Bartaman Patrika
শরীর ও স্বাস্থ্য
 

শিশুকে কেন মায়ের দুধ খাওয়ানো উচিত?

পরামর্শে এনআরএস মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের নিওনেটাল ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিট ও স্পেশাল নিউ বর্ন কেয়ার ইউনিটের প্রধান ডাঃ অসীম মল্লিক এবং চিকিৎসক ও স্নাতকোত্তর ছাত্র ডাঃ অমিত রায়।

মাতৃদুগ্ধের উপকারিতা
 মাতৃদুগ্ধ শিশুর সম্পূর্ণ আহার। পুষ্টিগুণে পরিপূর্ণ। মাতৃদুগ্ধে শিশুর বৃদ্ধির জন্য উপযুক্ত পরিমাণে প্রোটিন, ফ্যাট, কার্বোহাইড্রেট, ভিটামিন ও খনিজ পদার্থ থাকে। এছাড়া মায়ের দুধে থাকা অ্যান্টিবডি বাচ্চাকে বহু সংক্রমণ থেকে বাঁচায়।
 বাচ্চার অতিরিক্ত মোটা হওয়া আটকায়।
 মাতৃদুগ্ধ শিশুর জন্য সহজপাচ্য ও সহজলভ্য।
 শিশুর বুদ্ধিবৃত্তির বিকাশে সাহায্য করে।
 শিশুমৃত্যু কমায়।
 মায়ের দুধ সারাবছরে পাঁচ বছর বয়সের নীচে প্রায় আট লক্ষেরও বেশি শিশুর প্রাণহানি রোধ করতে পারে।
 মায়ের দুধ শিশুর বুদ্ধি বা আইকিউ তিন থেকে চার অঙ্ক বাড়াতে পারে।
 মাতৃদুগ্ধে থাকা ল্যাকটোফেরিন অন্ত্রে খারাপ ব্যাকটেরিয়া জন্মাতে দেয় না। আইজিএ সংক্রমণ ও এলার্জি থেকে বাঁচায়। আবার দুধে থাকা
লাইসোজাইম বাচ্চাকে ই কোলাই ও সালমোনেল্লার মতো ব্যাকটেরিয়ার হাত থেকেও রক্ষা করে। বিফিডাস ফ্যাক্টর উপকারী ল্যাকটোব্যাসিলাস ব্যাকটেরিয়া জন্মাতে সাহায্য করে।
 মায়ের দুধে থাকা ফ্যাট শিশুর ব্রেন ও স্নায়ুতন্ত্র বিকাশে সাহায্য করে।
 ল্যাকটোজ উপকারী ব্যাকটেরিয়া জন্মাতে সাহায্য করে ও ক্যালশিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম ও ফসফরাসের আত্তীকরণে সাহায্য করে।
কোন কোন রোগ দূরে রাখে?
শিশুকে অসংখ্য অসুখ থেকে দূরে রাখে মায়ের দুধ।
এলার্জি, একজিমা, ইউরিন ইনফেকশন, ইনফ্লামেটারি বাওয়েল ডিজিজ, পেটের সংক্রমণ, কানের সংক্রমণ, হিমোফিলিস, ইনফ্লুয়েঞ্জা, মেনিনজাইটিস, নেক্রোটাইসিং, এন্টেরোকোলাইটিস, নিউমোনিয়া, সেপসিস, সাডেন ইনফ্যান্ট ডেথ সিন্ড্রোম, হজকিন লিম্ফোমা সহ আরও বহু অসুখ। ব্রেস্টফিডিং করানোর সুফল আরও রয়েছে।
মায়ের জন্য—
 জন্মের পর ব্রেস্ট ফিডিং করালে তা ইউটেরাসের সংকোচনে সাহায্য করে ও রক্তপাত কমায়।
 স্বাভাবিকভাবে গর্ভনিরোধকের কাজ করে।
 ব্রেস্ট ও ওভারির ক্যান্সার আটকাতে সাহায্য করে।
 শিশু ও মায়ের মধ্যে সম্পর্ক দৃঢ় করে। এভাবে বছরে ২০ হাজার মায়ের প্রাণহানি আটকানো সম্ভব।
