আপনা থেকেই প্রস্তুতিটা ভালো হবে।
 পুনর্মূল্যায়ন
পড়াশোনার সঙ্গে সঙ্গে অনবরত পুনর্মূল্যায়ন চালিয়ে গেলে পরীক্ষা-ভীতি অনেকটাই কাটিয়ে ওঠা সম্ভব। যা পড়ছি, তা মনে থাকবে কি না, সেটা যাচাই করে নেওয়াই পুনর্মূল্যায়ন। যত বেশি পুনর্মূল্যায়ন হবে, সংশ্লিষ্ট বিষয়টিতে ভয়ও ততটাই কমে যাবে।
 ভিস্যুয়াল মেমরি
যখন পরীক্ষার আর দিন কুড়ি বাকি, তখন এই ভিস্যুয়াল মেমরির অনুশীলন শুরু করা যেতে পারে। কোনও বিষয় পড়ার পর যদি মনে হয়, পরীক্ষার হলে সেটা মাথায় নাও থাকতে পারে, তখন সেই বিষয়ের কিছু গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্ট অন্য কোথাও লিখে রাখতে হবে। তারপর অবসর সময়ে সেগুলিতেই শুধু চোখ বুলিয়ে যেতে হবে। খেতে বসে বা ছাদে-বারান্দায় ঘোরাঘুরি করতে করতে এটা করা যেতে পারে। এভাবে অন্যান্য বিষয়গুলির ক্ষেত্রেও আলাদা করে পয়েন্ট লিখে রাখলে পরীক্ষার সময় উত্তর লিখতে অনেকটাই সুবিধা হবে পরীক্ষার্থীদের।
 পর্যাপ্ত ঘুম এবং শরীরচর্চা
অনেকের মধ্যে এই ধারণা রয়েছে যে, পরীক্ষার আগে রাত-দিন পড়াশোনা করলে ফল ভালো হতে বাধ্য। সেটা করতে গিয়ে অনেক সময়ই পড়ুয়ারা খুবই কম সময়ের জন্য ঘুমোয়। এটা একেবারেই উচিত নয়। অন্তত ৭ ঘণ্টা ঘুমোতেই হবে। না হলে মস্তিষ্কের স্বাভাবিক স্মৃতিশক্তি কমে যেতে পারে। স্বাভাবিকভাবেই এর প্রভাব পড়ে পরীক্ষার প্রস্তুতিতেও। কারণ, যা পড়ছি, তা আত্মস্থ করতে মস্তিষ্কের এই ঘুম প্রয়োজন। এর সঙ্গে শরীরচর্চাও বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ। টেনশন বা স্ট্রেস কাটানোর অন্যতম ভালো উপায় হল শরীরচর্চা। তা সে স্কিপিং হোক বা জগিং।
 একটানা পড়াশোনা নয়
পরীক্ষার আগে সিলেবাস শেষ করার তাগিদে একটানা পড়ে যাওয়া কিন্তু ঠিক নয়। নির্দিষ্ট সময় অন্তর বিরতি নিতে হবে। কারণ, আমাদের মস্তিষ্কের গঠন যা তাতে একটানা পড়ার ধকল সে সইতে পারে না। ফলে পরীক্ষার হলে গিয়ে সব তালগোল পাকিয়ে যায়। যাদের অমনযোগিতার ধাত রয়েছে, তাদের ক্ষেত্রে এটা বেশি হয়। তাই ১ ঘণ্টা পড়ার পর ৫-১০ মিনিটের বিরতি নেওয়াটাই শ্রেয়। সেই সময়টায় যা পড়লাম, সেটাই মাথার মধ্যে একবার ঝালিয়ে নিতে হবে।
 ডায়েট
পরীক্ষায় সফল হওয়ার নেপথ্যে এই খাদ্যাভ্যাস বা ডায়েটের কিন্তু বড় ভূমিকা রয়েছে। বাদাম, আখরোট, আমন্ডে খুব বেশি পরিমাণে ম্যাগনেশিয়াম থাকে যা মস্তিষ্কের স্নায়ুর সক্রিয়তা এবং স্মৃতিশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে। তাই রোজকার ডায়েটের মধ্যে বাদাম রাখতেই হবে। মনস্তাত্ত্বিক দিক থেকেও বাদাম খাওয়ার একটা উপকারিতা রয়েছে। বাদাম খেলে যে ক্রাঞ্চিং সাউন্ড হয়, তা স্ট্রেস বাস্টারের কাজ করে। গাজর বা শসা খেলেও একইরকম শব্দ হয়। এতে কিছুক্ষণের জন্য হলেও মনটাকে অন্যদিকে ঘুরিয়ে দেওয়া যায়। টেনশনও কিছুটা লাঘব হয়।
