Bartaman Patrika
চাষ আবাদ
 
 

 সব্জি খেতে স্প্রে করার কাজ চলছে। -নিজস্ব চিত্র

শীতকালীন রকমারি সব্জিচাষের প্রস্তুতি নিতে হবে এখন থেকেই
আমনে ভালো ফলন পেতে জরুরি অনুখাদ্য

ব্রতীন দাস: যে সব কৃষক এখনও মূলজমিতে আমন ধান রোয়া করেননি, তাঁদের দ্রুততার সঙ্গে ধান রোয়ার কাজ শেষ করে ফেলার পরামর্শ দিচ্ছেন কৃষি আধিকারিকরা। তাঁদের বক্তব্য, মূলসার হিসেবে একর প্রতি ৯০ কেজি হারে সিঙ্গল সুপার ফসফেট, ৩০ কেজি মিউরিয়েট অফ পটাশ, ২৪ কেজি ইউরিয়া ও ১৫০ কেজি হারে জৈবখোল প্রয়োগ করতে হবে। এই সময় আউশ ধানের জমিতে মাজরা, পাতামোড়া সহ বিভিন্ন পোকার আক্রমণের আশঙ্কা থাকে। এ ধরনের পোকা দমন করার জন্য কার্টাপ হাইড্রোক্লোরাইড ৫০ শতাংশ এসপি প্রতি লিটার জলে ১ গ্রাম হারে ব্যবহার করা যেতে পারে বলে সুপারিশ করছেন কৃষি আধিকারিকরা। বাদামি শোষক পোকা দমনে প্রয়োগ করা যেতে পারে ফিপ্রোনিল ৫ শতাংশ এসপি। প্রতি লিটার জলে প্রয়োগ করতে হবে দেড় মিলি হারে। খোলাপচা, গোড়াপচা ও ডাঁটাপচা রোগ প্রতিরোধে ব্যবহার করতে হবে ভ্যালিডামাইসিন ৩ শতাংশ এল। মাত্রা প্রতি লিটার জলে ২ মিলি। ধানের ঝলসা রোগ প্রতিরোধে কাসুগামাইসিন ৩ শতাংশ এসএল প্রতি লিটার জলে ২ মিলি হারে ও পাতায় বাদামি ছিটে দাগ রোগ প্রতিরোধে কপার হাইড্রক্সাইড ৭৭ শতাংশ ডব্লুপি প্রতি লিটার জলে ২ গ্রাম হারে প্রয়োগ করতে হবে।
শীতকালীন সব্জি চাষের জন্য এইসময় বীজতলা তৈরির কাজ শুরু করা যেতে পারে। এক মিটার চওড়া, ১৫ সেন্টিমিটার উঁচু এবং উপযুক্ত দৈর্ঘ্যের বীজতলা তৈরি করতে হবে। শোধন করে তবেই বুনতে হবে বীজ। পুষ্ট ও নিরোগ চারা রোপণ করতে হবে মূল জমিতে। ভাদ্রমাসে পেঁয়াজ, মাঝ-মরশুমি ফুলকপি, জলদি সাধারণ বাঁধাকপি, জলদি মটরশুঁটি, ফরাস-বিন এবং গাজরের বীজ বোনারও সঠিক সময়। বড় কন্দের পেঁয়াজ ১৫ বাই ১০ সেমি, ছাঁচি পেঁয়াজ ৩০ বাই ১৫ সেমি, জলদি ও মাঝারি ফুলকপি ৬০ বাই ৪৫ সেমি, মাঝারি ও নাবি জাতের ফুলকপি ৬০ বাই ৪৫ সেমি, জলদি বাঁধাকপি ৬০ বাই ৪৫ সেমি, জলদি মটরশুঁটি ৩০ বাই ১০ সেমি, লতানে ফরাস-বিন ৯০ বাই ২০ সেমি, বেঁটে ফরাস বিন ৪৫ বাই ১৫ সেমি দূরত্বে চারা বা বীজ বসাতে হবে। বিধানচন্দ্র কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. কল্যাণ চক্রবর্তী জানিয়েছেন, শীতকালিন সব্জির জমি তৈরির জন্য উপযুক্ত মাত্রায় কেঁচোসার