 মায়েদের সুগার প্রতিরোধে সাহায্য করে।
পরিবারের জন্যে
 অর্থ সাশ্রয় করে।
 পরিবার পরিকল্পনায় সাহায্য করে।
 হাসপাতালে ভর্তির হার কমায়।
 শিশুমৃত্যু রোধে অবদান রয়েছে।
মুশকিল হল, প্রথম মা হওয়ার পর মেয়েদের মনে নানা দ্বিধা দ্বন্দ্ব কাজ করে। ভয় থেকে যায় যে বাচ্চা ঠিকভাবে ব্রেস্টফিড করছে কি না। এছাড়া বাচ্চা সত্যিই দুধ খাচ্ছে কি না, তা বোঝাও মায়ের কর্তব্য। তা বোঝারও উপায় রয়েছে।
কী করে বুঝবেন বাচ্চা ঠিকমতো বুকের সঙ্গে যুক্ত?
 বাচ্চার মুখ খোলা থাকবে।
 নিপল ও অ্যারিওলার বেশিরভাগ অংশ বাচ্চার মুখে থাকবে এবং নীচের অ্যারিওলা দেখা যাবে না।
 বাচ্চার থুতনি ব্রেস্টে ঠেকে থাকবে।
 নীচের ঠোঁট সামান্য উল্টে থাকবে।
শিশু কতবার ব্রেস্টফিড করবে?
যতবার ইচ্ছে করতে পারে। বাচ্চা যতবার খিদেয় কাঁদবে, ততবার খাওয়ান।
এমনিতে দুই থেকে তিন ঘণ্টা অন্তর আট থেকে ১০ বার বাচ্চাদের খাওয়াতে হবে।
অবশ্যই রাতে ব্রেস্টফিড করান।
কী করে বুঝবেন সন্তান দুগ্ধপান করে সন্তুষ্ট?
 প্রতিবার খাওয়ার পর বাচ্চা ঘুমিয়ে যাবে ও দুই থেকে তিন ঘণ্টা ঘুমোবে।
 ছয় থেকে আটবার প্রস্রাব করবে।
 রোজ ২৫-৩০ গ্ৰাম করে ওজন বাড়বে।
মাতৃদুগ্ধ কত প্রকার ও কী কী ?
১. কোলোস্ট্রাম: এটি মা-এর প্রথম দুধ, গাঢ় এবং হলুদ রঙের।
২. অন্তর্বর্তীকালীন দুগ্ধ: তিন থেকে চারদিন পর থেকে শুরু করে দ্বিতীয় সপ্তাহ পর্যন্ত পাওয়া যায়।
৩. পরিণত দুগ্ধ: অন্তর্বর্তীকালীন দুগ্ধের পর এটি তৈরি হয়। অপেক্ষাকৃত তরল ও বাচ্চার বৃদ্ধিতে সহায়ক।
৪. অপরিণত বাচ্চাদের জন্য দুগ্ধ: খুব ছোট বাচ্চাদের মায়ের দুধে প্রোটিন, পুষ্টি, খনিজ অনেক বেশি পরিমাণে থাকে।
৫. প্রাথমিক দুগ্ধ: প্রথমে বেশি নিঃসৃত তরল দুধ, যা শিশুর তৃষ্ণা মেটায়।
৬. পরবর্তী দুগ্ধ: পরে নিঃসৃত অপেক্ষাকৃত ঘন দুধ যা শিশুর ক্ষুধা মেটায়।
কোলোস্ট্রাম কী এবং কীভাবে শিশুর উপকার করে?
কোলোস্ট্রাম হল ঘন হলুদ রঙের প্রথম দুধ, যা শিশুর জন্মের পর মায়ের শরীরে উৎপন্ন হয়।
কোলোস্ট্রাম পুষ্টিগুণে ও অ্যান্টিবডিতে সমৃদ্ধ যা শিশুকে সম্পূর্ণ পুষ্টি প্রদান করে এবং অসুস্থতা ও সংক্রমণ থেকে রক্ষা করে।
ব্রেস্টফিডিং সম্পর্কিত কাল্পনিক কথা—
 ঘন ঘন দুধ পান করালে দুধের উৎপাদন কমে যাবে।
 প্রথম ঘন ও হলুদ দুধ কোলোস্ট্রাম শিশুর জন্য ভালো নয়।
 ব্রেস্টফিডিং করানোর সময় পাঁচ-দশ মিনিটের মাথায় শিশু তার প্রয়োজনীয় সমস্ত দুধ পেয়ে যায়।