 বাদ সোশ্যাল মিডিয়া
জেন-ওয়াই কাছে এটা অসম্ভব মনে হলেও পরীক্ষায় ভালো ফল করতে হলে প্রস্তুতির সময় সোশ্যাল মিডিয়া এবং মোবাইল ফোন থেকে যতটা সম্ভব দূরে থাকতে হবে। পড়াশোনার প্রয়োজনে ইন্টারনেট ব্যবহার করা গেলেও বাকি সোশ্যাল সাইটগুলি সচেতনভাবে এড়িয়ে চলতে হবে। কারণ, এই সোশ্যাল সাইট থেকে পরীক্ষার্থীদের মনে বাড়তি চাপ তৈরি হয়ে যায়। বন্ধুদের সঙ্গে নিজের প্রস্তুতি নিয়ে আলোচনা করতে গিয়ে যদি কোনও পরীক্ষার্থী দেখে যে বন্ধু তার থেকেও বেশি ভালো করে প্রস্তুতি নিয়ে ফেলেছে, তাহলে সংশ্লিষ্ট পড়ুয়াটির উপর আলাদা করে মনস্তাত্ত্বিক চাপ তৈরি হয়। গ্রাস করতে পারে হীনম্মন্যতাও। এর পাশাপাশি মনঃসংযোগে ব্যাঘাত ঘটাতেও সোশ্যাল মিডিয়ার কোনও জুড়ি নেই।
 বাবা-মায়েদের করণীয়
সন্তানের উপর নিজেদের ইচ্ছেগুলোকে চাপিয়ে দেবেন না। এই প্রত্যাশার চাপেই অনেক পড়ুয়া পরীক্ষার আতঙ্কে ভুগতে থাকে। বাড়িতে এমন পরিবেশ তৈরি করুন যেখানে আপনার সন্তান উপলব্ধি করতে পারে যে এটাই জীবনের শেষ পরীক্ষা নয়। পরীক্ষার রেজাল্ট কী হবে, তা আমাদের হাতে নেই। যা আছে, তা হল, ভালো ফল করার প্রস্তুতিটা ঠিকভাবে নেওয়া। তাই সবসময় ইতিবাচক মনোভাব নিয়ে সন্তানকে সাহায্য করে যেতে হবে। সবসময় সন্তানের পাশে থাকুন। ওর মনোবল বাড়ানোর চেষ্টা করুন।
 বড়দের কথা
এবার আসা যাক বড়দের প্রসঙ্গে। ইন্টারভিউয়ের ভীতিও কিন্তু একধরনের সোশ্যাল অ্যাংজাইটি। অচেনা লোকের সঙ্গে কথা বলতে সংকোচ বোধ করা বা হলভর্তি লোকের সামনে মঞ্চে উঠতে ভয় পাওয়াটা একেবারেই স্বাভাবিক একটা বিষয়। ইন্টারভিউ দিতে গিয়ে অনেকেরই টেবিলের অন্য প্রান্তে বসা মানুষটির সঙ্গে কথা বলতে ইতস্তত বোধ করেন। এগুলিও একধরনের সোশ্যাল ফোবিয়া। এগুলি কাটানোর একাধিক উপায় আছে। যেমন— ইন্টারভিউয়ের জন্য বেশ কিছুদিন আগে থেকে প্রস্তুতি নেওয়া। নিয়ম করে আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে মক ইন্টারভিউ দেওয়া। অচেনা মানুষদের সঙ্গে (নিয়োগকর্তা) চোখের দিকে তাকিয়ে কথা বলা অভ্যাস করতে হবে। ইন্টারভিউ দিতে গিয়ে বিনম্রতার সঙ্গেই নিয়োগকর্তার চোখের দিকে তাকিয়ে কথা বললে আত্মবিশ্বাস অনেকটাই বাড়ে। এসব করেও ফল না পেলে বা এই ফোবিয়া বা ভীতি মাত্রাতিরিক্ত পর্যায় চলে গেলে শেষ অস্ত্র হিসেবে কাউন্সেলিংয়ের শরণাপন্ন হতে হবে। বুদ্ধিমান, মেধাবী হয়েও যদি কেউ ইন্টারভিউতে গিয়ে এইধরনের সমস্যার সম্মুখীন হন, তবে বুঝতে হবে তার কাউন্সেলিংয়ের প্রয়োজন রয়েছে। সঠিক পদ্ধতিতে কাউন্সেলিং করা হলে, এই ভীতি সহজেই কাটিয়ে ওঠা সম্ভব।
লিখেছেন: নীতীশ মণ্ডল
 মাঝে মাঝে স্নান না করা ভালো