বা গোবরসার প্রয়োগ করতে হবে। হেক্টর প্রতি জৈবসার প্রয়োগের মাত্রা পেঁয়াজের ক্ষেত্রে ৫-৬ টন কেঁচোসার, ফুলকপি ও বাঁধাকপি, ফরাস বিন, গাজরের ক্ষেত্রে ১৫-২০ টন গোবরসার প্রয়োগ করতে হবে। প্রতি হেক্টর জমির জন্য পেঁয়াজে ১২০: ৬০: ১০০, ফুলকপিতে ১২৫: ৮০: ৬০, বাঁধাকপিতে ১৫০: ৮০: ৮০, মটরশুঁটিতে ২৫: ৬০: ৬০, ফরাস বিনে ৮০: ৬০: ৪০ এবং গাজরে ৫০: ৪০:৫০ কেজি নাইট্রোজেন, ফসফেট ও পটাশ সার প্রয়োগ করা উচিত।
অনুখাদ্যের অভাবজনিত কারণে সুপারিশকৃত অনুখাদ্য প্রয়োগ করা জরুরি। নাইট্রোজেন, ফসফেট ও পটাশ সারকে ইউরিয়া, সিঙ্গল সুপার ফসফেট ও মিউরিয়েট অফ পটাশে হিসেব করতে হলে ২.২, ৬.১ এ ১.৬ দিয়ে গুণ করে নিতে হবে। জলদি ও মাঝারি জাতের ফুলকপির জন্য বিঘা প্রতি ৬০-৭০ গ্রাম, জলদি বাঁধাকপির জন্য ৮০-৯০ গ্রাম, জলদি মটরশুঁটির জন্য ১০-১২ কেজি, ফরাস বিনের ১৩-১৪ কেজি এবং গাজরের জন্য দেড় কেজি থেকে দুই কেজি বীজ দরকার। মাঝারি ফুলকপির জাতগুলি হল পন্থ শুভ্র, হিসার-১, ইম্প্রুভ জাপানিজ, পুসা শরদ, পন্থ গোবি-৪, পাঞ্জাব জায়েন্ট-৩৫ অথবা ডি-৯৬, পুসা আর্লি সিন্থেটিক, পুসা হিমজ্যোতি, পুসা শুভ্র। বাঁধাকপির জাতগুলির মধ্যে গ্রিন এক্সপ্রেস, রেয়ার বল, মাস্টার এক্সপ্রেস, কৃষ্ণা, হরিরানি, ট্রপিকাল ইত্যাদি উন্নত জাত। মটরশুঁটির জলদি জাতের মধ্যে আর্কেল, হিসার হরিত, জওহর মটর-৪, হরভজন, আলাস্কা, আর্লি বাজার, মেটিওর, আসওজি, অলডারম্যান, আজাদ পি-১ প্রভৃতি উন্নত জাত। গাজরের উন্নত জাত ন্যানটিস, পুসা কেশর, পুসা মেঘালি প্রভৃতি। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, শ্রাবণ মাসের মধ্যে রোয়ার কাজ শেষ না হলে ভাদ্র মাসের মধ্যে আমন ধান রোয়া শেষ করে ফেলতে হবে। যাঁরা শ্রাবণ কিংবা আষাঢ় মাসের শেষে ধান রোয়া করে ফেলেছেন তাঁরা সময় বুঝে রোয়ার তিন সপ্তাহ পর বা দ্বিতীয় রোয়ার ছয় সপ্তাহ পর নিড়ানির পরে চাপান সার দেবেন। জমি তৈরি পর্বে শেষ চাষের সময় সুপারিশকৃত নাইট্রোজেন সারের এক চতুর্থাংশ, সম্পূর্ণ ফসফেট ও অর্ধেক পরিমাণ পটাশ সার দেওয়া হয়। এখন প্রথম চাপান সার হিসেবে অর্ধেক নাইট্রোজেন ও অর্ধেক পটাশ সার দিতে হবে। দ্বিতীয় চাপানের সময় বাকি এক চতুর্থাংশ নাইট্রোজেন সার প্রয়োগ করতে হবে। আগাছা দমনের জন্য চারা রোয়ার চার দিনের মাথায় প্রতি বিঘা জমির জন্য ৬০ লিটার জলে ২৫০ মিলি বুটাক্লোর ৫০ ইসি গুলে স্প্রে করা যেতে পারে। নতুবা নিড়ানির সাহায্যে বা হাত দিয়ে আগাছা তুলে ফেলতে হবে চাপান সার প্রয়োগ করার ঠিক আগে। আমন ধানে প্রথম চাপান হিসেবে বিঘা প্রতি ৬ কেজি নাইট্রোজেন এবং ৩ কেজি পটাশ এবং দ্বিতীয় চাপান হিসেবে ৩ কেজি নাইট্রোজেন প্রয়োগ করা দরকার। শ্রাবণ মাসে আখে সুপারিশকৃত চাপান সার দিয়ে ভেলি তুলে দেওয়ার কাজ শেষ হয়ে থাকলে ভাদ্রমাসে শুকনো পাতা দিয়ে কয়েক বাণ্ডিল আখ একসঙ্গে বেঁধে দেওয়ার কাজ শেষ করতে হবে, যাতে ঝড়বৃষ্টিতে আখ মাটিতে পড়ে না যায়। এইসময় আখের মাজরা পোকা ও ধসা রোগের জন্য ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। জলদি আলু আশ্বিনমাস থেকে লাগানো শুরু হলেও ভাদ্রমাস থেকেও লাগানো যায়। কুফরি অশোকা, কুফরি জ্যোতি, কুফরি চন্দ্রমুখী, কুফরি জওহর জাতের আলু বীজ পরিমাণ মতো সংগ্রহ করে ফেলতে হবে। বিঘা প্রতি আড়াই থেকে তিন কুইন্টাল বীজ আলুর দরকার। বীজ আলু শোধন করে বসাতে হবে। ম্যানকোজেব ০.২৫ শতাংশ দ্রবণে ১০ মিনিট ভিজিয়ে শোধন করা যেতে পারে। বিঘা প্রতি মোট ১০ কুইন্টাল জৈবসার ও যথাক্রমে ৩০, ২০ এবং ২০ কেজি হারে নাইট্রোজেন, ফসফেট ও পটাশ সার ব্যবহার করতে হবে। শেষ চাষের সময় জৈবসার ছাড়াও বিঘা প্রতি ১০ কেজি নাইট্রোজেন এবং পুরো ফসফেট ও পটাশ সার প্রয়োগ করতে হবে। এছাড়া প্রয়োজন অনুসারে বিঘা প্রতি ৩ কেজি হারে জিঙ্ক সালফেট মূল সার হিসেবে জমিতে দিতে হবে। মনে রাখতে হবে, আলু বসানোর ২০ ও ৪০ দিনের মাথায় বাকি নাইট্রোজেন সারের অর্ধেক করে প্রয়োগ করতে হবে। আলু বসানোর সময় সারি থেকে সারির দূরত্ব হবে ৬০ সেন্টিমিটার এবং সারিতে গাছের দূরত্ব রাখতে হবে ২০ সেন্টিমিটার। ভাদ্রমাসে খরিফ ফসল হিসেবে কলাই বোনা যাবে। শ্রাবণের তৃতীয় সপ্তাহ থেকেই এই কাজ শুরু করা যেতে পারে। বিঘা প্রতি তিন থেকে সাড়ে তিন কেজি বীজ লাগবে। বীজ শোধন করতে প্রতি কেজিতে ২ গ্রাম কার্বেন্ডাজিম মিশিয়ে নিতে হবে। বীজের সঙ্গে নির্দিষ্ট রাইজোবিয়াম জীবাণু সার ব্যবহার করা উচিত। কলাইয়ের উন্নত জাত সারদা, গৌতম, উত্তরা, কালিন্দী প্রভৃতি। জমি তৈরি করতে জৈবসার ছাড়াও বিঘাপ্রতি যথাক্রমে ৩, ৫ ও ৫ কেজি নাইট্রোজেন, ফসফেট ও পটাশ সার প্রয়োগ করতে হবে।
04th  September, 2019
 গাঁদাফুল চাষে লাভ মিলবে ভালোই