 একবার ব্রেস্টফিড করানোর পর মায়ের শরীরে দুগ্ধ সঞ্চয়নের জন্য কিছুটা সময় বিরতি হিসেবে দেওয়া উচিত।
ব্রেস্টফিড করানোর সঙ্গে যুক্ত সমস্যাগুলি
 উল্টো বা চ্যাপ্টা নিপল: দিনে কয়েক বার হালকা করে টানলে তা স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসে।
 ফাটা বা ব্যথা হওয়া নিপল: বাচ্চা শুধুমাত্র নিপল থেকে খেলে মা-এর এই ধরনের সমস্যা হতে পারে। শিশুকে সঠিকভাবে বুকে ধরালে এমন হবে না।
 বুকে দুধ জমে যাওয়া: এর ফলে বুক ভারী বা ব্যথা হতে পারে। বাচ্চাকে ঘনঘন দুধ খাওয়ান। বেশি ব্যথা হলে উষ্ণ জলে কাপড় ভিজিয়ে বুকে রাখুন।
 বুকে পুঁজ জমে যাওয়া: এতে মায়ের জ্বর আসে ও তীব্র ব্যথা হয়। এই সময় শিশুকে অন্য বুকে খাওয়ান। চিকিৎসা বলতে রয়েছে পুঁজ বের করা ও অ্যান্টিবায়োটিক খাওয়া।
 দুধ না হওয়া: বারবার শিশুকে দুধ খাওয়ান। শিশু যদি ওজনে বাড়ে, জানবেন দুধের পরিমাণ ঠিকই আছে। রাতে দুধ খাওয়ান।
উইনিং কী?
উইনিং হল শিশুর জন্মের ছয় মাস পর ধাপে ধাপে পরিপূরক ভারী খাবার ও তরলের সঙ্গে সঙ্গে মায়ের দুধ চালানো।
ব্রেস্টফিডিং-এর পথে বাধা কী কী?
একটি এনএফএইচএস সার্ভে অনুযায়ী, ভারতের ছয় মাসের নীচের শিশুদের ব্রেস্টফিডিং-এর হার মাত্র ৫৫ শতাংশ।
১. ব্যক্তিগত ভুল ধারণা: সঠিক জ্ঞানের অভাব, ব্রেস্টফিড করানোর লজ্জা, ‘প‌র্যাপ্ত দুধ হচ্ছে না’ এইসব ভুল ধারণা ভুল সামাজিক চিন্তা।
২. পরিবারগত সমস্যা: পরিবারের সাহায্য না পাওয়া, অত্যধিক কাজের চাপ।
৩. সামাজিক সমস্যা: কম বয়সে বিয়ে হয়ে যাওয়া। জনসচেতনতার অভাব, সামাজিক কারণে বাচ্চাদের মধু, গোরুর দুধ ইত্যাদি খাওয়ানো, দারিদ্র্য।
৪. প্রাতিষ্ঠানিক সমস্যা: ব্রেস্টফিড করানোর জায়গার অভাব, কর্মরতা মায়েদের ছুটির মারাত্মক সমস্যা। অনেককেই ছ’মাসের বহু আগেই কাজে যোগ দিতে হয়। এছাড়া সহকারীদের সাহায্য না পাওয়াও একটা বড় কারণ। আরও একটা বড় কারণ হল, বাণিজ্যিক গুঁড়ো দুধের সহজলভ্যতা।
একনজরে
 জন্মের সঙ্গে সঙ্গে মাতৃদুগ্ধ পান।
 কোলোস্ট্রাম অবশ্যই খাওয়ান।
 মা যে কোনও অবস্থায় স্তন্যপান করাতে পারেন।
 দিনে ও রাতে ব্রেস্টফিড করান।
 শিশুকে প্রথমে একটি বুকে সম্পূর্ণ খাওয়ান, তারপর অন্যটিতে।
 ছয় মাস পর্যন্ত শুধুমাত্র মাতৃদুগ্ধ পান।
 মিছরির জল, মধু, গোরুর দুধ, গুঁড়ো দুধ কখনওই খাওয়াবেন না।
 কখনওই বোতলে খাওয়াবেন না।
08th  August, 2019
বর্ষার জ্বর-সর্দি-কাশিতে অব্যর্থ
হোমিওপ্যাথিক দাওয়াই