শীতকাল মানেই স্নানের ভয়। ঠান্ডার কারণে স্নান করতে ঢুকেও গায়ে জল না ঢেলে বেরিয়ে আসেন অনেকে। শীতকালে অনিয়মিত এই স্নানের বিষয়ে অনেকেই খোলামেলা আলোচনা করেন না, যদি কেউ ঠাট্টা করে—এই লজ্জায়। কিন্তু মাঝেমধ্যেই স্নান না করলে লজ্জা বা সংকোচের কিছু নেই। মার্কিন গবেষকদের মতে, প্রতিদিন স্নান করলে ত্বকের বেশ ক্ষতি হতে পারে। মূলত শরীরের ময়লা, ঘাম ধুয়ে ফেলার জন্যই আমরা স্নান করে থাকি।
বিশদ

 আন্তর্জাতিক পুরস্কার পেলেন হার্টের চিকিৎসক

সম্প্রতি মাদার টেরেসা আন্তর্জাতিক পুরস্কার পেলেন বিশিষ্ট হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ডাঃ তরুণ প্রহরাজ। সমাজের নানা ক্ষেত্রে স্বাক্ষর বহনকারী ব্যক্তিত্ব, সংস্থাকে এই পুরস্কার দেওয়া হয়ে থাকে মাদার টেরেসা আন্তর্জাতিক পুরস্কার কমিটির তরফে। প্রায় ৩০ বছর চিকিৎসাক্ষেত্রে অবদানের জন্য এই পুরস্কার পেলেন ডাঃ প্রহরাজ।
বিশদ

আইডিএ-এর অনুষ্ঠানে রাজ্যের সাফল্য

সম্প্রতি ইন্ডিয়ান ডেন্টাল অ্যাসোসিয়েশন (আইডিএ) আয়োজিত অনুষ্ঠানে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যশাখা পেল একাধিক পুরস্কার। সেরা রাজ্যশাখার সম্মানের পাশাপাশি অন্যান্য ছটি বিভাগে পুরস্কৃত হয়েছে আইডিএ ওয়েস্ট বেঙ্গল স্টেট ব্রাঞ্চ। সেরা রাজ্যশাখা সম্পাদক ২০১৮ পুরস্কার পেয়েছেন সংস্থার রাজ্যশাখার সম্পাদক ডাঃ রাজু বিশ্বাস।
বিশদ

রক্তের রোগে ভয় নয়

বর্তমানে চিকিৎসা বিজ্ঞানের কল্যাণে থ্যালাসেমিয়া ও লিউকেমিয়া সহ রক্তের অন্যান্য জটিল রোগগুলি নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব। মুশকিল হল, সাধারণত মানুষ শরীরের অন্যান্য অংশের ক্যান্সারের ভয়াবহতার সঙ্গে রক্তের ক্যান্সারকে গুলিয়ে ফেলেন।
বিশদ

মস্তিষ্কের ক্ষমতা বাড়াতে আয়ুর্বেদ

আয়ুর্বেদ শাস্ত্র অনুযায়ী, প্রকৃতির কাছে বহু উপাদান রয়েছে যেগুলির নিয়মিত সেবনে ব্রেনের কার্যক্ষমতা বাড়ে। সহজলভ্য সেইসব ঔষধি গাছগাছড়ার ব্যবহার সম্পর্কে জানালেন কলকাতার সেন্ট্রাল আয়ুর্বেদ রিসার্চ ইনস্টিটিউট ফর ড্রাগ ডেভেলপমেন্টের চিকিৎসাবিজ্ঞানী ডঃ সরোজ কুমার দেবনাথ। বিশদ