অলোক বন্দ্যোপাধ্যায়: প্রচলিত বিভিন্ন ফসল চাষের পাশাপাশি চাষিরা কিছুটা জমিতে গাঁদাফুলের চাষ করলে ভালো আর্থিক লাভের মুখ দেখতে পাবেন। গাঁদাফুলের চাষ গ্রীষ্ম, বর্ষা, শীত, বছরের তিন মরশুমেই করা যায়।
বিশদ

 মালদহে বিলি করা হবে আম, লিচু, লেবু ও পেয়ারার চারা

মঙ্গল ঘোষ: পুজোর আগে মালদহের পনেরোটি ব্লকজুড়ে কৃষকদের আম, লিচু, লেবু, পেয়ারার চারা দিতে চলেছে উদ্যানপালন দপ্তর। এজন্য ওই জোর প্রস্তুতি শুরু হয়ে গিয়েছে। সেপ্টেম্বর মাসের মধ্যেই এই কার্যক্রম শুরু হয়ে যাবে। সব ব্লকের একাধিক চাষি এই চারাগুলি পাওয়ার জন্য ইতিমধ্যেই ওই দপ্তরে ফর্ম পূরণ করে জমা দিয়েছেন।
বিশদ

 অশ্বগন্ধা চাষ করতে হলে মাঠে নামতে হবে চলতি মাসেই

প্রসেনজিৎ সরকার, শিলিগুড়ি: শিলিগুড়ি মহকুমায় অশ্বগন্ধা চাষে আগ্রহীদের সেপ্টেম্বর মাস থেকে জমি তৈরির উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে। উর্বর-অনুর্বর উভয় জমিতে অশ্বগন্ধা চাষ করা যায়। বিশেষজ্ঞদের দাবি, ভেষজ জাতীয় এই গাছ বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধের ক্ষেত্রে উপকারী। অক্টোবর ও নভেম্বর মাস এই গাছের চারা লাগানোর উপযুক্ত সময়।
বিশদ

 অল্প খরচে পেঁপে

সংবাদদাতা: সামান্য খরচে পেঁপে চাষ করে ভালো লাভ করা সম্ভব। চাষিরা জমিতে এই চাষ করতে পারেন। আবার বাড়িতে সামান্য জায়গা থাকলেও পেঁপে গাছ লাগানো যেতে পারে। 
বিশদ

 অসময়ে বাজার ধরতে শরতে তরমুজ চাষ, ৬০ দিনেই ফলন

ব্রতীন দাস: তরমুজ মূলত গরমের ফল। কিন্তু, শরতেও তরমুজ ফলিয়ে বাড়তি লাভ পেতে পারেন কৃষকরা। ছটপুজোর কথা মাথায় রেখে আগাম বাজার ধরতে অসময়ে তরমুজের ভালোই চাহিদা থাকে। হাইব্রিড বিভিন্ন প্রজাতির সুবাদে পলি-মালঞ্চিং করে শরৎকালে তরমুজ ফলানো সম্ভব হচ্ছে।
বিশদ

কান্দির বিলে জল না থাকায় মাছের আকাল, ভিনরাজ্যে মৎস্যজীবীরা

 ইন্দ্রজিৎ কর্মকার, কান্দি: বর্ষায় কম বৃষ্টি হওয়ায় পর্যাপ্ত জল নেই কান্দি মহকুমার অন্তর্গত পাটন বিল ও কারোল বিলে। ফলে ওই দুই বিল থেকে সেভাবে মাছ আমদানিও হচ্ছে না বাজারগুলিতে। তাই রুজি রোজগারে টান পড়েছে সংশ্লিষ্ট এলাকার মৎস্যজীবীদের। পুজোর আগে হতাশ মৎস্যজীবীরা রুজির টানে পাড়ি দিচ্ছেন ভিনরাজ্যে।
বিশদ