পরামর্শে ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব হোমিওপ্যাথির পেডিয়াট্রিক এবং অ্যানাটমি বিভাগের প্রধান ডাঃ গৌতম আশ: বর্ষা মানে তীব্র দাবদাহের পর একরাশ স্বস্তি। তাই গোটা গ্রীষ্ম জুড়ে রাজ্যবাসী তাকিয়ে থাকে বর্ষার আশায়। তবে এই বছর পশ্চিমবঙ্গে বর্ষা দ্বৈত নীতি নিয়ে এসেছে। বিশদ

16th  August, 2019
সহজে বসের নজরে
আসবেন কীভাবে?

হার্ডওয়ার্ক আর কাজের প্রতি প্যাশন থাকলে তবেই সাফল্যের শিখর ছোঁওয়া যায়। একথা সবাই জানে। তবে শুধু পরিশ্রম করলেই তো চলবে না, আপনার যে ঘাম ঝরছে, তা ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নজরে আসাও দরকার। না হলে দেখবেন আপনি শুধু কাজ করে যাচ্ছেন, আর অন্যরা প্রমোশন পাচ্ছেন।
বিশদ

16th  August, 2019
ঘিয়ের উপকারিতায়
কমবে রোগের প্রকোপ

গরম ভাতে ঘি খেতে চায় না এমন বাঙালি খুঁজে বের করাই ভার। কিন্তু এখন শরীর-স্বাস্থ্য ঠিক রাখার দায়ে অনেকেই ঘি-কে খাদ্যতালিকা থেকে বাদ দিয়েছেন। তবে হালের এক সমীক্ষা অনুযায়ী দেখা গিয়েছে, প্রতিদিন পরিমিত ঘি খেলে উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবিটিসের মতো সমস্যা কমে।
বিশদ

16th  August, 2019
এবার মস্তিষ্ক থেকে মুছে
ফেলা যাবে বাজে স্মৃতি

প্রেম ভেঙেছে বলে কষ্ট পাচ্ছেন। এবার পরিত্রানের উপায় রয়েছে নিজের হাতেই। ইচ্ছেমতো মুছে ফেলা সম্ভব পুরোনো বাজে স্মৃতি। কী ভাবছেন সায়েন্স ফিকশন ছবির গল্প? একেবারেই নয়। এবার সত্যিই এই অসাধ্যসাধন সম্ভব। সম্প্রতি এক গবেষণার তথ্য অনুযায়ী চিন্তার বদল ঘটিয়ে মস্তিষ্কে থাকা বাজে স্মৃতি মুছে ফেলা সম্ভব।
বিশদ

16th  August, 2019
ডেঙ্গুতে পেঁপে পাতা
কতটা উপকারী?