17th  January, 2019
স্ট্রোকের পর জীবনে ফিরতে রি-হ্যাব

ব্রেন স্ট্রোকের মতো অসুখ একজন মানুষ ও তাঁর পরিবারের জীবনে আচমকাই নিয়ে আসে ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতা। এরপর কীভাবে স্ট্রোকের রোগীকে জীবনের মূলস্রোতে ফিরিয়ে আনা যায়? জানাচ্ছেন মেডিক্যাল রিহ্যাবিলিটেশন সেন্টারের চিফ কনসালটেন্ট ডাঃ মৌলি মাধব ঘটক। বিশদ

17th  January, 2019
 চতুর্থ কলকাতা গাট সামিট

কলকাতার একটি অভিজাত হোটেলে অনুষ্ঠিত হল চতুর্থ কলকাতা গাট সামিট ২০১৯। এই সম্মেলনে সারা দেশের দশটি রাজ্য থেকে প্রায় ১৭০ জন বিশেষজ্ঞ গ্যাসট্রোএনটেরোলজিস্ট উপস্থিত ছিলেন। সম্মেলনের উদ্বোধন করেন পশ্চিমবঙ্গ স্বাস্থ্য বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন অধ্যক্ষ ডাঃ ভবতোষ বিশ্বাস।
বিশদ

17th  January, 2019
থ্যালাসেমিয়া আক্রান্ত শিশুদের জন্য

থ্যালাসেমিয়া শিশুদের সাহায্যে সম্প্রতি চারদিন ব্যাপী এক নাট্যোৎসবের আয়োজন করেছিল আর্যভ ওয়েলফেয়ার সোসাইটি। কলকাতার নিরঞ্জন সদনে আয়োজিত এই উৎসবটির উদ্বোধন করেন নাট্যব্যক্তিত্ব বিভাস চক্রবর্তী ও রুদ্রপ্রসাদ সেনগুপ্ত।
বিশদ

17th  January, 2019
অটিজম নিয়ে আন্তর্জাতিক সম্মেলন

স্নায়ু এবং বিকাশজনিত রোগ অটিজম বা অটিজম স্পেকট্রাম ডিজঅর্ডারে (এএসডি) আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমশ বেড়েই চলেছে। এমন পরিস্থিতিতে রত্নাবলি গোষ্ঠীর পক্ষ থেকে কলকাতার সন্নিকটে ইন্ডিয়ান অটিজম সেন্টার গড়ে তোলা হচ্ছে।
বিশদ

17th  January, 2019
বিষের নাম প্লাস্টিক

বাজার করতে হলে প্লাস্টিকের ব্যাগ, মিষ্টির প্যাকেটও প্লাস্টিকের, জলের বোতল, এমনকী খারাপ থালা-গ্লাসও প্লাস্টিকের। দৈনন্দিন জীবনের একেবারে গভীরে ঢুকে গিয়েছে পলিথিনের ব্যবহার। ব্যবহারও করছি কিচ্ছু না ভেবে। আমাদের অজান্তেই এভাবে প্লাস্টিক ক্রমশ গ্রাস করছে গোটা পৃথিবীটাকেই। সেইদিন দূরে নয় যখন প্লাস্টিকই প্রাণহীন করে ফেলবে নীল গ্রহকে। প্লাস্টিকের সর্বগ্রাসী দূষণ রুখতে বিকল্প পথ কী? জানালেন সেন্ট্রাল পলিউশন কন্ট্রোল বোর্ডের প্রাক্তন সহযোগী অধিকর্তা ও বায়ুদূষণ নজরদারি বিভাগের প্রধান দীপঙ্কর দাস।
বিশদ

10th  January, 2019
দেরি করে ঘুম থেকে
ওঠার বিপদ কী কী?