মুর্শিদাবাদে জাঁক দেওয়ার মতো জল নেই, শুকিয়ে যাচ্ছে পাট, মাথায় হাত কৃষকদের

সংবাদদাতা, বহরমপুর: সেপ্টেম্বরের প্রথম সপ্তাহ পেরলেও মুর্শিদাবাদ জেলার বহু জমিতে পাটগাছ দাঁড়িয়ে রয়েছে। পর্যাপ্ত জলের অভাবে এখনও পাট কাটতে পারেননি বহু চাষি। জাঁক দেওয়ার জন্য বহু জায়গায় জলাশয়ের ধারেই ডাঁই করে রাখা হয়েছে পাট। জাঁক দেওয়া পাট তোলা হলে তবেই চাষিরা ওই পাট পচাতে দিতে পারবেন।
বিশদ

 তাপপ্রবাহে পুড়ে নষ্ট হয়েছে আমনের চারা, ফের বীজ বিলি

প্রসেনজিৎ সরকার, শিলিগুড়ি: ফাঁসিদেওয়ায় জুলাই মাসে ২০-২৫ হেক্টর জমিতে লাগানো আমন ধানের চারা পুরো নষ্ট হয়ে গিয়েছে। ব্লকের উত্তর বাগদাও কিসমত, মধ্য বাগদাও কিসমত, পশ্চিম বাগদাও কিসমত, খুঁটিগছ, জালাস- নিজামতারার কাশিরাম সংলগ্ন এলাকাতে জলের অভাবে ধানের চারা নষ্ট হয়েছে। এমন অবস্থায় কৃষকদের মাথায় হাত পড়েছে।
বিশদ

04th  September, 2019
 ময়নাগুড়িতে দেখা নেই নদীয়ালি মাছের

উত্তরের নদীগুলি থেকে নদীয়ালি মাছ হারিয়ে যেতে বসেছে। এর জন্য আমরা নিজেরাই অনেকটা দায়ী। মৎস্যচাষীদের মধ্যে অনেকেই নদী থেকে মাছ ধরতে বিদ্যুৎ সংযোগ ব্যবহার করেন বা বিষ প্রয়োগ করেন। এর ফলে নদীতে বা জলাশয়ে মাছের প্রজনন হ্রাস পায়। বিষ প্রয়োগে অনেক সময় নদীতে মাছের মড়ক দেখা দিতে পারে। - ইন্দ্রনীল ঘোষ, মৎস্যবিজ্ঞানী, রামশাই কৃষিবিজ্ঞান কেন্দ্র
বিশদ

04th  September, 2019
 কাটোয়ায় কাশ্মীরি ‘মালতা লেবু’ চাষের নয়া উদ্যোগ কৃষিদপ্তরের

অনিমেষ মণ্ডল, কাটোয়া: কাশ্মীরের আপেলের পর এবার এ রাজ্যের মাটিতে কাশ্মীরি মালতা লেবু চাষ করে চাষিদের আয়ের পথ দেখাচ্ছে কৃষিদপ্তর। রাজ্য সরকার বিভিন্ন জেলায় আতমা প্রকল্পের মাধ্যমে এই প্রজাতির লেবু চাষের উদ্যোগ নিচ্ছে। পূর্ব বর্ধমান জেলার কাটোয়া-১ ব্লক কৃষিদপ্তরে পরীক্ষামূলকভাবে মালতা লেবুর চাষ শুরু হয়েছে।
বিশদ

04th  September, 2019
 সুন্দরবনে পানচাষ বাড়ছে

নবজ্যোতি সরকার : দক্ষিণ ২৪ পরগনার সুন্দরবন অঞ্চলে নোনা মাটিতে নতুন প্রজাতির উচ্চ ফলনশীল পানের জাত চাষ হচ্ছে। জাতটি বিধান পান ১। এটি একটি সার্টিফায়েড প্রজাতি। সার্টিফিকেশন দিয়েছে ওয়েস্টবেঙ্গল স্টেট সিড সার্টিফিকেশন কমিটি। এই জাতে রোগপোকার আক্রমণ কম হয়। বর্ষায় প্রচুর উৎপাদন হয়।
বিশদ