 ডেঙ্গু অসুখটিকে আয়ুর্বেদ শাস্ত্রের বহু জায়গায় দণ্ডকজ্বর নামে অভিহিত করা হয়েছে। মুশকিল হল, ডেঙ্গু রোগে আক্রান্তের শারীরিক পরিস্থিতি কেমন হবে তা নির্ভর করে তাঁর রোগ-প্রতিরোধী ক্ষমতার উপর। দেখা গিয়েছে, যাঁর ইমিউনিটি কম, তাঁর ক্ষেত্রে ডেঙ্গু ভাইরাসের আক্রমণের প্রভাবও বেশি।
বিশদ

15th  August, 2019
 প্রবীণদের জন্য
‘টাইম ব্যাঙ্ক’

 ডাঃ ধীরেশ কুমার চৌধুরী ( জেরিয়াট্রিশিয়ান): ‘হেথা নাই কো মৃত্যু নাই কো জরা’ গানের কথাগুলো যতই শুনতে ভালো লাগুক, রূঢ় বাস্তবে তো এই দুটিই অনিবার্য। তাই বরং আমাদের লক্ষ্য হওয়া উচিত বয়সকালে কীভাবে নিজেকে ভালো ও সুরক্ষিত রাখা যায়, সেই বিষয়ে পরিকল্পনা নেওয়া। কিন্তু এই ভাবনা বা পরিকল্পনা করতে হবে অনেক আগে থেকেই।
বিশদ

15th  August, 2019
 এএসজি আই হাসপাতালে আধুনিক অপারেশন থিয়েটার

  তিন বছর পূর্ণ করল এএসজি আই হাসপাতালের কলকাতা শাখা। এই উপলক্ষে সংস্থার পক্ষ থেকে মডিউলার অপথ্যালমিক অপারেশন থিয়েটারের উদ্বোধন করা হয়। সংস্থার তরফে জানানো হয়, ২০০৫ সালে দিল্লি এইএমস-এর দুই চক্ষু চিকিৎসক ডাঃ অরুণ সিংভি এবং ডাঃ শশাঙ্ক গ্যাঙ্গ নিজেদের প্রচেষ্টায় রাজস্থানের যোধপুরে এএসজি আই হসপিটাল চালু করেন।
বিশদ

08th  August, 2019
মহর্ষি চরকের জন্মদিবস উদ্‌যাপন

 আয়ুর্বেদ-এর অন্যতম জনক মহর্ষি চরক। তাঁর রচিত ‘চরক সংহিতা’ আয়ুর্বেদ শাস্ত্রে অন্যতম মূল্যবান গ্রন্থ। বিশদ

08th  August, 2019
হাত মেলাল নিউবার্গ ডায়গনস্টিক এবং সি-ক্যাম্প

  কেন্দ্রীয় সরকারের বায়োটেকনোলজি ডিপার্টমেন্টের উদ্যোগে তৈরি সেন্টার ফর সেলুলার অ্যান্ড মলিকিউলার প্ল্যাটফর্মস (সি-ক্যাম্প)-এর সঙ্গে হাত মেলাল নিউবার্গ ডায়গনস্টিক প্রাইভেট লিমিটেড।
বিশদ

08th  August, 2019
 মাইক্রোসফট-অ্যাপোলোর যৌথ উদ্যোগ

ভারতে ২৫ থেকে ৬৯ বছর বয়সি যত মানুষের প্রাণহানি ঘটে, তার মধ্যে ২৫ শতাংশই ঘটে হার্টের রোগের কারণে। বিশেষ করে ইউরোপিয়ানদের তুলনায় ভারতীয়রা আক্রান্ত হচ্ছেন প্রায় এক দশক আগেই!
বিশদ

08th  August, 2019
 অঙ্গ প্রতিস্থাপনে এগচ্ছে বাংলা

  ‘বেঙ্গল হ্যাস দ্য হার্ট টু ডোনেট অর্গানস’ (অঙ্গদান করার জন্য বাংলার হৃদয় তৈরি) শীর্ষক এক আলোচনা চক্রের আয়োজন করেছিল কলকাতার আনন্দপুরের ফর্টিস হাসপাতাল। সেই আলোচনার উদ্দেশ্য ছিল মানুষকে অঙ্গদানে আরও বেশি করে উৎসাহিত করে তোলা, বিশেষ করে হার্ট প্রতিস্থাপনের ক্ষেত্রে।
বিশদ