সম্প্রতি এক গবেষণায় দেখা গেছে, দেরি করে ঘুম থেকে ওঠার কারণে নানা মানসিক ও শারীরিক জটিলতার শিকার হতে হয়। বিজ্ঞানীরা এই সংক্রান্ত গবেষণার জন্য চার ধরনের মানুষকে বেছে নিয়েছিলেন। তাঁরা হল, যাঁরা প্রতিদিন নিয়মিত সকালে ওঠেন, যাঁরা মাঝে মধ্যে সকালে ওঠেন, যাঁরা মাঝে মাঝে দেরি করে ঘুমান এবং যাঁরা প্রতিরাতে নিয়মিত রাত জাগেন।
বিশদ

10th  January, 2019
হিমোফিলিয়া সোসাইটির উদ্যোগ

হিমোফিলিয়া সোসাইটি দুর্গাপুর চ্যাপ্টারের মহিলাদের পক্ষ থেকে হিমোফিলিয়ায় আক্রান্ত ও তাঁদের পরিবারের উদ্দেশ্যে দু’দিন ব্যাপী শিক্ষামূলক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল। বিষয় ছিল— ‘মানসিক-সামাজিক কাউন্সেলিং এবং ফিজিওথেরাপির গুরুত্ব’।
বিশদ

10th  January, 2019
কাশির সঙ্গে রক্ত চিকিৎসা কী ?

 শীতকাল মানেই কমবেশি কাশির উপদ্রব ঘরে ঘরে। অনেক কারণেই কাশতে কাশতে কফের সঙ্গে রক্ত বেরিয়ে আসতে পারে। আর রক্ত ওঠা মানেই, সমস্যাকে একদম অবহেলা নয়। সঠিক সময়ে চিকিৎসার আওতায় এলে এমন বহু সমস্যারই সমাধান সম্ভব। জানাচ্ছেন রায়গঞ্জ সুপারস্পেশালিটি হাসপাতালের টিবি ইউনিটের মেডিক্যাল অফিসার ডাঃ দেবব্রত রায়।
বিশদ

03rd  January, 2019
ত্বকের স্বাস্থ্য ধ্বংস করছে
স্মার্টফোনের পর্দা

কেউ যদি ভেবে থাকেন ঘরবাড়ি বা অফিস-আদালতে টয়লেটই হল সবচেয়ে নোংরা জায়গা, যেখানে জীবাণুরা মনের আনন্দে নেচে বেড়ায়, তাহলে তিনি নিজের স্মার্টফোনটা একবার পরীক্ষা করিয়ে নিতে পারেন। কারণ আপনার খালি চোখ সেটা ধরতে পারবে না।
বিশদ

03rd  January, 2019
একনজরে
বেঙ্গালুরু, ২৩ জানুয়ারি (পিটিআই): ‘ফেরার’ কংগ্রেস বিধায়ক জে এন গণেশের খোঁজ চালাচ্ছে পুলিস। বুধবার একথা জানালেন কর্ণাটকের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এম বি পাতিল। শনিবার রাতে বেঙ্গালুরুর কাছে একটি রিসর্টে কংগ্রেসেরই অন্য বিধায়ক আনন্দ সিংয়ের উপর হামলার অভিযোগ উঠেছে গণেশের বিরুদ্ধে। খুনের চেষ্টার ...

 সাও পাওলো, ২৩ জানুয়ারি: ব্রাজিল এবং আর্জেন্তিনা। বিশ্ব ফুটবলের দুই সুপার পাওয়ার। মেসি-নেইমাররা মাঠে নামলে সবুজ ঘাসে শিল্পের রংমশাল জ্বলে। ফুটবলদুনিয়া উন্মুখ হয়ে থাকে এই ...

বিএনএ, রায়গঞ্জ: উত্তর দিনাজপুর জেলার নদীগুলিতে মাছের পরিমাণ বৃদ্ধি করার লক্ষ্যে জেলা মৎস্য দপ্তর নদীতে বড়মাছ ছাড়ার কাজ শুরু করেছে। বিভিন্ন কারণে জেলার নদীগুলিতে দীর্ঘদিন ধরেই নদীয়ালি মাছের সংখ্যা কমতে শুরু করেছে। সেদিকে নজর দিয়ে এবার জেলার নদীতে নদীয়ালি বিভিন্ন ...