04th  September, 2019
নদীয়ায় সুধা ও শুকনো কর্ষণ পদ্ধতিতে চলছে আমন চাষ  

নবজ্যোতি সরকার: নদীয়া জেলায় এখনও বৃষ্টির ঘাটতি ২০ শতাংশ। আবহাওয়ার এই খামখেয়ালিপনার সঙ্গে লড়াই করতে নদীয়া জেলার রানাঘাট জলসেচ গবেষণা কেন্দ্রের বিজ্ঞানীরা সুধা বা সুনিশ্চিত ধান চাষের কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন।   বিশদ

28th  August, 2019
মালদহে কাশ্মীরি কুল, গঙ্গাবর্ধন, কাটিমন, বাউকুল চাষের উদ্যোগ 

মঙ্গল ঘোষ: ফলচাষিদের লাভের মুখ দেখাতে এবার মালদহ জেলায় একাধিক নতুন ফলগাছের চারা রোপণ করা হবে। কালিয়াচকের তিনটি ব্লক বাদ দিয়ে মালদহ জেলার ১২টি ব্লকে এবার কাশ্মীরি কুল, গঙ্গাবর্ধন, কাটিমন, বাউকুলের মতো ফলের চারা লাগানোর পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।  বিশদ

28th  August, 2019
আমদানি কমায় দাম চড়ছে পেঁয়াজের,
ঘাটতি মেটাতে রাজ্যে উৎপাদনে জোর 

নিজস্ব প্রতিনিধি: মহারাষ্ট্র, তামিলনাড়ু বন্যায় মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় পেঁয়াজের আমদানি কমেছে। ফলে বাজারে পেঁয়াজের দাম বাড়ছে হু হু করে। খুচরো বাজারে পেঁয়াজ ৪৫ টাকা কেজি ছাড়িয়ে গিয়েছে। এই অবস্থা চলতে থাকলে সামনেই উৎসবের মরশুমে পেঁয়াজের দর আরও কাঁদাতে পারে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।   বিশদ

28th  August, 2019

Pages: 12345

একনজরে
ইসলামাবাদ, ১০ সেপ্টেম্বর (পিটিআই): আল-আজিজিয়া দুর্নীতি মামলায় প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের আবেদনের শুনানির জন্য দুই সদস্যের বেঞ্চ গঠন করল ইসলামাবাদ হাইকোর্ট। পাক সংবাদপত্র ‘ডন’-এর দাবি, বিচারপতি আমির ফারুক এবং বিচারপতি মহসিন আখতার কিয়ানির ওই বেঞ্চে ১৮ সেপ্টেম্বর থেকে শুনানি শুরু ...

পাপ্পা গুহ, উলুবেড়িয়া: আর মাত্র কয়েকদিনের অপেক্ষা। তারপরেই বাঙালি মেতে উঠবে দুর্গোৎসবের আনন্দে। বাঙালিদের এই আনন্দ পরিপূর্ণ করতে ইতিমধ্যে সাজসাজ রব কুমোরটুলিতে। শুধু প্রতিমা তৈরি ...

বিএনএ, সিউড়ি ও সংবাদদাতা, শান্তিনিকেতন: নানুরে নিহত বিজেপি কর্মী স্বরূপ গড়াইয়ের মৃতদেহ নেওয়া নিয়ে মঙ্গলবার দিনভর টানাপোড়েন চলল। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বোলপুর মহকুমা হাসপাতালের মর্গ থেকে ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: মঙ্গলবার ছিল মহরম। তাই সোমবার সন্ধ্যাতেই রেফারি দীপু রায়ের রিপোর্ট চেয়ে পাঠান আইএফএ সচিব। তিনি সাড়ে দশটা পর্যন্ত ছিল দপ্তরে। পুলিসের গাড়িতে ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

ঝগড়া এড়িয়ে চলার প্রয়োজন। শরীর স্বাস্থ্য বিষয়ে অহেতুক চিন্তা করা নিষ্প্রয়োজন। আজ আশাহত হবেন না ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮৬২- মার্কিন ছোট গল্পকার ও হেনরির জন্ম
১৮৯৩- শিকাগোর ধর্ম সম্মেলনে স্বামী বিবেকানন্দ ঐতিহাসিক বক্তৃতা করেন
১৯০৮- বিপ্লবী বিনয় বসুর জন্ম
১৯১১- ক্রিকেটার লালা অমরনাথের জন্ম
২০০১- নিউ ইয়র্কের ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে এবং পেন্টাগনে বিমান হানায় অন্তত ৩ হাজার মানুষের মৃত্যু

ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭০.৮৪ টাকা ৭২.৫৪ টাকা
পাউন্ড ৮৬.৪২ টাকা ৮৯.৫৯ টাকা
ইউরো ৭৭.৫৭ টাকা ৮০.৫২ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
10th  September, 2019
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৮,৭০০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৬,৭১৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৭,২৬৫ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৭,০০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৭,১০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

২৫ ভাদ্র ১৪২৬, ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, বুধবার, ত্রয়োদশী ৫৯/১৩ শেষ রাত্রি ৫/৭। শ্রবণা ২১/২৫ দিবা ১/৫৯। সূ উ ৫/২৫/৩১, অ ৫/৪১/৩৮, অমৃতযোগ দিবা ৭/৪ মধ্যে পুনঃ ৯/৩০ গতে ১১/৮ মধ্যে পুনঃ ৩/১৩ গতে ৪/৫১ মধ্যে। রাত্রি ৬/২৮ মধ্যে পুনঃ ৮/৪৯ মধ্যে পুনঃ ১/৩১ গতে উদয়াবধি, বারবেলা ৮/২৯ গতে ১০/১ মধ্যে পুনঃ ১১/৩৩ গতে ১/৫ মধ্যে, কালরাত্রি ২/৩০ গতে ৩/৫৮ মধ্যে।
২৪ ভাদ্র ১৪২৬, ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, বুধবার, ত্রয়োদশী ৫৮/৩৭/১১শেষরাত্রি ৪/৫১/৫৭। শ্রবণা নক্ষত্র ২৪/৫৬/২৬ দিবা ৩/২৩/৩৯, সূ উ ৫/২৫/৫, অ ৫/৪৩/৪৫, অমৃতযোগ দিবা ৭/২ মধ্যে ও ৯/৩১ গতে ১১/১০ মধ্যে ও ৩/১৮ গতে ৪/৫৭ মধ্যে এবং রাত্রি ৬/৩৩ গতে ৮/৫৩ মধ্যে ও ১/৩১ গতে ৫/২৫ মধ্যে, বারবেলা ১১/৩৪/২৫ গতে ১/৬/৪৫ মধ্যে, কালবেলা ৮/২৯/৪৫ গতে ১০/২/৫ মধ্যে, কালরাত্রি ২/২৯/৪৫ গতে ৩/৫৭/২৫ মধ্যে। 
 ১১ মহরম

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
রাজ্যে এখনই চালু হচ্ছে না নয়া মোটর ভেইকেলস আইন 
রাজ্যে এখনই চালু হচ্ছে না নয়া মোটর ভেইকেলস আইন। আজ ...বিশদ

06:41:55 PM

এবার রেল স্টেশনেও নিষিদ্ধ হচ্ছে প্লাস্টিক
এবার একবার ব্যবহারযোগ্য প্লাস্টিক নিয়ে আর প্রবেশ করা যাবে না ...বিশদ

04:56:20 PM

কৈখালিতে গাড়ির ধাক্কায় মৃত যুবক 

04:17:00 PM

কলেজে ভর্তিতে দুর্নীতি রুখতে জেলায় সাহায্য কেন্দ্র খুলবে সরকার 
ভর্তি প্রক্রিয়া বেশ কিছু বছর ধরে অনলাইনেই চলছে। তবুও দুর্নীতি ...বিশদ

03:56:24 PM

দিদিকে বলো কর্মসূচিতে গিয়ে বিক্ষোভের মুখে ইংলিশবাজার পুরসভার ভাইস চেয়ারম্যান 

03:32:00 PM

তমলুকে মহিলা আইনজীবীর অস্বাভাবিক মৃত্যু, আটক স্বামী
তমলুকে মহিলা আইনজীবীর অস্বাভাবিক মৃত্যু। মৃতার নাম প্রিয়াঙ্কা কাণ্ডার সরকার(২৪)। ...বিশদ

03:05:44 PM