01st  August, 2019
 নিউটাউনে এইচসিজি ইকো ক্যান্সার সেন্টারের উদ্বোধন

  উদ্বোধন হয়ে গেল এইচসিজি ইকো ক্যান্সার সেন্টারের। এইচসিজি এন্টারপ্রাইজ লিমিটেড এবং ইকো ডায়াগনস্টিক প্রাইভেট লিমিটেডের মিলিত উদ্যোগে নিউটাউনে শুরু হল এই ক্যান্সার হাসপাতালের পথ চলা।
বিশদ

01st  August, 2019
 সেলস রিপ্রেজেন্টেটিভসদের দাবি

 অল ওয়েস্ট বেঙ্গল সেলস রিপ্রেজেন্টেটিভস ইউনিয়নের পক্ষ থেকে ৪৫তম প্রতিষ্ঠা দিবস উপলক্ষ্যে কলকাতায় একটি সভার আয়োজন করা হয়েছিল। এই সভায় তথ্য প্রযুক্তি গবেষক শঙ্খদীপ ভট্টাচার্য ‘ধনতন্ত্রে যন্ত্র-বুদ্ধি’ নামক বিষয়ে আলোচনা করেন।
বিশদ

01st  August, 2019
পলিসিস্টিক ওভারিয়ান সিনড্রোম
চিনবেন কীভাবে?

মহিলাদের বন্ধ্যাত্ব সহ একাধিক শারীরিক সমস্যার পিছনে দায়ী পিসিওএস। উপেক্ষা না করে অসুখের উপসর্গগুলি সম্পর্কে জেনে নেওয়া দরকার। কারণ সময়ে চিকিৎসা ও জীবনযাত্রা পরিবর্তনের মাধ্যমে এড়ানো যায় অসুখটি। পরামর্শে স্পর্শ ইনফার্টিলিটি সেন্টারের কর্ণধার ডাঃ দেবলীনা ব্রহ্ম।
বিশদ

01st  August, 2019
একনজরে
 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: আর উপায় নেই। সুপ্রিম কোর্ট এবার রাজ্য সরকারের ‘রিভিউ পিটিশন’ খারিজ করে দেওয়ায় ২০০৬ সালের নিয়োগ প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণকারী প্রায় ১২০০ প্রার্থীকে প্রাথমিক শিক্ষক পদে নিয়োগ করতে হবে রাজ্য সরকারকে। ...

সংবাদদাতা, বিষ্ণুপুর: বিষ্ণুপুর শহরে দলমাদল রোডে ভরসন্ধ্যায় যুবক খুনের ঘটনায় শুক্রবার রাতে পুলিস এক ফুচকা বিক্রেতাকে গ্রেপ্তার করেছে। পুলিস জানিয়েছে, ধৃতের নাম মধুসূদন মাঝি। তার বাড়ি বিষ্ণুপুর পুরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ডে। অভিযোগ,ওইদিন সন্ধ্যায় ফুচকা বিক্রেতার সঙ্গে যুবকের বচসা বাধে। তা ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: গঙ্গাবক্ষে বিশ্বের দীর্ঘতম সাঁতার প্রতিযোগিতার আয়োজন করছে মুর্শিদাবাদ সুইমিং অ্যাসোসিয়েশন। ভাগীরথী নদীর উপর এই সাঁতার প্রতিযোগিতা হবে ৮১ ও ১৯ কিলোমিটার দূরত্বে। ...

 সংবাদদাতা, ময়নাগুড়ি: ময়নাগুড়ি সদর এলাকায় টোটোর দৌরাত্ম্য নিয়ন্ত্রণ করতে ময়নাগুড়ি পুলিস প্রশাসন বেশকিছু পদক্ষেপ নিতে চলেছে। ব্যস্ত রাস্তার ধারে বেআইনিভাবে টোটো পার্কিং করা হলে তা ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