  বিএনএ, সিউড়ি: ভুয়ো উপভোক্তা চিহ্নিত করার পাশাপাশি অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্রের সুবিধা প্রতিটি শিশু ও মায়ের কাছে পৌঁছে দিতে বিশেষ সমীক্ষার(সার্ভে) নির্দেশ দিয়েছে সংশ্লিষ্ট দপ্তর। এতদিন প্রতি বছর জেলা থেকে একটি সমীক্ষা করা হলেও তার রিপোর্ট কোনওবার রাজ্যে পাঠানো হতো না। ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

সম্পত্তিজনিত মামলা-মোকদ্দমায় সাফল্য প্রাপ্তি। কর্মে দায়িত্ব বৃদ্ধিতে মানসিক চাপবৃদ্ধি। খেলাধূলায় সাফল্যের স্বীকৃতি। শত্রুর মোকাবিলায় সতর্কতার ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮২৬: ব্যারিস্টার জ্ঞানেন্দ্রমোহন ঠাকুরের জন্ম
১৮৫৭: প্রতিষ্ঠিত হল কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়
১৯৪৫: পরিচালক সুভাষ ঘাইয়ের জন্ম
১৯৫০: ভারতের জাতীয় সঙ্গীত হিসাবে গৃহীত হল ‘জনগণমন অধিনায়ক’
১৯৬৬: বিজ্ঞানী হোমি জাহাঙ্গির ভাবার মৃত্যু

ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭০.৪১ টাকা ৭২.১১ টাকা
পাউন্ড ৯০.৬৫ টাকা ৯৩.৯২ টাকা
ইউরো ৭৯.৫৬ টাকা ৮২.৫৭ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩২,৯০৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩১,২২০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩১,৬৯০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৩৯,০০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৩৯,১০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]
23rd  January, 2019

দিন পঞ্জিকা

১০ মাঘ ১৪২৫, ২৪ জানুয়ারি ২০১৯, বৃহস্পতিবার, চতুর্থী ৩৬/২০ রাত্রি ৮/৫৪। নক্ষত্র- পূর্বফাল্গুনী ২৯/৫৮ রাত্রি ৬/২১, সূ উ ৬/২২/১৬, অ ৫/১৪/৫৮, অমৃতযোগ রাত্রি ১/৭ গতে ৩/৪৪ মধ্যে। বারবেলা ঘ ২/৩১ গতে অস্তাবধি, কালরাত্রি ঘ ১১/৪৮ গতে ১/২৭ মধ্যে।
৯ মাঘ ১৪২৫, ২৪ জানুয়ারি ২০১৯, বৃহস্পতিবার, চতুর্থী রাত্রি ২/২১/১০। পূর্বফাল্গুনীনক্ষত্র রাত্রি ১১/৪১/৪১। সূ উ ৬/২৪/৩১, অ ৫/১২/২৪, অমৃতযোগ রাত্রি ঘ ১/৭/৪০ থেকে ঘ ৩/৪৬/৬ মধ্যে। বারবেলা ৩/৫১/২৫ থেকে ৫/১২/২৪ মধ্যে, কালবেলা ২/৩০/২৬ থেকে ৩/৫১/২৫ মধ্যে, কালরাত্রি ১১/৪৮/২৮ থেকে ঘ ১/২৭/২৯ মধ্যে।
 

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
খুন করার পর দেহের টুকরো কমোডে ফেলে ফ্ল্যাশ করল হত্যাকারী
এক নির্মম হত্যাকাণ্ডের সাক্ষী থাকল বাণিজ্য নগরী। ঋণের এক লাখ ...বিশদ

07:01:02 PM

 পান্ডিয়া ও ও রাহুলের উপর থেকে নির্বাসন তুলে নিল বিসিসিআই
হার্দিক পান্ডিয়া ও লোকেশ রাহুলের উপর থেকে নির্বাসন তুলে নিল ...বিশদ

06:18:23 PM

গ্রেপ্তার শ্রীকান্ত মোহতা
আটক করে জিজ্ঞাসাবাদের পর গ্রেপ্তারই করা হল বিশিষ্ট চিত্র প্রযোজক ...বিশদ

05:44:00 PM

জিটিও বৈঠকে কড়া বার্তা মমতার
আজ জিটিএ বৈঠকে দার্জিলিংয়ের রাস্তা সারাই নিয়ে কড়া নির্দেশ দেন ...বিশদ

05:22:00 PM

৮৬ পয়েন্ট উঠল সেনসেক্স 

03:54:00 PM

শ্রীকান্ত মোহতাকে আটক করল সিবিআই
বিশিষ্ট প্রযোজক শ্রীকান্ত মোহতাকে আটক করল সিবিআই। আজ কসবায় তাঁর ...বিশদ

03:25:17 PM