হঠাৎ জেদ বা রাগের বশে কোনও সিদ্ধান্ত না নেওয়া শ্রেয়। প্রেম-প্রীতির যোগ বর্তমান। প্রীতির বন্ধন ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৯০০: রাজনীতিক বিজয়লক্ষ্মী পণ্ডিতের জন্ম
১৯৩৬: গীতিকার ও পরিচালক গুলজারের জন্ম
১৯৫৮: ইংলিশ চ্যানেল অতিক্রম করলেন প্রথম এশীয় ব্রজেন দাস
১৯৮০: সঙ্গীতশিল্পী দেবব্রত বিশ্বাসের মৃত্যু

ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭০.৫৯ টাকা ৭২.২৯ টাকা
পাউন্ড ৮৪.৮১ টাকা ৮৭.৯৪ টাকা
ইউরো ৭৭.৮৩ টাকা ৮০.৭৮ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
17th  August, 2019
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৮,২৪৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৬,২৮৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৬,৮৩০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৩,৯০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৪,০০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

১ ভাদ্র ১৪২৬, ১৮ আগস্ট ২০১৯, রবিবার, তৃতীয়া ৪৯/৪৯ রাত্রি ১/১৪। পূর্বভাদ্রপদ ২৯/২ অপঃ ৪/৫৫। সূ উ ৫/১৮/২, অ ৬/৩/১৪, অমৃতযোগ দিবা ৬/৯ গতে ৯/৩৩ মধ্যে। রাত্রি ৭/৩২ গতে ৯/২ মধ্যে, বারবেলা ১০/৫ গতে ১/১৬ মধ্যে, কালরাত্রি ১/৫ গতে ২/৩০ মধ্যে।
৩২ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৮ আগস্ট ২০১৯, রবিবার, তৃতীয়া ৪৩/৯/৬ রাত্রি ১০/৩২/৩৬। পূর্বভাদ্রপদনক্ষত্র ২৬/১/৪১ দিবা ৩/৪১/৩৮, সূ উ ৫/১৬/৫৮, অ ৬/৫/৪৬, অমৃতযোগ দিবা ৬/১২ গতে ৯/৩১ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/২২ গতে ৮/৫৪ মধ্যে, বারবেলা ১০/৫/১৬ গতে ১১/৪১/২২ মধ্যে, কালবেলা ১১/৪১/২২ গতে ১/১৭/২৮ মধ্যে, কালরাত্রি ১/৫/১৬ গতে ২/২৯/১০ মধ্যে।
 ১৬ জেলহজ্জ

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
নয়াদিল্লির এইমস-এ আগুন
নয়াদিল্লির এইমস -এ আগুন। ঘটনাটি ঘটে আজ বিকাল ৫টা নাগাদ। ...বিশদ

17-08-2019 - 05:47:48 PM

ভাইকে নিয়ে স্বামীকে খুন, যাবজ্জীবন কারাদণ্ড 
ভাইকে সঙ্গে নিয়ে স্বামীকে খুনের ঘটনায় দু’জনকেই যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের সাজা ...বিশদ

17-08-2019 - 04:09:34 PM

জলমগ্ন শহর, পুরকর্মীদের ছুটি বাতিল 
টানা বৃষ্টিতে কার্যত জলের নীচে মহানগর। ব্যাহত হচ্ছে জনজীবন। দ্রুত ...বিশদ

17-08-2019 - 02:13:11 PM

ট্রাকে ধাক্কা যাত্রীবোঝাই বাসের, জখম ২০ 
গভীর রাতে দাঁড়িয়ে থাকা ট্রাকের পেছনে ধাক্কা যাত্রীবোঝাই বাসের। ঘটনায় ...বিশদ

17-08-2019 - 01:55:28 PM

ভুয়ো পরিচয় দিয়ে লক্ষ লক্ষ টাকার প্রতারণা, ধৃত অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মী 
সচিব পদমার্যাদার অফিসার পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন সরকারি কর্মীদের লক্ষ লক্ষ ...বিশদ

17-08-2019 - 01:07:00 PM

সঙ্কটে জেটলি, রাখা হল লাইফ সাপোর্টে 
আরও সঙ্কটে অরুণ জেটলি। এদিন সকাল থেকে প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীকে ...বিশদ

17-08-2019 - 12:57:58 PM